কৃষক আন্দোলন: গভীর ষড়যন্ত্রের আভাস এ খেলায়

কৃষক আন্দোলন: গভীর ষড়যন্ত্রের আভাস এ খেলায়
Farmers Protests Impasse Smacks of Deeper Conspiracy at Play

নয়া আইনগুলির একক ভাবে একটিই লক্ষ্য৷ ক্ষুদ্র কৃষকদের মান্ডি ও ফড়িয়াদের হাত থেকে মুক্তি দেওয়া৷ যারা কয়েক দশক ধরে কৃষকদেরকে জমি হাইজ্যাক করে এবং তাঁদের শোষণ করছে৷ এর ফলেই কৃষকরা বঞ্চনার শিকার হচ্ছেন৷ সেই হতাশা থেকেই ঘটছে আত্মহত্যার মতো ঘটনা৷

  • Share this:

    একাধিক সার্ভে থেকে এটা স্পষ্ট যে, দেশ জুড়ে বেশিরভাগ কৃষক সংগঠন নতুন কৃষি আইনগুলির প্রশংসা করেছে৷ নয়া আইনগুলির একক ভাবে একটিই লক্ষ্য৷ ক্ষুদ্র কৃষকদের মান্ডি ও ফড়িয়াদের হাত থেকে মুক্তি দেওয়া৷ যারা কয়েক দশক ধরে কৃষকদেরকে জমি হাইজ্যাক করে এবং তাঁদের শোষণ করছে৷ এর ফলেই কৃষকরা বঞ্চনার শিকার হচ্ছেন৷ সেই হতাশা থেকেই ঘটছে আত্মহত্যার মতো ঘটনা৷ নয়া কৃষি আইন দেশকে এক নতুন কৃষি ব্যবস্থার পথ দেখাবে৷

    দুঃখের বিষয় হচ্ছে, চিন-সহ বিদেশি সংস্থার সঙ্গে সরকার জোট বেঁধেছে৷ দীর্ঘদিনের এই বিক্ষোভে চলাকালীন কমিউনিস্ট থেকে শুরু করে নিজের আখের গোছানো সমাজকর্মী এবং দেশীয় ব্যবসায়িক সংস্থাগুলিকে বিভক্ত করতে পারে। দেখতে হবে কৃষকদের ভিতরে আগুনটা জ্বালানোর জন্য চিনা স্বার্থ কত'টা জড়িয়ে আছে৷

    এটা জানতে কারোর বাকি নেই যে, মহামারী পরবর্তী সময় বিশ্বজুড়ে চিনা 'দস্যু'রা সুরক্ষা স্ক্যানারের নিচে এসেছে৷ তারা ভারত, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, ব্রিটেন, অস্ট্রেলিয়া এবং জাপানের মতো উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশগুলির মধ্যে চিনা সরঞ্জাম বিক্রি এবং বিনিয়োগের ক্ষেত্রে হস্তক্ষেপ করতে চাইছে, চিনার ফাইভ-জি সরঞ্জাম ও প্রযুক্তি সরবরাহ তার মধ্যে অন্যতম৷


    ভারতের বাজারে চিনা অ্যাপ্লিকেশন এবং বিনিয়োগ নিষিদ্ধ করার ক্ষেত্রে সরকার অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছে৷ এর ফলে চৈনিক ব্যবসা ও সম্ভাবনাগুলি বিরাট এক ধাক্কা খেয়েছে৷ ভারত অনান্য দেশের সাহায্য নিয়েও চিনকে কোনঠাসা করার চেষ্টা করছে৷ খুঁটিয়ে দেখলে দেখা যাবে কৃষকদের সঙ্গে চিনা এবং আন্তঃদেশীয় লিঙ্কগুলি সরকারের যুগান্তকারী সংস্কারগুলি ফিরিয়ে আনার জন্য তাদের নির্দেশে ম্যাক্রো এবং মাইক্রো স্তরের যান্ত্রিক পদক্ষেপ ফেলেছে। চিনের মূলধারার অংশীদার, কৃষির জনসংখ্যা এবং বিভাগ ও বিরোধীতার বিরুদ্ধে মতবিরোধ সৃষ্টি করে চিনের সঙ্গে বহিরাগত বাহিনী কর্তৃক অব্যাহত উগ্র প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখার যথাযথ প্রাক্কলনকে নিমন্ত্রণ করার চেষ্টা চলছে।মহামারীর পরবর্তী সময় ভারতের প্রযুক্তি এবং দক্ষতা বৃদ্ধি বিশ্বজুড়ে স্পষ্ট বার্তা দিয়েছে৷ ভারতীয় শিল্পের বিকাশ ঘটেছে৷ ভারতে ফাইভজি বিপ্লবকে বিচ্ছিন্ন করার একটি সুনির্দিষ্ট উদ্দেশ্য নিয়ে চিন ভারতীয় শিল্পের অপপ্রচারও করেছে। গেম-প্ল্যানটি স্পষ্টতই মনে করছে জটিল সামাজিক বিরোধী শক্তি এবং তথাকথিত মতাদর্শিক বিরোধী দলকে একই কৃষকদের কয়েক দশক ধরে সহানুভূতি এবং যত্নের ছাপ ছাড়াই একীভূত করে দেশের সামাজিক অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক কাঠামোকে দুর্বল করার জন্য বিভিন্ন বিকল্পকে অন্বেষণ করেছে। নতুন কৃষিনির্ভর আইন গঠনের শুভ অভিপ্রায়কে পর্যালোচনা করছে এবং জনসাধারণের কাছে তা তুলে ধরেছে৷

    লেখক সাইবার সিকিউরিটি অ্যান্ড কাউন্টার টেররিজমের (পশ্চিম এশিয়া ও মধ্য প্রাচ্য) পরামর্শদাতা, মতামত তাঁর একান্ত ব্যক্তিগত

    Published by:Subhapam Saha
    First published: