সংসদে পেশ আর্থিক সমীক্ষা রিপোর্ট, নোট বাতিলের স্পষ্ট প্রভাব অর্থনীতিতে

মোদি-জেটলিদের দেখানো উজ্জ্বল ভারতের ছবিটা যেন আচমকাই ফিকে। চলতি অর্থবর্ষে আগামী কয়েকটি আর্থিক বছরে কড়া চ্যালেঞ্জের মধ্যে দিয়ে যেতে হবে দেশকে।

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jan 31, 2017 07:29 PM IST
সংসদে পেশ আর্থিক সমীক্ষা রিপোর্ট, নোট বাতিলের স্পষ্ট প্রভাব অর্থনীতিতে
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jan 31, 2017 07:29 PM IST

#নয়াদিল্লি: মোদি-জেটলিদের দেখানো উজ্জ্বল ভারতের ছবিটা যেন আচমকাই ফিকে। চলতি অর্থবর্ষে আগামী কয়েকটি আর্থিক বছরে কড়া চ্যালেঞ্জের মধ্যে দিয়ে যেতে হবে দেশকে। আর্থিক সমীক্ষা রিপোর্টে তা স্পষ্ট হল। সাত বছর পর ২০১৭-১৮ আর্থিক বছরে ৭ শতাংশের নিচে নামতে পারে বৃদ্ধির হার। চলতি বছরে কমছে শিল্পোৎপাদন। উৎপাদন ও পরিষেবা ক্ষেত্রেও স্পষ্ট হল অশনি সংকেত। আম-আদমির জন্যও কোনও সুখবর শোনাতে পারলেন না মুখ্য আর্থিক উপদেষ্টা সুব্রহ্মণ্যম।

যৌথ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের ভাষণ শেষ হওয়ার পরেই আর্থিক রিপোর্ট পেশ করেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। সমীক্ষায় চলতি অর্থবর্ষ ২০১৬-১৭-তে ৬.৫ শতাংশ আর্থিক বৃদ্ধির হারের পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। যা গত অর্থবর্ষের থেকে এক শতাংশ কম ৷ গত বার এই হার ছিল ৭.৬ শতাংশ। ২০১৭-১৮ অর্থবর্ষে আর্থিক বৃদ্ধি ৬.৭শতাংশ থেকে ৭.৫ শতাংশ হওয়ার পূর্বাভাস দিয়েছে অর্থমন্ত্রক ।

নোট বাতিলে কৃষি ও উত্পাদন ক্ষেত্র একাধিক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি ৷ চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আমূল সংস্কারের সুপারিশ করেছেন আর্থিক উপদেষ্টা ৷ এছাড়াও নোট বাতিল সংকট কাটাতে একগুচ্ছ

ব্যবস্থার সুপারিশ করা হয়েছে সমীক্ষা রিপোর্টে ৷ সুদ কমানো ছাডা়ও নগদ জোগানে জোর দেওয়ার পক্ষে জোরালো সওয়াল করা হয়েছে ৷

ফেব্রুয়ারির শেষে হয়ত নোট সঙ্কট মিটবে। ব্যাঙ্ক-এটিএমেও আর লাইন দিতে হবে না। তবে নোট বাতিলের জের বেশকিছুদিন ভোগাতে পারে অর্থনীতিকে। আর্থিক সমীক্ষা রিপোর্টে, তা কার্যত স্বীকার করে নিলেন মুখ্য আর্থিক উপদেষ্টা ও টিম সুব্রহ্মণ্যম। তবে সমীক্ষা রিপোর্টের দাবি, স্বল্পমেয়াদে সমস্যা হলেও দীর্ঘমেয়াদে নোট বাতিলে লাভই হবে। কিভাবে তা অবশ্য স্পষ্ট হয়নি সমীক্ষা রিপোর্টে।

Loading...

সবমিলিয়ে আর্থিক বৃদ্ধির পথে এগোতে এবং দেশের মানুষের মনে খানিক স্বস্তি ফেরাতে আগামীকালের বাজেট জনমোহিনী হওয়ারই পূর্বাভাস মিলছে ৷

First published: 07:29:19 PM Jan 31, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर