• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • FOR INFRA PROJECTS IN WEST BENGAL MAMATA BENERJEE MEETS NITIN GADKARI IN DELHI SB

Mamata Meets Nitin Gadkari: বাংলায় ইলেকট্রিক বাস-অটোর কারখানা? গড়কড়িকে 'সুবিধা' বোঝালেন মমতা!

'ফলপ্রসূ' বৈঠক

Mamata Meets Nitin Gadkari: দিল্লি সফরের শেষ দিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নীতিন গড়কড়ির দরবারে হাজির বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: দিল্লি সফরের চতুর্থ দিনেও চরম ব্যস্ত বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। একের পর এক বিরোধী নেতার সঙ্গে বৈঠক যেমন তিনি সেরেছেন, তেমনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গেও বৈঠক করেছেন। আর এবারের দিল্লি সফরের শেষ দিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নীতিন গড়কড়ির দরবারে হাজির বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। আর প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকের মতোই কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহণ মন্ত্রী নীতিন গড়কড়ির সঙ্গে বৈঠকেও রাজ্যের দাবিদাওয়া তুলে ধরেছেন তিনি। রাজ্যের জন্য রাস্তা সম্প্রসারণ থেকে শুরু করে নতুন ফ্লাইওভারের দাবি করেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী।

২০২৪-এর লোকসভা ভোটের আগে এবারের দিল্লি সফরে বিরোধী জোটের সলতে পাকানোর মধ্যেই রাজ্যের আর্জি নিয়ে সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিনের বৈঠকেও নীতিন গড়করির কাছে কলকাতার জন্য বেশ কয়েকটি উড়ালপুল, রাজ্যে নতুন একাধিক সড়ক নির্মাণের আর্জি জানিয়েছেন তিনি। তাৎপর্যপূর্ণভাবে, এদিনের মমতা -নীতিন বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহণ মন্ত্রকের আধিকারিকরা।

নীতিন গড়করির সঙ্গে মমতার সম্পর্ক বরাবরই ভালো। সেই সম্পর্কের ভিত্তিতেই রাজ্যের জন্য নানা প্রকল্পের দাবি আরও জোরের সঙ্গে করতে পেরেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিনের বৈঠকে তাই মমতা দাবি করেছেন, গঙ্গাসাগরের উপর ব্রিজের, শিলিগুড়ি সেবক, শিলিগুড়ি রংপো, দিঘা বারাসাত, বারাসাত বনগাঁ, নলহাটি মুরারই রাস্তার সংস্কারের। বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন রাজ্য়ের পদস্থ প্রশাসনিক আধিকারিকরা। বৈঠক থেকে বেরিয়ে মমতা বলেন, 'রাজ্য়ের সড়ক পরিবহণে উন্নতি নিয়ে কথা হয়েছে। কলকাতায় বাড়তি কিছু উড়ালপুলের দাবি জানিয়েছি'।

এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, প্রত্যেক বছর গঙ্গাসাগর মেলায় প্রায় কুড়ি থেকে ত্রিশ লক্ষ মানুষ যান। সেই কারণে ব্রিজের অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি। এর পাশাপাশি বারাসাত থেকে বনগাঁ পর্যন্ত রাস্তা চেয়েছেন তিনি। ইন্দো-বাংলাদেশ সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হবে তাতে। এর পাশাপাশি মমতা বাংলায় কারখানা তৈরি করার ব্যাপারে অনুরোধ জানিয়েছেন যাতে সেখানে ইলেক্ট্রিক বাস এবং অটো তৈরি হতে পারে। একইসঙ্গে মমতা জানিয়েছেন, একাধিক ঘূর্ণিঝড় আসার ফলে রাজ্যের বড় বড় অনেক রাস্তা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সেই কারণে নতুন করে সেই রাস্তা সম্প্রসারণ জরুরী এবং তার ভিত্তিতেই এদিন তিনি এই ব্যাপারে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করেছেন।

নীতিন গড়কড়ির সঙ্গে বৈঠক সেরে বিকেল চারটে থেকে মুখ্যমন্ত্রী বৈঠকে বসেছেন আরেক বিজেপি বিরোধী দল ডিএমকে-র সাংসদ কানিমোঝির সঙ্গে। শেষে বিকেল পাঁচটায় তিনি দেখা করবেন জাভেদ আখতার ও শাবানা আজমির সঙ্গে। রাজধানীতে পা রাখা ইস্তক বৈঠকের পর বৈঠক করে গিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী। আর সেই বৈঠকগুলির অধিকাংশই বিরোধী জোটের সলতে পাকানো। বিরোধী শিবিরকে এককাট্টা করতে এখন থেকেই পুরোদমে ময়দানে 'দিদি'। দিল্লিতে তারই ওয়ার্ম আপ করে রাখলেন বাংলার নেত্রী।

Published by:Suman Biswas
First published: