শৌচাগারে গিয়ে ছবি তুলুন, নইলে কাটা যাবে বেতন

শৌচাগারে গিয়ে ছবি তুলুন, নইলে কাটা যাবে বেতন

শৌচাগারে গিয়ে ছবি তুলতে হবে ৷ সেই ছবি পাঠাতে হবে সরকারি দফতরে ৷ তবেই মাসের পুরো বেতন পাওয়া যাবে ৷ নইলে কোপ পড়বে বেতনে ৷ এমনই নিদান দেওয়া হল উত্তরপ্রদেশের সীতাপুরে ৷

  • Share this:

#উত্তরপ্রদেশ: শৌচাগারে গিয়ে ছবি তুলতে হবে ৷ সেই ছবি পাঠাতে হবে সরকারি দফতরে ৷ তবেই মাসের পুরো বেতন পাওয়া যাবে ৷ নইলে কোপ পড়বে বেতনে ৷ এমনই নিদান দেওয়া হল উত্তরপ্রদেশের সীতাপুরে ৷

সম্প্রতি সীতাপুরের সরকারি স্কুলের প্রিন্সিপালের একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে নেটদুনিয়ায় ৷ দেখা যাচ্ছে সাদা হাফ শার্ট আর কালো প্যান্ট পরে শৌচাগারে কাঠের একটি চুলের উপর বসে রয়েছেন মিস্টার প্রসাদ ৷ সেই ছবির নীচে লেখা তাঁর পরিচয় ৷ নাম, আধার নম্বর, ফোন নম্বরও রয়েছে সেই ‘পরিচয়পত্রে’ ৷

আরও পড়ুন: গণপ্রহার থেকে বাঁচাতে বুকের মধ্যে টেনে নিলেন মুসলিম যুবককে, শিখ পুলিশ অফিসারকে কুর্নিশ জানাল সোশ্যাল মিডিয়া

শুধু মাত্র ওই শিক্ষকই নন ৷ শৌচাগারের ছবি-সহ এই রকম পরিচয়পত্র এখন জমা দিতে হবে সীতাপুরের সকলকেই ৷ এখানকার জেলা শাসক শীতল বর্মার নির্দেশ এমনই ৷ প্রধানমন্ত্রীর স্বচ্ছ ভারত অভিযানে ২০১৮-র ২ অক্টোবরের মধ্যে দেশের সমস্ত পরিবারে পাকা শৌচাগার থাকার কথা ৷ সেই নির্ধারিত সময় শেষ হতে হাতে আর মাত্র কয়েকটা মাস ৷ তাই শেষ পর্বে যাতে কোথাও গলদ না থেকে যায় সেই কারণেই এমন আজব নির্দেশ দিয়ে বসেছেন ওই জেলা শাসক ৷ শুধু তাই নয়, শীতলের নির্দেশ, যদি ২৭ মে-র মধ্যে শৌচাগারের ছবি-সহ সকলে এই পরিচয়পত্র না জমা দেন তাহলে কোপ পড়বে মাস মাহিনাতেও ৷

আরও পড়ুন:আজই শেখ হাসিনাকে সাম্মানিক ডিলিটে সম্মানিত করবে কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়

এই নির্দেশের পরেই বাড়ির শৌচাগারে বসে ওই ছবি তুলে পাঠিয়ে দেন প্রসাদ ৷ শীতলের এই উদ্দেশ্যকে স্বাগতও জানিয়েছেন তিনি ৷ কিন্তু শৌচাগারের ছবি পাঠানোয় আপত্তি তুলেছেন স্থানীয়রা ৷

First published: 01:39:12 PM May 26, 2018
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर