‘কর্মসংস্থান ও গরিবি হটাও এটাই হবে কংগ্রেসের ট্রাম্প কার্ড’, সাক্ষাৎকারে জানালেন কংগ্রেসের ডেটা বিশেষজ্ঞ

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Apr 04, 2019 11:50 PM IST
‘কর্মসংস্থান ও গরিবি হটাও এটাই হবে কংগ্রেসের ট্রাম্প কার্ড’, সাক্ষাৎকারে জানালেন কংগ্রেসের ডেটা বিশেষজ্ঞ
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Apr 04, 2019 11:50 PM IST

#নয়াদিল্লি: লোকসভা ভোটে কংগ্রেসের ইস্তেহারে যে যে প্রতিশ্রুতিগুলিতে জোর দেওয়া হয়েছে, তার মধ্যে অন্যতম হল 'ন্যায়'৷ ন্যায় প্রকল্পের পুরো কথাটি হল, ন্যূনতম আয় যোজনা৷ এই যোজনায় দেশের হতদরিদ্র ৫ কোটি পরিবারকে বছরে ৭২ হাজার টাকা দেওয়া হবে৷ অর্থাত্‍‌ মাসে ৬ হাজার টাকা করে ৷ এই টাকা মহিলাদের অ্যাকাউন্টে সরাসরি ঢুকে যাবে ৷ কীভাবে এই নির্দিষ্ট সংখ্যক টাকার পরিমাণটি নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছে কংগ্রেস ? এই প্রসঙ্গে News18-কে এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকার দিলেন কংগ্রেসের ডেটা বিশেষজ্ঞ বিভাগের প্রধান প্রবীণ চক্রবর্তী ৷ তিনি বলেন, ‘একটি নির্দিষ্ট পদ্ধতিতে পুরো বিষয়টা হিসেব নিকেশ করা হয়েছে ৷ একবিংশ শতাব্দীতে একটি পরিবারকে বেঁচে থাকতে হলে কি কি বিষয় অত্যন্ত প্রয়োজনীয় ৷ সেই বিষয়টি মাথায় রেখেই আমরা বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কথা বলি ৷ এরপরই প্রতিটি পরিবারকে মাসে ৬ হাজার টাকা করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় ৷’

উত্তরপ্রদেশে সক্রিয় রাজনীতিতে প্রবেশের পর থেকেই রাজ্যে ভোট প্রচারে রীতিমত ঢেউ তুলেছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধি বঢ়রা ৷ তাঁকে কংগ্রেসের তরফে উত্তরপ্রদেশের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত করা হয়েছে ৷ রাজনৈতিক মহলের মতে, প্রিয়াঙ্কাকে দায়িত্ব দিয়ে বিজেপি-র অন্যতম মুখ তথা উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে সরাসরি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছে কংগ্রেস ৷ শুধু তাই-ই নয় ৷ রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে একাধিকজন কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন গত এক মাসে ৷ প্রিয়াঙ্কা গান্ধির জন্যই এটি সম্ভব হয়েছে বলে দাবি করলেন প্রবীণ চক্রবর্তী ৷

কংগ্রেসের বিভিন্ন ডেটা খতিয়ে দেখা গিয়েছে, শুধু ওয়ানাড কিংবা আমেঠি-ই নয় ৷ গোটা দক্ষিণ ভারতেই ভীষণভাবে জনপ্রিয় রাহুল গান্ধি ৷ এমনটাই দাবি প্রবীণের ৷ তিনি আরও জানিয়েছেন, ‘তথ্য বিশ্লেষণ করতে গিয়ে দেখা গিয়েছে, কেরল, কর্ণাটক, তামিলনাড়ুর যেকোনও আসন থেকেই যদি রাহুল গান্ধি প্রার্থী হন ৷ তাহলে সেই আসন থেকে জয়ী হবেন ই রাহুল গান্ধি ৷ তবে, ওয়ানাড লোকসভা কেন্দ্র এই কারণেই বেছে নেওয়া হয়েছে ৷ কারণ ২০০৯ সাল থেকে এই আসনে শুরু হয় লোকসভা নির্বাচনী লড়াই ৷ কংগ্রেসের অন্যতম শক্তিশালী ঘাঁটি এই কেন্দ্রটি ৷ ২০০৯ এবং ২০১৪ সালে কংগ্রেস নেতা এম. আই. শানাওয়াজ এই আসন থেকে বিরোধীদের হারিয়ে জয় ছিনিয়ে নিয়েছিলেন ৷ কিন্তু ২০১৮ সালে মৃত্যু হয় শানাওয়াজের ৷ যার জেরেই আসন্ন নির্বাচনে এই কেন্দ্রটি বেছে নেওয়া হয় রাহুলের জন্য ৷’

একইসঙ্গে প্রবীণ বলেন, ‘আসন্ন নির্বাচনে ভোটাররা স্থানীয় ইস্যুগুলি মাথায় রেখেই ভোট দেবেন ৷ শুধু তাই নয় ৷ কর্মসংস্থানের অভাবটিও ভীষণভাবে ভোটকে প্রভাবিত করবে ৷’

পাশাপাশি, বালাকোট এয়ারস্ট্রাইক কি নির্বাচনে কোনওরকম প্রভাব ফেলবে ? সেই প্রশ্নটিও ছুঁড়ে দেওয়া হয় প্রবীণের উদ্দেশে ৷ প্রবীণ জানান, ‘আমরা দেশের প্রায় ৯০ শতাংশ মানুষের উপর সমীক্ষা চালিয়ে দেখেছি ৷ বালাকোট এয়ারস্ট্রাইক নিয়ে তারা খুশি নিশ্চয়ই ৷ কিন্তু এই এয়ারস্ট্রাইক নির্বাচনের ভোটবাক্সে কোনওরকম প্রভাব ফেলবে না ৷ যারা ২০১৪-তে মোদিকে ভোট দেননি ৷ এই এয়ারস্ট্রাইকের জন্য কি ভাবছেন তারা আসন্ন নির্বাচনে ভোট দেবে গেরুয়া শিবিরকে ? একদম-ই নয় ৷ নি:সন্দেহে এই এয়ারস্ট্রাইক প্রশংসনীয় ৷ কিন্তু এটি নির্বাচনের বিষয় কখনই হতে পারে না ৷’

First published: 11:29:47 PM Apr 04, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर