জরিমানা করায় রাগ, থানা- সিগন্যালের বিদ্যুৎ সংযোগ কেটে বদলা নিলেন সরকারি কর্মী!

জরিমানা করায় রাগ, থানা- সিগন্যালের বিদ্যুৎ সংযোগ কেটে বদলা নিলেন সরকারি কর্মী!
প্রতীকী ছবি৷

ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত বিদ্যুৎ কর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷ তাঁকে জেল হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত৷

  • Share this:
    #হায়দ্রাবাদ: ট্রাফিক আইন ভঙ্গ করার অভিযোগে জরিমানা আদায় করেছিল পুলিশ৷ আর তার বদলা নিতেই একটি ট্রাফিক সিগন্যাল এবং দু' টি থানার বিদ্যুৎ সংযোগ কেটে দিলেন এক ইলেক্ট্রিসিয়ান! এমনই ঘটনা ঘটেছে হায়দ্রাবাদে৷

    টাইমস অফ ইন্ডিয়ার একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জিডিমেটলা ট্রাফিক সিগন্যালে বাইক আরোহী এক কিশোরকে জরিমানা করে পুলিশের এক সাব ইন্সপেক্টর৷ ফোনে সেই ঘটনার কথা এ রমেশ নামে এক ইলেক্ট্রিশিয়ানকে জানায় ওই কিশোর৷ কারণ রমেশই কয়েকটি জিনিস আনার জন্য তাকে পাঠিয়েছিল৷ রমেশ তেলেঙ্গানা স্টেট সাউদার্ন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানিতে চাকরি করেন৷ ওই কিশোর যেখানে কাজ করত, সেখানেই বিদ্যুৎ বিভাগের হয়ে কাজে গিয়েছিলেন রমেশ৷

    খবর পেয়েই রমেশ ঘটনাস্থলে গিয়ে জরিমানা না করার জন্য পুলিশকে অনুরোধ করেন৷ কিন্তু পুলিশ আধিকারিক জানিয়ে দেন, যেহেতু চালান কাটা হয়ে গিয়েছে তা প্রত্যাহার করা সম্ভব নয়৷ এতেই ক্ষুব্ধ হয়ে শাপুরনগর ট্রাফিক সিগন্যালের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন রমেশ৷ ব্যস্ত মোড়ের সিগন্যাল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় যানবাহন নিয়ন্ত্রণে নাকাল হয় পুলিশ৷


    এতেই রাগ মেটেনি রমেশের৷ এর পর জেডিমেটলা থানা এবং ট্রাফিক পুলিশ স্টেশনেরও বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন তিনি৷ সন্ধে সাড়ে ছ'টা নাগাদ একসঙ্গে দুই থানার বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ায় অবাক হয়ে যান পুলিশকর্মীরাও৷

    এর পরেই জরিমানা দেওয়া নিয়ে বিদ্যুৎ দফতরের ওই কর্মীর সঙ্গে পুলিশ আধিকারিকের বিবাদের কথা জানতে পারেন থানার পুলিশকর্মীরা৷ সঙ্গে সঙ্গে বিদ্যুৎ বণ্টন সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয় থানার তরফে৷ এর এক ঘণ্টার মধ্যেই দুই থানায় বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হয়৷ কিন্তু ততক্ষণে গা ঢাকা দিয়েছেন রমেশ নামে ওই বিদ্যুৎকর্মী৷ শেষ পর্যন্ত বৃহস্পতিবার তাঁকে গ্রেফতার করে পুলিশ৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    লেটেস্ট খবর