• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • DELHI GOVERNMENT SAYS THAT KUMBH MELA RETURNEE HAS TO STAY AT QUARANTINE FOR 14 DAYS SWD

Kumbh Mela: কুম্ভমেলা থেকে ফিরলেই করতে হবে একটি কাজ, করোনা ঠেকাতে কড়া নির্দেশ দিল্লি সরকারের

কুম্ভমেলা থেকে ফিরলেই করতে হবে একটি কাজ, করোনা ঠেকাতে কড়া নির্দেশ দিল্লি সরকারের

যারা কুম্ভ মেলা থেকে ফিরছেন তাদের জন্য কড়া ব্যবস্থা নিল দিল্লি (Delhi) সরকার।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: গোটা দেশে ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে করোনা (Corona) সংক্রমণ। প্রতিদিন দেশে লক্ষ লক্ষ মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। আর এর মধ্য়েই বিশ্বের অন্যতম ধর্মীয় মিলনক্ষেত্র কুম্ভমেলার (Kumbh Mela) শাহী স্নানের চিত্র ধরা পড়ছে। মাস্ক ছাড়া হাজার হাজার সাধুদের স্নান করতে দেখা যাচ্ছে ছবিতে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই মেলা সুপারস্প্রেডার হিসেবে কাজ করতে পারে।

    আর এই অবস্থায় যারা কুম্ভ মেলা থেকে ফিরছেন তাদের জন্য কড়া ব্যবস্থা নিল দিল্লি (Delhi) সরকার। দিল্লি তে বসবাসকারী যারা কুম্ভ মেলায় গিয়েছিলেন ফেরার পর তাদের সকলকে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। এছাড়াও নিজেদের সব তথ্য অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে আপলোড করতে হবে। দিল্লির বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী এই নির্দেশ জারি করেছে।

    শনিবার নির্দেশিকা জারি করে বলা হয়েছে, গত ৪ এপ্রিল থেকে ৩০ এপ্রিলের মধ্যে যারা কুম্ভ মেলা গিয়েছেন বা যাবেন তাদেরকে অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে সমস্ত তথ্য যেমন আইডি প্রুফ এবং কবে গিয়েছেন ও যাবেন ইত্যাদি আপলোড করতে হবে। আর ফেরার পরে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। যদি কুম্ভ থেকে থেকে ফিরে কেউ অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে তথ্য আপলোড না করেন, তা হলে তাঁকে জেলা প্রশাসন কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে পাঠিয়ে দেবে ১৪ দিনের জন্য।

    বিশেষজ্ঞরা বলছেন এবার কুম্ভ মেলা করোনার দ্বিতীয় ঢেউতে সুপার স্প্রেডারের কাজ করতে পারে। জানা যাচ্ছে এখনও বিশ্বের অন্যতম এই ধর্মীয় মেলা থেকে ১৭০১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। আর তাই কুম্ভমেলা নিয়ে নড়চড়ে বসেছে মোদি সরকারও। জুনা আখড়ার স্বামী অভদেশানন্দ গিরির সঙ্গে কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।স্বামী অভদেশানন্দকে মোদি বলেছেন, এবার কুম্ভমেলা প্রতীকী হওয়া উচিত।

    প্রসঙ্গত, বিশ্বের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় মিলনক্ষেত্রে প্রতিবারই লক্ষ লক্ষ মানুষের ভিড় হয়। প্রতিদিনই ১০ লক্ষ থেকে ৫০ লক্ষ মানুষের ভিড় হয়। গোটা এই উৎসব মিলিয়ে মোট ১ কোটি থেকে দেড় কোটি মানুষ অংশ নেন।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published: