বার্ড ফ্লু’র থাবা এ বার দিল্লির চিড়িয়াখানায়! মৃত ব্রাউন ফিশ আউল

বার্ড ফ্লু’র থাবা এ বার দিল্লির চিড়িয়াখানায়! মৃত ব্রাউন ফিশ আউল

দিল্লির চিড়িয়াখানায় এই প্রথম বার একটি ব্রাউন ফিশ আউল-এর মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। পরীক্ষা করে জানা যায়, ওই নমুনায় অ্যাভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাস ছিল।

দিল্লির চিড়িয়াখানায় এই প্রথম বার একটি ব্রাউন ফিশ আউল-এর মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। পরীক্ষা করে জানা যায়, ওই নমুনায় অ্যাভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাস ছিল।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: অ্যাভিয়ানের কোপ এ বার দিল্লির চিড়িয়াখানাতেও। শনিবার সেই খবর নিশ্চিত করল কেন্দ্র। দিল্লির চিড়িয়াখানায় এই প্রথম বার একটি ব্রাউন ফিশ আউল-এর মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। পরীক্ষা করে জানা যায়, ওই নমুনায় অ্যাভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাস ছিল। চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়, ল্যাব রিপোর্টগুলি মৃত পেঁচার নমুনায় অ্যাভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জার উপস্থিতি নিশ্চিত করেছে। এই মাসের গোড়ার দিকে দিল্লিতে বার্ড ফ্লু প্রাদুর্ভাবের বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছিল যখন ময়ূর বিহার, দ্বারকা এবং রাজধানীর অন্যান্য অংশে মৃত কাক এবং অন্যান্য পাখির মৃতদেহের পাওয়া যায় এবং পরীক্ষায় ভাইরাসের জন্য ইতিবাচক ফল আসে। এই কারণের জন্য দিল্লি চিড়িয়াখানায় কর্তৃপক্ষ প্রোটোকল অনুসারে স্যানিটেশনেশন ড্রাইভ শুরু করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় পরিবেশ মন্ত্রকের একটি বাহিনী দেশের সবকটি চিড়িয়াখানাকে কেন্দ্রীয় চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিদিনের প্রতিবেদন জমা দিতে বলেছে। যে সব স্থানে বার্ড ফ্লু ধরা পড়েছে সেই সব বিভাগে প্রবেশের বিষয়টি পর্যবেক্ষণ এবং নিষিদ্ধ রাখা হয়েছে এবং চিড়িয়াখানায় প্রবেশকারী সমস্ত যানবাহন স্যানিটাইজ করতে হবে বলে নির্দেশ জারি কয়া হয়েছে। গত সপ্তাহেই উত্তরপ্রদেশের কানপুর চিড়িয়াখানায় একটি বার্ড ফ্লু নিশ্চিত মামলায় সম্পূর্ণ জায়গাটিকে সিল করা হয়েছিল। সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসাবে লখনউ চিড়িয়াখানাটিও সিল করে দেওয়া হয়েছিল। একইভাবে, রাজ্য প্রশাসন জুড়ে প্রায় ২৬০০ টি কাক, ১৯০ টি ময়ূর, ১৯৫ টি পায়রা এবং ৪০০টি অন্যান্য পাখির মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করার পরে জয়পুর চিড়িয়াখানাটিও বন্ধ করে দেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এই সপ্তাহের শুরুতে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে বলেছিলেন যে পাখির খামার, চিড়িয়াখানা এবং জলাশয়গুলি বার্ড ফ্লুর বিস্তার যাতে না হয়, সেই দিকে নজর রাখতে ও পর্যবেক্ষণ করতে হবে। এক্ষেত্রে ভারত সরকারও নির্দেশনা জারি করেছিল।

    Published by:Somosree Das
    First published: