corona virus btn
corona virus btn
Loading

বয়স হয়েছিল ১০৩, প্রয়াত দেশের প্রথম মহিলা হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ

বয়স হয়েছিল ১০৩, প্রয়াত দেশের প্রথম মহিলা হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ
এস আই পদ্মাবতী৷

১৯৬৭ সালে পদ্ম ভূষণ পুরস্কারে পান এস আই পদ্মাবতী৷ ১৯৯২ সালে পদ্ম বিভূষণ পুরস্কারে সম্মানিত করা হয় তাঁকে৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: দেশের প্রথম মহিলা হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ছিলেন তিনি৷ শেষ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হল শিবরামকৃষ্ণ আইয়ার পদ্মাবতীর৷ বয়স হয়েছিল ১০৩৷

নিজের হাতে প্রতিষ্ঠিত ন্যাশনাল হার্ট ইনস্টিটিউটে শেষ ১১ দিন ধরে চিকিৎসা চলছিল শতায়ু এই চিকিৎসকের৷ সেখানেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি৷ চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, দু'টি ফুসফুসে প্রবল সংক্রমণের কারণেই মৃত্যু হয়েছে এসআই পদ্মাবতীর৷ পশ্চিম দিল্লির পাঞ্জাবি বাগ শ্মশানে তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়৷ অসুস্থ হওয়ার আগে পর্যন্ত কিছুদিন আগেও সুস্থ-সবল জীবনযাপনই করছিলেন প্রবীণ এই চিকিৎসক৷

২০১৫ সাল পর্যন্ত ন্যাশনাল হার্ট ইনস্টিটিউটে সপ্তাহে পাঁচদিন দৈনিক ১২ ঘণ্টা কাজ করতেন এই কিংবদন্তি চিকিৎসক৷ ১৯৮১ সালে নিজেই এই চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানটি তৈরি করেছিলেন পদ্মাবতী৷

১৯৬৭ সালে মৌলানা আজাদ মেডিক্যাল কলেজের ডিরেক্টর- প্রিন্সিপাল হিসেবে দায়িত্ব নেন তিনি৷ এর পাশাপাশি আরউইন এবং জি বি পন্থ হাসপাতালের সঙ্গেও যুক্ত হন এই চিকিৎসক৷ সেখানেই হৃদরোগের চিকিৎসার জন্য ভারতের প্রথম ডিএম কোর্স চালু করেন তিনি৷ এর পাশাপাশি দেশের প্রথম করোনারি কেয়ার ইউনিট এবং করোনারি কেয়ার ভ্যানও চালু করেন তিনি৷ ১৯৬২ সালে অল ইন্ডিয়া হার্ট ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠা করেন পদ্মাবতী৷

১৯৬৭ সালে পদ্ম ভূষণ পুরস্কার পান এস আই পদ্মাবতী৷ ১৯৯২ সালে পদ্ম বিভূষণ পুরস্কারে সম্মানিত করা হয় তাঁকে৷ কিংবদন্তি এই চিকিৎসকের জন্ম হয়েছিল মায়ানমারে৷ কিন্তু দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জাপান মায়ানমারকে আক্রমণ করায় পালিয়ে ভারতে চলে আসেন পদ্মাবতী৷ এখানেই দেশের প্রথম হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করেন তিনি৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: August 31, 2020, 10:29 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर