corona virus btn
corona virus btn
Loading

Dr Kafeel Khan| আদালত নির্দেশ দিল দুপুরে, NSA-তে ধৃত ডাক্তার কাফিল খান মুক্তি পেলেন মধ্যরাতে

Dr Kafeel Khan| আদালত নির্দেশ দিল দুপুরে, NSA-তে ধৃত ডাক্তার কাফিল খান মুক্তি পেলেন মধ্যরাতে
Dr Kafeel Khan

হাইকোর্টের নির্দেশের পরেই কাফিল খানের পরিবার মথুরা জেলে পৌঁছন কাফিলকে নিয়ে আসবেন বলে৷ জেল কর্তৃপক্ষ জানায়, তারা কাফিলকে ছাড়তে পারবে না৷

  • Share this:

#মথুরা: হাইকোর্ট দুপুরেই রায় দেয়, জাতীয় নিরাপত্তা আইনে আটক চিকিত্‍সকে কাফিল খানকে অবিলম্বে মুক্তি দিতে হবে৷ কারণ, তাঁর বিরুদ্ধে জাতীয় নিরাপত্ত আইনে মামলা 'অবৈধ৷' হাইকোর্ট দুপুরে রায় দিলেও কাফিল খানকে জেল থেকে মুক্তি দিতে লেগে গেল মধ্যরাত৷ জেল কর্তৃপক্ষের সাফাই, কোথাও ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে৷ কমিউনিকেশন গ্যাপ৷

হাইকোর্টের নির্দেশের পরেই কাফিল খানের পরিবার মথুরা জেলে পৌঁছন কাফিলকে নিয়ে আসবেন বলে৷ জেল কর্তৃপক্ষ জানায়, তারা কাফিলকে ছাড়তে পারবে না৷ কারণ, আদালতের নির্দেশের কপি তাদের কাছে এসে পৌছয়নি৷ কাফিলের স্ত্রী চিকিত্‍সক সবিস্তার অভিযোগ, 'এমনকী হাইকোর্টের নির্দেশের পরেও কাফিলকে মুক্তি দিতে চায়নি মথুরা জেল কর্তৃপক্ষ৷'

কাফিলের ভাই আদিল খানের কথায়, 'জেল কর্তৃপক্ষ কাফিলকে ছাড়তে চাইছিল না৷ আরও কিছু মামলায় জড়িয়ে ফেলার চেষ্টা করছিল৷ আজ যদি ওঁকে জেল থেকে না ছাড়ত, আমরা বুধবার হাইকোর্টে ফের পিটিশন দাখিল করতাম৷ মথুরা জেলের অফিসাররা বলেন, তাঁরা আদালতের নির্দেশ মানবেন না৷ জেলাশাসক যা বলবেন, তাই করবেন৷ জেলাশাসকের নির্দেশ এখনও আসেনি৷ তাই ছাড়া যাবে না কাফিলকে৷'

এ দিকে মথুরার জেলাশাসক সর্ভাগ্য রাম মিশ্র জানান, হাইকোর্টের নির্দেশ একদম ঠিক মতো পালন করা হবে৷ কিন্তু বিষয়টি আলিগড়ের জেলাশাসকের আওতাধীন৷ কারণ, তিনিই জাতীয় নিরাপত্তা আইনে অভিযোগ করেছিলেন৷

কাফিল খানের আইনজীবী ইরফান গাজির অভিযোগ, তিনি আলিগড়ের জেলাশাসকের সঙ্গে অনেকবার দেখা করার চেষ্টা করেন৷ কিন্তু জেলাশাসক দেখা করেননি৷

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (CAA)-এর বিরুদ্ধে মন্তব্যের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছিল কাফিল খানকে৷ জাতীয় নিরপত্তা আইনে মামলা হয়েছিল তাঁর বিরুদ্ধে৷ গত বছর ১০ ডিসেম্বর আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি সিএএ বিরোধী মন্তব্যের অভিযোগে চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে কাফিল খানকে গ্রেফতার করে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ৷ ১৩ ফেব্রুয়ারির তাঁর বিরুদ্ধে জাতীয় নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়৷

জাতীয় নিরাপত্তা আইনে গত ১৬ অগাস্ট কাফিল খানকে আটক করে রাখার মেয়াদ আরও ৩ মাস বাড়িয়ে দেওয়া হয়৷ ন্যাশনাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট বা NSA-এর আওতায়, যদি রাষ্ট্র মনে করে কোনও ব্যক্তি জাতীয় নিরাপত্তার পক্ষে বিপজ্জনক, তা হলে তাকে ১২ মাস পর্যন্ত কোনও চার্জ ছাড়াই আটক করে রাখতে পারে৷

Published by: Arindam Gupta
First published: September 2, 2020, 9:50 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर