corona virus btn
corona virus btn
Loading

রাজনৈতিক দলগুলির পাওয়া ডোনেশনে নজরদারি চাইছে নির্বাচন কমিশন, আসছে নয়া বিধি

রাজনৈতিক দলগুলির পাওয়া ডোনেশনে নজরদারি চাইছে নির্বাচন কমিশন, আসছে নয়া বিধি
Representative Image (PTI)

নির্বাচনের সময় রাজনৈতিক দলের আশ্রয় নিয়ে কালো টাকা সাদা করার প্রচেষ্টায় এবার লাগাম টানতে চায় নির্বাচন কমিশন ৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: নির্বাচনের সময় রাজনৈতিক দলের আশ্রয় নিয়ে কালো টাকা সাদা করার প্রচেষ্টায় এবার লাগাম টানতে চায় নির্বাচন কমিশন ৷ ভোটের ময়দানে পার্টি ফাণ্ডে দান হিসাবে কালো টাকার ব্যবহার বন্ধ করতে একটি সংশোধনী প্রস্তাব পেশ করেছে EC ৷

অজ্ঞাত সূত্র থেকে পার্টি ফাণ্ডে আসা টাকার উপর নজরদারি চায় কমিশন ৷ ১৯৫১ সালের রিপ্রেসেন্টেশন অফ দি পিপল অ্যাক্টের ২৯সি ধারা অনুযায়ী রাজনৈতিক দলগুলি ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত বেনামী দান পাটি ফাণ্ডের জন্য গ্রহণ করতে পারে ৷ কিন্তু ২০,০০০ টাকার বেশি ডোনেশন গ্রহণ করলে দাতাকে একটি ডিক্লেরশন ও তার সঙ্গে কিছু নথি জমা করতে হয় ৷ এই আইনেই সংশোধন আনতে চেয়ে প্রস্তাব পেশ করেছে EC ৷

নিবার্চন কমিশনের সংশোধনী অনুযায়ী, বেনামী কোনও সূত্র বা না প্রকাশে আগ্রহী নয় এমন ব্যক্তি বা সংস্থার থেকে ১,৯৯৯ টাকার বেশি দান নেওয়া নিষিদ্ধ হতে চলেছে ৷ রাজনৈতিক দলগুলি যাতে ২০০০ টাকার উর্ধ্বে বেনামী ডোনেশন গ্রহণ না করে সেটাই নিশ্চিত করতে চায় কমিশন ৷ সংশোধনী পাশ হওয়ার পর দানের মূল্য ২০০০ টাকার বেশি হলেই নথি জমা করতে হবে দাতাকে ৷ অতএব কালো টাকা সাদা করার মেশিন হিসেবে ভোট বাজারের ব্যবহার বন্ধ করতে চাইছে ভারতের নির্বাচনী কমিশন ৷

আরও পড়ুন

যত খুশি টাকা জমা দিক রাজনৈতিক দলগুলি, নজর রাখবে না Income Tax

এর আগেই শুক্রবার কেন্দ্রীয় সরকারের নোট বাতিলের নয়া বিধি নিয়ে বিতর্ক তুঙ্গে ৷ রাজনৈতিক দলগুলিকে টাকা জমার ক্ষেত্রে ছাড়ের বিধির সমালোচনায় সাধারণ মানুষ থেকে রাজনীতিবিদরা ৷

আরও পড়ুন

যত খুশি টাকা জমা দিতে পারবে রাজনৈতিক দল, সিদ্ধান্তে প্রবল ক্রুদ্ধ মমতা

কেন্দ্রীয় অর্থসচিব অশোক লাভাসা থেকে রাজস্ব সচিব হাসমুখ আঢ়িয়া জানান, রাজনৈতিক দলের অ্যাকাউন্টে যত পরিমাণ বাতিল নোট বা টাকা জমা পড়ুক না কেন, তাতে কখনই আয়কর দফতর হস্তক্ষেপ করবে না ৷ কারণ, রাজনৈতিক দলগুলিকে কোনও কর দিতে হয় না ৷ তাই দলীয় অ্যাকাউন্ট বা রাজনৈতিক দলগুলি আয়কর আইনের আওতার বাইরে ৷ এই অ্যাকাউন্টে জমা পড়া টাকার উৎস কখনই জানতে চাইতে পারে না আয়কর দফতর ৷ অতএব কোনও উর্ধ্বসীমা ছাড়াই সমস্ত পার্টির কোষাধ্যক্ষরা যত খুশি নোট জমা দিতে পারেন ৷ কিন্তু লাখ লাখ টাকা জমা পড়লেও কোনও আরবিআই ও আয়কর দফতরের কড়া নজরের বাইরে রাজনৈতিক দলগুলির অ্যাকাউন্ট ৷ শুনতে অবাক লাগলেও কেন্দ্রীয় সরকারের নোট বাতিল বিধি এমন কথাই বলছে ৷

First published: December 18, 2016, 5:06 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर