• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • DMK MP DAYANIDHI MARAN FINDS MP RAJIV PRATAP RUDY AS CAPTAIN OF HIS FLIGHT TO CHENNAI DMG

Rajiv Pratap Rudy: পাইলটের আসনে সতীর্থ সাংসদ, বিমানে উঠে চমকে গেলেন লোকসভার আর এক সদস্য

পাইলটের ভূমিকায় সাংসদ রাজীব প্রতাপ রুডি৷

গত ৫ জুলাই বিহারের দ্বারভাঙায় বিমানবন্দর চালু হওয়ার পর সেখান থেকে কলকাতাগামী ইন্ডিগোর প্রথম বিমানটিরও পাইলট ছিলেন রাজীব প্রতাপ রুডি (Rajiv Pratap Rudy)৷

  • Share this:

    #দিল্লি: শুক্রবার চেন্নাই যাওয়ার জন্য দিল্লি থেকে ইন্ডিগো-র একটি বিমানে উঠেছিলেন ডিএমকে সাংসদ দয়ানিধি মারান৷ আর পাঁচটা বিমান সফরের থেকে এক্ষেত্রেও বিশেষ পার্থক্য ছিল না৷ কিন্তু বিমানের পাইলটকে দেখেই চমকে গেলেন ডিএমকে সাংসদ৷ কারণ অন্য কেউ নন, দিল্লি থেকে চেন্নাইগামী ওই বিমানটি ওড়ানোর দায়িত্বে ছিলেন আর এক সাংসদ এবং প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাজীব প্রতাপ রুডি৷

    ট্যুইটারে নিজেই পোস্ট করে ঘটনার কথা জানিয়েছেন দয়ানিধি মারান৷ একই সঙ্গে তিনি লিখেছেন, এই বিমান সফর তাঁর কাছে স্মরণীয় হয়ে থাকবে৷

    দয়ানিধি মারান লিখেছেন, 'সংসদীয় এস্টিমেট কমিটির বৈঠকে যোগ দিয়ে দিল্লি থেকে চেন্নাই আসার জন্য আমি ইন্ডিগো-র বিমান ৬ই৮৬৪-তে সওয়ার হয়েছিলাম৷ বিমানের সামনের সারিতেই বসেছিলাম আমি৷ বিমানকর্মীরা বোর্ডিং সম্পন্ন হয়েছে বলে ঘোষণা করার পরই ক্যাপ্টেনের পোশাক পরিহিত একজন আমায় বলেন, তাহলে আপনিও এই বিমানেই চেন্নাই যাচ্ছেন?'

    মারান জানিয়েছেন,গলার স্বর চেনা হলেও মুখে মাস্ক থাকায় ক্যাপ্টেনের পোশাক পরা ব্যক্তিকে প্রথমে তিনি চিনতে পারেননি৷ কিন্তু কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই তিনি বুঝতে পারেন, বিমানের পাইলট অন্য কেউ নন, খোদ সাংসদ এবং প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাজীব প্রতাপ রুডি৷

    মারান আরও লিখেছেন, 'মাত্র দু' ঘণ্টা আগে আমরা দু' জনেই সংসদীয় কমিটির গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে আলোচনায় ব্যস্ত ছিলাম৷ তার কিছুক্ষণের মধ্যেই একজন রাজনীতিককে পাইলটের ভূমিকায় দেখে নিজের চোখকেই বিশ্বাস করতে পারছিলাম না৷ আমার ভাল বন্ধু এবং সতীর্থর উড়িয়ে নিয়ে আসা বিমানে সওয়ার হতে পেরে আমি গর্বিত৷ এই ঘটনা বহুদিন আমার মনে থাকবে৷ ধন্যবাদ ক্যাপ্টেন৷'

    গত ৫ জুলাই বিহারের দ্বারভাঙায় বিমানবন্দর চালু হওয়ার পর সেখান থেকে কলকাতাগামী ইন্ডিগোর প্রথম বিমানটিরও পাইলট ছিলেন রাজীব প্রতাপ রুডি৷ সেই বিমানেও ৬৩ জন যাত্রী ছিলেন৷ গত দশ বছরে রাজীব প্রতাপ রুডি রাফাল, সুখোইয়ের মতো যুদ্ধবিমানও উড়িয়েছেন বলে হিন্দি সংবাদপত্র অমর উজালা-তে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে৷

    ২০১৩ সালে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে রাজীব প্রতাপ রুডি জানিয়েছিলেন, তাঁর এয়ারবাস ৩২০ ওড়ানোরও প্রশিক্ষণ রয়েছে৷ তখন তিনি জানিয়েছিলেন, 'পাইলট হিসেবে লাইসেন্স সক্রিয় রাখার জন্য আমাকে বিমান ওড়ানোর সঙ্গে যুক্ত থাকতেই হত৷ আমার প্রথম পছন্দ ছিল এয়ার ইন্ডিয়া৷ সেই সুযোগ না থাকায় আমি ইন্ডিগোর প্রস্তাবকে বেছে নিয়েছি৷' রাজীব প্রতাপ রুডি দাবি করেছিলেন, বিজেপি নেতৃত্বও তাঁর এ বিষয়ে তাঁর পাশেই রয়েছে৷

    অটল বিহারী বাজপেয়ী সরকারে ২০০৩ সালের মে মাস থেকে ২০০৪ সালের মে মাস পর্যন্ত অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রীর দায়িত্বে ছিলেন রাজীব প্রতাপ রুডি৷ তার আগে ২০০১ থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত কেন্দ্রীয় বাণিজ্য মন্ত্রীর দায়িত্ব সামলেছেন তিনি৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: