গঙ্গা দূষণে নাজেহাল বারাণসী, প্রশ্নে মোদির ‘নমানি গঙ্গে’ প্রকল্প

গঙ্গা দূষণে নাজেহাল বারাণসী, প্রশ্নে মোদির ‘নমানি গঙ্গে’ প্রকল্প
Photo Collected
  • Share this:

#বারাণসী: ২০১৪ সালে বারাণসী থেকে সাংসদ হন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। প্রতিশ্রুতি ছিল পাঁচ বছরে গঙ্গাকে দূষণমুক্ত করার। কতটা কাজ হয়েছে গঙ্গা পরিষ্কারের? প্রশ্ন তুলছেন বারাণসীর বাসিন্দাদের একাংশ। ২০১৪-য় ক্ষমতায় আসার পর গঙ্গা দূষণ ও গঙ্গা বাঁচাওকে স্লোগান করেছিলেন নরেন্দ্র মোদি। প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ নেওয়ার এক বছর পর ঘোষণা করলেন নমামি গঙ্গা প্রকল্প। কুড়ি হাজার কোটি টাকার এই প্রকল্পের লক্ষ্য - ২০১৯-এর মধ্যে গঙ্গাকে দূষণমুক্ত করা। তৈরি হয়েছে আলাদা মন্ত্রকও। কিন্তু ২০১৯-এর মার্চের রিপোর্ট অনুযায়ী, গত তিন বছরে গঙ্গায় দূষণের মাত্রা বেড়েছে। গঙ্গার ধার ধরে এখনও এই চেহারাই চোখে পড়ে। কয়েকটি ঘাটে কিছু সৌন্দর্যায়নের কাজ হলেও কাজের কাজ কিছু হয়নি বলেই অভিযোগ স্থানীয় বাসিন্দাদের।

বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির রোড শোর আগে সাজিয়ে তোলার কাজ চলে। তার আগে ক’দিন গঙ্গার অবস্থার উন্নতি হয়েছে। একদিকে গঙ্গার উন্নতি হয়নি, অন্যদিকে শহর জুড়ে নোংরা। এতে ক্ষিপ্ত সন্ন্যাসীদের একাংশও।

শুধু যে গঙ্গা দূষণই সমস্যা এমন নয়। গত কয়েক দশকে গঙ্গার অস্তিত্বও সঙ্কটে। আশঙ্কাজনকভাবে জল কমেছে নদীতে। সেই সঙ্গে বেড়েছে পলি। অবিলম্বে ব্যবস্থা না নিলে আগামী কয়েক দশকে গঙ্গার অবস্থা সঙ্কটজনক হয়ে পড়বে। গঙ্গাকে দূষণমুক্ত করতে ১৯৮৬ সালে গঙ্গা অ্যাকশন প্ল্যান তৈরি করেন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধি। নদীর পাড় ধরে তৈরি হয়েছে বেশ কয়েকটি জল পরিশোধন কেন্দ্র। এরপর গঙ্গা দিয়ে বয়ে গিয়েছে বহু জল। আজও দূষণের হাত থেকে রক্ষা পেল না গঙ্গা। আদৌ ২০২০র মধ্যে এই নমামি গঙ্গা প্রকল্পটি শেষ হবে, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলছে বিভিন্ন মহল।

First published: 09:09:17 PM Apr 25, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर