corona virus btn
corona virus btn
Loading

পণবন্দি কাশ্মীরিদের বাঁচাতে গিয়ে শহিদ কর্নেল সহ পাঁচ, শ্রদ্ধাজ্ঞাপন রাজনাথের

পণবন্দি কাশ্মীরিদের বাঁচাতে গিয়ে শহিদ কর্নেল সহ পাঁচ, শ্রদ্ধাজ্ঞাপন রাজনাথের
শহিদ কলোনেল আশুতোষ শর্মা৷ PHOTO- ANI/TWITTER

জঙ্গিদের ঘায়েল করতে বাড়ির ভিতরে ঢুকতে যান কর্নেল সহ বাকিরা৷ তখনই আচমকা তাঁদের উপর প্রবল গুলিবর্ষণ শুরু করে জঙ্গিরা৷

  • Share this:

#কাশ্মীর: গ্রামে ঢুকে একটি পরিবারকে পণবন্দি করে রেখেছিল দুই জঙ্গি৷ প্রাণের ঝুঁকি থাকলেও পিছিয়ে আসেননি নিরাপত্তা বাহিনীর জওয়ানরা৷ পণবন্দি ওই গ্রামবাসীদের বাঁচাতে গিয়েই শনিবার কাশ্মীরের হান্ডওয়ারায় শহিদ হয়েছেন এক কর্নেল সহ ভারতীয় সেনার চারজন৷ পাশাপাশি শহিদ হন জম্মু কাশ্মীর পুলিশের এক সাব ইন্সপেক্টরও৷ গোটা ঘটনা শোকপ্রকাশ করে শহিদদের সাহসিকতাকে কুর্নিশ জানিয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং৷ নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে দুই জঙ্গিরও মৃত্যু হয়৷

রাজওয়ার জঙ্গলের কাছে ছাঙ্গিমুল্লার একটি বাড়িতে দুই জঙ্গি একটি পরিবারের কয়েকজন সদস্যকে পণবন্দি করেছে বলে খবর আসে৷ সেই খবরের ভিত্তিতেই সেনা এবং পুলিশ যৌথ অভিযানে নামে৷ কর্নেল আশুতোষ শর্মার নেতৃত্বে ২১ নম্বর রাষ্ট্রীয় ব্যাটেলিয়নের একটি দল এবং পুলিশকর্মীরা ওই এলাকা ঘিরে ফেলেন৷ তখনই পণবন্দিদের উদ্ধারে এগিয়ে যান কয়েকজন সেনা জওয়ান এবং পুলিশকর্মী৷ নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কর্নেল আশুতোষ শর্মার নেতৃত্বে মেজর অনুজ সুদ, নায়েক রাজেশ কুমার, ল্যান্স নায়েক দীনেশ সিং এবং পুলিশের সাব ইন্সপেক্টর শাকিল কাজি জঙ্গিদের একেবারে সামনে পৌঁছে যান৷

পণবন্দিদের বের করে আনতে পারলেও জঙ্গিদের গুলিতে প্রাণ যায় তাঁদের প্রত্যেকেরই৷

কর্নেল শর্মা এর আগে দু' বার কাশ্মীরে সাহসিকতার জন্য পুরস্কৃত হয়েছিলেন৷ তিনি এবং মেজর সুদ ও সাব ইন্সপেক্টর কাজি ভেবেছিলেন জঙ্গিরা হয়তো বাড়ির ভিতরে গোয়াল ঘরে আশ্রয় নিয়েছেন৷ জঙ্গিদের ঘায়েল করতে বাড়ির ভিতরে ঢুকতে যান তাঁরা৷ তখনই আচমকা তাঁদের উপর প্রবল গুলিবর্ষণ শুরু করে জঙ্গিরা৷

এর পর বাড়ির বাইরে থাকা বাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় কলোনেল শর্মার নেতৃত্ব ভিতরে যাওয়া দলটির৷ বেশ কয়েক ঘণ্টা পর বাড়ির ভিতরে ঢুকে বাহিনীর অন্য সদস্যরা কর্নেল, মেজর সহ পাঁচজনের দেহ উদ্ধার করে৷

শহিদ সেনা জওয়ান এবং পুলিশকর্মীর বলিদানকে সম্মান জানিয়ে টুইটারে প্রতিরক্ষা মন্ত্রী লেখেন, 'কাশ্মীরের হান্ডওয়ারায় সেনাকর্মী এবং নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের মৃত্যু খুবই যন্ত্রণাদায়ক৷ সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে তাঁদের যে সাহসিকতা তাঁরা দেখিয়েছেন এবং দেশের সেবায় চূড়ান্ত বলিদান করেছেন, তা উদাহরণ হয়ে থাকবে৷ আমরা তাঁদের আত্মত্যাগকে কোনওদিন ভুলব না৷'

তিনি আরও লেখেন, 'লড়াইয়ের ময়দানে যে সেনা জওয়ান এবং নিরাপত্তা কর্মীরা প্রাণ দিয়েছেন, তাঁদের উদ্দেশে আমি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করছি৷ যাঁরা প্রাণ হারিয়েছেন, তাঁদের পরিবারের যন্ত্রণা আমার হৃদয়কেও ছুঁয়ে যাচ্ছে৷ বীর শহিদদের পরিবারের সঙ্গে গোটা দেশ রয়েছে৷'

এরই মধ্যে হান্ডওয়ারার এই জঙ্গি হামলার দায় নিয়ে 'দ্য রেজিস্টেন্স ফ্রন্ট' নামে নতুন একটি জঙ্গি সংগঠন কাশ্মীরের বুকে আত্মপ্রকাশ করেছে৷ তারা নিজেদের লস্কর-ই-তৈবার সহযোগী বলেই দাবি করেছে৷ যা নিরাপত্তাবাহিনীর চিন্তা আরও বাড়াচ্ছে৷

 
First published: May 3, 2020, 3:35 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर