corona virus btn
corona virus btn
Loading

'হিংসামূলক পোস্ট'! বিরোধী-চাপে বিজেপি বিধায়ককে নিষিদ্ধ করে দিল ফেসবুক

'হিংসামূলক পোস্ট'! বিরোধী-চাপে বিজেপি বিধায়ককে নিষিদ্ধ করে দিল ফেসবুক
বিজেপি বিধায়ক টি রাজা সিং

ফেসবুক জানিয়েছে, টি রাজা সিং নানা বিদ্বেষমূলক মন্তব্য করে হিংসা ও বিদ্বেষ ছড়িয়েছেন, যা সংস্থার নীতির বিরুদ্ধে৷ তাই বিদ্বেষমূলক মন্তব্যের জেরেই তাঁকে ব্যান করা হল৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: নানা বিদ্বেষমূলক মন্তব্য ছড়ানোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেওয়ার অভিযোগে গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই চাপে ফেসবুক৷ ইতিমধ্যেই বিরোধী দলগুলি অভিযোগ করেছে, বিজেপি-র পক্ষপাতিত্ব করছে ফেসবুক ইন্ডিয়া৷ এ বার বিদ্বেষমূলক মন্তব্যের প্রেক্ষিতে বিজেপি বিধায়কের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করল ফেসবুক৷ বিজেপি বিধায়ক টি রাজা সিংকে নিষিদ্ধ করল ফেসবুক৷ একই সঙ্গে ওই বিজেপি বিধায়ককে নিষিদ্ধ করা হয়েছে ইনস্টাগ্রামেও৷

ফেসবুক জানিয়েছে, টি রাজা সিং নানা বিদ্বেষমূলক মন্তব্য করে হিংসা ও বিদ্বেষ ছড়িয়েছেন, যা সংস্থার নীতির বিরুদ্ধে৷ তাই বিদ্বেষমূলক মন্তব্যের জেরেই তাঁকে ব্যান করা হল৷ ফেসবুক-এর কন্টেন্ট নীতি লঙ্ঘন করার জন্য টি রাজা সিংয়ের অ্যাকাউন্ট ডিলিট করা হল৷

আরও পড়ুন: বিজেপি-কংগ্রেসের প্রশ্নবাণে বেকায়দায় ফেসবুক! দেড়শোর বেশি প্রশ্নের উত্তরই নেই

ভারতে প্রায় ৪ কোটি ব্যবহারকারী রয়েছে ফেসবুকের৷ সম্প্রতি ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে প্রকাশিত একটি খবরের পর থেকেই তুমুল বিতর্কের মুখে পড়েছে ফেসবুক৷ ওই খবরে বলা হয়, ভারতে শাসকদল বিজেপি-র পক্ষে কাজ করছে ফেসবুক৷ বিজেপি বিধায়ক রাজা সিংয়ের হিংসামূলক পোস্টের বিরুদ্ধে ফেসবুক কোনও পদক্ষেপ করেনি৷ তারপর থেকেই ফেসবুক-বিজেপি আঁতাঁতের অভিযোগ তুলে সরব হয় বিরোধী দলগুলি৷

তথ্যপ্রযুক্ত বিষয়ক সংসদীয় স্ট্যান্ডিং কমিটি সমন পাঠায় ফেসবুক ইন্ডিয়ার কর্তাদের৷ সংসদের স্ট্যান্ডিং কমিটি বৈঠকে বিজেপি-কংগ্রেসের একের পর এক প্রশ্নে বেকায়দায় পড়েন ফেসবুক ইন্ডিয়ার ডিরেক্টর অজিত মোহন৷ ১৫০টি প্রশ্নের কোনও উত্তরই দিতে পারেননি৷

কংগ্রেস নেতা শশী থারুর সংসদের ওই স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান৷ বুধবারের ওই বৈঠক চলে প্রায় ২ ঘণ্টা ২০ মিনিট৷ বিজেপি ও কংগ্রেস-- উভয় পক্ষই ফেসবুক কর্তার সামনে একে অপরের বিদ্বেষমূলক মন্তব্যের প্রসঙ্গ তোলে৷ বিরোধীরা যখন তেলঙ্গানার বিধায়ক রাজা সিং ও পশ্চিমবঙ্গে অমিত শাহের বিদ্বেষমূলক মন্তব্যের প্রসঙ্গে তোলেন, তখন বিজেপি-ও সনিয়া গান্ধির 'আর ইয়া পার কি লড়াই' ও সিএএ বিরোধিতায় বাম নেতা কানহাইয়া কুমারের উস্কানিমূলক মন্তব্যের প্রসঙ্গে টেনে আনে৷

সাংসদরা ফেসবুক-কে জিগ্গেস করেন, বিদ্বেষমূলক মন্তব্যের বিরুদ্ধে ফেসবুক কী ধরনের বা কত বার পদক্ষেপ করেছে৷ সূত্রের খবর, ফেসবুক ইন্ডিয়ার ডিরেক্টর জানান, তাদের কাছে কোনও নির্দিষ্ট নম্বর নেই বলার মতো৷ তবে বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই অভিযোগ পাওয়ার পরে পদক্ষেপ করা হয়েছে৷ ফেসবুক-এর কর্মীদের ব্যক্তিগত রাজনৈতিক মতাদর্শের প্রতিফলন নিয়েও উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয়৷ বিজেপি সাংসদরা দাবি করেন, ফেসবুকের উচ্চপদস্থ কর্মীরা বাম বা কংগ্রেসের মতাদর্শকে পক্ষপাতিত্বের সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় গুরুত্ব দেওয়ার চেষ্টা করছে৷ এই অভিযোগের জবাব দিতে পারেনি ফেসবুক৷

Published by: Arindam Gupta
First published: September 3, 2020, 12:29 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर