সমাধান সূত্র অধরা, আন্দোলন চালিয়ে যাবেন কৃষকরা! যাবেন না আদালতেও

সমাধান সূত্র অধরা, আন্দোলন চালিয়ে যাবেন কৃষকরা! যাবেন না আদালতেও

বিজ্ঞান ভবনে কৃষক নেতাদের সঙ্গে সরকারের বৈঠক৷

  • Share this:

    #দিল্লি; শুক্রবারের অষ্টম দফার বৈঠকেও মিলল না কোনও সমাধান সূত্র৷ সরকারকে অনড় কৃষক সংগঠনের নেতারা জানিয়ে দিলেন, নয়া কৃষি আইন প্রত্যাহারের বিকল্প হিসেবে কোনও শর্ত মানতে রাজি নন তাঁরা৷ সেই কারণেই কোনও সিদ্ধান্তে পৌঁছন সম্ভব হয়নি বলে বৈঠক শেষে দাবি করেছেন কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমার৷ আগামী ১৫ জানুয়ারি পরবর্তী দফার বৈঠক ঠিক করা হয়েছে৷ তবে কৃষক নেতা হান্নান মোল্লা জানিয়ে দিয়েছেন, আদালতে যাওয়ার কথা ভাবছেন না কৃষকরা৷ দাবি না মানা হলে অনির্দিষ্টকাল আন্দোলন চালিয়ে যাবেন তাঁরা৷

    তবে কৃষি মন্ত্রী সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে নয়া কৃষি আইনের প্রতি সমর্থন মিলেছে৷ ফলে, নয়া আইন প্রত্যাহারের কোনও প্রশ্নই নেই৷ পাশাপাশি কৃষিমন্ত্রী জানিয়েছেন, নয়া কৃষি আইন নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে চলতে থাকা মামলায় যুক্ত হওয়ার জন্য কৃষক সংগঠনগুলিকে সরকারের তরফে কোনও প্রস্তাব দেওয়া হয়নি৷

    আগামী ১১ জানুয়ারি সুপ্রিম কোর্টে এই মামলার শুনানি রয়েছে৷ নয়া আইনের বৈধতা খতিয়ে দেখে এবং কৃষকদের সঙ্গে জড়িত অন্যান্য বিষয়গুলি নিয়ে মত জানাতে পারে শীর্ষ আদালত৷ সেকথা মাথায় রেখেই আগামী ১৫ জানুয়ারি পরবর্তী আলোচনার দিন নির্ধারণ করা হয়েছে৷

    তবে বৈঠক শেষে কৃষক নেতা যোগিন্দর সিং উগরাহান স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, এই বৈঠকে যেমন সমাধান সূত্র বেরোয়ানি, একই ভাবে পরবর্তী বৈঠকেও জট কাটার সম্ভাবনা কমই৷ কারণ কৃষি আইন প্রত্যাহার ছাড়া অন্য কোনও দাবি মানতে রাজি নন তাঁরা৷ আর এক কৃষক নেতা হান্নান মোল্লা জানিয়ে দিয়েছেন, মৃত্যু না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাবেন কৃষকরা৷ আদালতে যাওয়ার কথাও ভাবছেন না তাঁরা৷ আগামী ১১ জানুয়ারি নিজেদের মধ্যে বৈঠক করে নিজেদের পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক করবেন তাঁরা৷

    জয় কিসান আন্দোলনের নেতা রবিন্দর কউর বৈঠকের শেষে প্রকাশ্যেই কান্নায় ভেঙে পড়েন৷ তিনি বলেন, আইন প্রত্যাহারের দাবিতে চলতে থাকা আন্দোলনে বহু মা তাঁর সন্তানকে হারিয়েছেন৷ অনেক মেয়ে তাঁদের বাবাকে হারিয়েছেন৷ কৃষক নেতাদের অভিযোগ, সরকার নয়া আইনের কয়েকটি ধারা নিয়েই আলোচনায় আগ্রহী৷ কিন্তু তাঁরা আইনের সম্পূর্ণ প্রত্যাহারের দাবি ছাড়া অন্য কোনও শর্ত মানবেন না৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: