corona virus btn
corona virus btn
Loading

দিল্লি হিংসায় ষড়যন্ত্রের অভিযোগ, প্রাক্তন JNU-ছাত্র উমর খালিদকে ১০ দিনের পুলিশি হেফাজত

দিল্লি হিংসায় ষড়যন্ত্রের অভিযোগ, প্রাক্তন JNU-ছাত্র উমর খালিদকে ১০ দিনের পুলিশি হেফাজত
উমর খালিদ

দিল্লি হিংসায় উমরকেই অন্যতম মূল ষড়যন্ত্রকারী হিসেবে অভিযোগ করেছে দিল্লি পুলিশের স্পেশাল সেল।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: দিল্লি হিংসায় ষড়যন্ত্রের অভিযোগে প্রাক্তন জেএনইউ ছাত্রনেতা উমর খালিদকে ১০ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিল দিল্লির আদালত৷ গত ফেব্রুয়ারি মাসে দিল্লি হিংসায় জড়িত থাকার অভিযোগে উমর খালিদের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস-বিরোধী UAPA আইনে মামলা করা হয়েছে৷

দিল্লি হিংসার ঘটনায় জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের প্রাক্তন সদস্য উমর খালিদকে গ্রেফতার করে দিল্লি পুলিশ। দিল্লি হিংসায় উমরকেই অন্যতম মূল ষড়যন্ত্রকারী হিসেবে অভিযোগ করেছে দিল্লি পুলিশের স্পেশাল সেল।

দিল্লি হিংসার সম্পর্কিত একটি পৃথক চার্জশিটে দিল্লি পুলিশ জানিয়েছে, আম আদমি পার্টির বহিষ্কৃত নেতা ও বর্তমানে জেলবন্দি তাহির হুসেনের সঙ্গে দেখা করেছিলেন খালিদ গত ৮ জানুয়ারি শাহিনবাগের প্রতিবাদ মঞ্চে৷ এনআরসি-সিএএ বিরোধী সেই শাহিনবাগ মঞ্চেই তাহিরের সঙ্গে মিলে হিংসা ছড়ানোর পরিকল্পনা করেন খালিদ৷ গত দু মাসে দু বার দিল্লি হিংসার তদন্তে উমর খালিদকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ৷ খালিদের একটি ভাষণও দিল্লির হিংসার সঙ্গে জড়িত বলে দাবি করেছে দিল্লি পুলিশ৷

খালিদের আইনজীবী ত্রিদীপ পেইস আদালতকে বলেন, কোথায় উমর খালিদ ভাষণ দিয়েছিলেন এবং সবাইকে প্রতিবাদ করতে আহ্বান জানিয়েছিলেন, সেই তথ্যপ্রমাণ দিক পুলিশ৷ খালিদ সিএএ-র বিরুদ্ধে৷ এবং এর জন্য তিনি মর্মাহত নন৷

উমর খালিদের বাবা সইদ কাসিম রসুল ইলিয়াসের বক্তব্য, সিএএ ও এনআরসি-র প্রতিবাদে শাহিনবাগ আন্দোলনে যাঁরাই অংশ নিয়েছিলেন, তাঁদেরই বেছে বেছে টার্গেট করছে দিল্লি পুলিশ৷ কিন্তু সবাই জানে, কারা আসলে ওই হিংসার পিছনে ছিল৷

দিল্লি হিংসার ঘটনায় গত ৬ মার্চ প্রথম উমর খালিদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়। অভিযোগে বলা হয়, উস্কানিমূলক ভাষণ দেওয়ার পাশাপাশি, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ভারতে থাকাকালীন রাস্তায় নেমে এসে বিক্ষোভ দেখাতে দিল্লিবাসীকে ইন্ধন জোগান উমর৷ যাতে সংখ্যালঘুদের ভআরতে কোণঠাসা করা হচ্ছে, এই বার্তা আন্তর্জাতিক মহল জানতে পারে৷

Published by: Arindam Gupta
First published: September 14, 2020, 10:32 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर