‘একবছর ধরে প্রধান শিক্ষক বারবার ধর্ষণ করেছে আমাকে’, ছাত্রীর বয়ানে চাঞ্চল্য গুজরাটে

‘একবছর ধরে প্রধান শিক্ষক বারবার ধর্ষণ করেছে আমাকে’, ছাত্রীর বয়ানে চাঞ্চল্য গুজরাটে
Representative Image

একবার নয়, বারবার। স্কুলের শিক্ষক দিনের পর দিন ধর্ষণ করেছে ছাত্রীকে৷ হাজার চেষ্টা করে লোলুপ শিক্ষকের দৃষ্টি এড়াতে না পেরে আত্মহত্যা করতে চেষ্টা করল ওই ছাত্রী৷

  • Share this:

#গুজরাট: একবার নয়, বারবার। স্কুলের শিক্ষক দিনের পর দিন ধর্ষণ করেছে ছাত্রীকে৷ হাজার চেষ্টা করে লোলুপ শিক্ষকের দৃষ্টি এড়াতে না পেরে আত্মহত্যা করতে চেষ্টা করল ওই ছাত্রী৷ কারণ, দিনের পর দিন অভিযোগ করেও কোনও লাভ হচ্ছিল না৷ বুধবার গুজরাটের সুরেন্দ্রনগর জেলার চোটিলা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। মেয়েটি স্কুলের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে বারবার যৌন নির্যাতনের অভিযোগ এনেছিল৷ কিন্তু তাতে লাভ হয়নি৷ বরং বহাল তবিয়তেই ছিল ওই শিক্ষক৷ শেষে গ্লানী আর চরম হতাশা, ভয় ঘাড়ে নিয়ে আত্মহত্যা করতে চাইল ওই ছাত্রী৷ অভিযুক্ত অধ্যক্ষ বটুক ভাট্টি চোটিলার কমল বিদ্যামন্দির স্কুলে চাকরি করেন। উনি ওই বিদ্যালয়ের ট্রাস্টিও ছিলেন৷ এই ঘটনার পরে নাবালিক ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয় শিক্ষককে।

নিগৃহীতা তার অভিযোগে বলেছিলেন, ‘প্রিন্সিপাল আমাকে গতবছর দু'বার ধর্ষণ করেছিলেন৷ একাধিকবার আমাকে যৌন হয়রানিও করেছেন তিনি। যৌন নির্যাতনের ফলে মানসিক আঘাত ও হতাশার জন্ম হয়েছে আমার মধ্যে।’ মেয়ে ঘটনা সম্পর্কে তার বাবা-মাকে জানানোর পরেই স্কুল অধ্যক্ষকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। পরে অভিভাবকরা পুলিশকে জানিয়েছিলেন যে তাঁদের মেয়েকে ধর্ষণ করা হয়েছে৷ পুলিশ সুপার মহেন্দ্র বাগদিয়ার মতে অভিযুক্ত অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে আইপিসির ৩৭৬ (ধর্ষণ), ৩৫৪ (মহিলার উপর হামলা) এবং যৌন অপরাধ থেকে শিশু সুরক্ষা সুরক্ষা সম্পর্কিত (পোকসো) সম্পর্কিত ধারায় মামলা করা হয়েছে। এসসি / এসটি (অত্যাচার প্রতিরোধ) আইনের আওতায় তাকেও অভিযুক্ত করা হয়েছে কারণ ভুক্তভোগী দলিত সম্প্রদায়ের।

First published: February 18, 2020, 2:07 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर