Delhi Police vs Lawyers: ১৩ ঘণ্টা পর বিক্ষোভ প্রত্যাহার দিল্লি পুলিশের

Delhi Police vs Lawyers: ১৩ ঘণ্টা পর বিক্ষোভ প্রত্যাহার দিল্লি পুলিশের
Photo Courtesy: ANI
  • Share this:

#নয়াদিল্লি: দিল্লিতে আইনজীবী বনাম পুলিশ। আইনজীবীদের হাতে হেনস্থা, মারধরের অভিযোগে নজিরবিহীন বিক্ষোভে সামিল পুলিশকর্মীরা। পুলিশের বিরুদ্ধে গুলি চালানোর অভিযোগ তুলেছিলেন আইনজীবীরা। অভিযুক্ত পুলিশকর্মীরা গ্রেফতার না হওয়া পর্যন্ত নিম্ন আদালতে কর্মবিরতি চলবে। ঘোষণা আইনজীবীদের। ১৩ ঘণ্টা পর অবশেষে বিক্ষোভ প্রত্যাহার দিল্লি পুলিশকর্মীদের ৷ এদিন মধ্য দিল্লিতে পথ অবরোধের পাশাপাশি ধরনা চলে পুলিশকর্মীদের ৷ দিল্লি পুলিশ হেডকোয়ার্টারের সামনেই ধরনায় বসেন তাঁরা ৷

যুগ্ম পুলিশ কমিশনার কথা শুরু করতেই তীব্র ব্যারাকিং। পুলিশকর্মীদের কটাক্ষের মুখে থমকালেন শীর্ষ পুলিশকর্তা। দিল্লির পুলিশকর্মীদের বিক্ষোভে এমনই নজিরবিহীন ঘটনা।

শনিবার তিস হাজারি আদালতে দু-পক্ষের সংঘর্ষে হয়। সোমবার পাল্টা পুলিশকে মারধরের অভিযোগ ওঠে আইনজীবীদের বিরুদ্ধে। এর প্রতিবাদেই দিল্লিতে পুলিশের সদর দফতরের সামনে বিক্ষোভে সামিল হন কয়েক হাজার পুলিশকর্মী।

নির্ভয়া কান্ডের পর এমনই বিক্ষোভ হয়েছিল। তবে সেই বিক্ষোভ ছিল আম-আদমির। এবার পুলিশের বিরুদ্ধেই ক্ষুব্ধ পুলিশকর্মীদের বিক্ষোভ। সময় যত এগিয়েছে, আন্দোলনের ঝাঁঝ বেড়েছে। ইন্ডিয়া গেটের সামনে বিক্ষোভে সামিল হয় পুলিশকর্মীদের পরিবার। আন্দোলনকে সমর্থন করে আইপিএসদের সংগঠন। কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সূরযওয়ালা ট্যুইটে জানান, ‘বিক্ষোভের ১০ ঘণ্টা। আইন-শৃঙ্খলা ভেঙে পড়েছে। পুলিশকর্মীদেরও পরিবারও রাস্তায় নেমেছেন। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ চুপ কেন ? ’

সন্ধের পর জরুরি মেসেজ পাঠিয়ে পুলিশকে বিক্ষোভ তুলতে বলা হয়। দিল্লির পুলিশ কমিশনারের আশ্বাস, পুলিশকর্মীদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হবে না। আহতদের চিকিৎসা সহ একগুচ্ছ আশ্বাসও দিয়েছেন । তা নিয়ে আবার হুঁশিয়ারি দিয়েছে আইনজীবীরা। বার কাউন্সিলগুলির যৌথ মঞ্চের সিদ্ধান্ত গুলি চালানোয় অভিযুক্ত পুলিশকর্মীদের গ্রেফতার করতেই হবে। সেটা না হওয়া পর্যন্ত হাইকোর্ট ছাড়া অন্য কোনও আদালতে কাজ হবে না ৷

কোন পথে দু-পক্ষের সমঝোতা সম্ভব ? এখনই তার কোনও দিশা নেই প্রশাসনের কাছে।

First published: 08:44:24 PM Nov 05, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर