Bride Collapses on Marriage: সাতপাকের সময় হঠাৎই মৃত্যু কনের! পাত্রীর ছোট বোনকে বিয়ে করল পাত্র

Photo Source: Twitter

মৃত কনের কাকা জানান, ‘‘ এই সিদ্ধান্ত নেওয়াটা দুই পরিবারের পক্ষেই অনেক কঠিন ছিল ৷ একদিকে এক মেয়ের বিয়ে হচ্ছে ৷ পাশের ঘরে আরেক মেয়ের মৃতদেহ পড়ে রয়েছে ৷ এমন ঘটনার সাক্ষী হয়তো এর আগে কেউই হননি ৷’’

  • Share this:

    ইটাওয়া, উত্তর প্রদেশ: কোভিড আবহেও বিয়ে বাড়ির অনুষ্ঠানের কোনও কমতি নেই ৷ সারা দেশজুড়েই ৫০ জন বা তার চেয়েও কম অতিথিকে নিয়ে বিয়ের অনুষ্ঠান আয়োজন হচ্ছে এই লকডাউনের মধ্যেও ৷ তবে সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশের ইটাওয়ায় একটি বিয়ে বাড়িতে মর্মান্তিক ঘটনারই সাক্ষী থাকলেন বর ও কনে পক্ষ এবং নিমন্ত্রিত অন্যান্য আত্মীয়স্বজনরা ৷

    সাতপাক নেওয়ার সময় হঠাৎই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় কনের ৷ ডাক্তার এসেই তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন ৷ সেই সময়, দুই পরিবার মিলেই ঠিক করেন, পাত্রীর ছোট বোনের সঙ্গেই বিয়ে হবে পাত্রের ৷ এরপর সেখানেই মৃত পাত্রীর বোনকে বিয়ে করেন বর ৷ ঘটনাটি ইটাওয়ার সামাসপুরের বলে জানা গিয়েছে ৷

    প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, মালাবদল এবং বিয়ের অন্যান্য পর্ব শেষে সাতপাক নেওয়ার জন্য যখন বর এবং কনে তৈরি হচ্ছেন ৷ ঠিক সেই সময়েই পাত্রী সুরভি পাত্র মঞ্জেশ কুমারের পাশে জ্ঞান হারিয়ে লুটিয়ে পড়েন ৷ এই ঘটনায় স্বভাবতই হইচই পড়ে যায় বিয়ে বাড়িতে ৷ এরপর ডাক্তার এসে সুরভিকে মৃত বলে ঘোষণা করেন ৷ মৃত্যুর কারণ হিসেবে ম্যাসিভ হার্ট অ্যাটাকের কথাই উল্লেখ করেছেন চিকিৎসক ৷ যা জানার পরেই কান্নার রোল ওঠে বিয়ে বাড়িতে ৷ এরপর দু’পক্ষের সম্মতিতেই সুরভির ছোট বোন নিশার সঙ্গে বিয়ে হয় মঞ্জেশের ৷ বিয়ের অনুষ্ঠান চলাকালীন সুরভির মৃতদেহ অন্য ঘরে শায়িত রাখা হয় ৷ বিয়ের অনুষ্ঠান শেষ হওয়ার পর সুরভির শেষকৃত্য সম্পন্ন হয় ৷ মৃত কনের কাকা জানান, ‘‘ এই সিদ্ধান্ত নেওয়াটা দুই পরিবারের পক্ষেই অনেক কঠিন ছিল ৷ একদিকে এক মেয়ের বিয়ে হচ্ছে ৷ পাশের ঘরে আরেক মেয়ের মৃতদেহ পড়ে রয়েছে ৷ এমন ঘটনার সাক্ষী হয়তো এর আগে কেউই হননি ৷’’

    Published by:Siddhartha Sarkar
    First published: