Oxygen Crisis in UP: প্রশ্নের মুখে যোগীর দাবি, আগ্রার হাসপাতালে অক্সিজেন-অভাবে মৃত ৮ করোনা রোগী!

Oxygen Crisis in UP: প্রশ্নের মুখে যোগীর দাবি, আগ্রার হাসপাতালে অক্সিজেন-অভাবে মৃত ৮ করোনা রোগী!

চাপ বাড়ল আদিত্যনাথের

সরকারের তরফে যাই বলা হোক, হাসপাতালের তরফেও অক্সিজেন ঘাটতির কারণে মৃত্যুর কথা স্বীকার করে নেওয়া হয়েছে।

  • Share this:

    #আগ্রা: মাত্র তিনদিন আগেই তিনি দাবি করেছিলেন, উত্তরপ্রদেশে অক্সিজেনের (Oxygen in Uttar Pradesh) কোনও অভাব নেই। কিন্তু উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের (Yogi Adityanath) সেই দাবিকে বড়সড় প্রশ্নের মুখে দিল আগ্রার হাসপাতালের ঘটনা। মেরঠের পর এবার আগ্রা। আর সেই অক্সিজেনের অভাব। যে কারণে আগ্রার হাসপাতালে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লেন ৮ জন করোনা রোগী! স্থানীয় সূত্রে খবর, গতকাল থেকেই আগ্রার পরস হাসপাতালে গতকাল অক্সিজেনের অভাব দেখা যায়। আর ঠিক তখনই গুরুতর অসুস্থ আটজন করোনা রোগী (Corona Patients Death Due to Oxygen) অক্সিজেনের অভাবে মারা যান। এমনকী, সরকারের তরফে যাই বলা হোক, হাসপাতালের তরফেও অক্সিজেন ঘাটতির কারণে মৃত্যুর কথা স্বীকার করে নেওয়া হয়েছে।

    আগ্রার জেলাশাসক প্রভু সিং জানিয়েছেন, 'গত ২৪ ঘণ্টায় অক্সিজেনের কিছু ঘাটতি দেখা দিয়েছে। তবে আশা করা হচ্ছে শীঘ্রই এই সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। আসলে আচমকা রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়াতেই অক্সিজেনের ঘাটতি দেখা দিয়েছে। জেলায় বর্তমানে চার হাজারেরও বেশি সক্রিয় করোনা রোগী রয়েছে, সুতরাং বেডের ঘাটতি হওয়া উচিত নয়। এখনও দুই হাজার বেড ফাঁকা রয়েছে।'

    নিজে করোনা আক্রান্ত হয়েও দিন তিনেক আগেই মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ঘোষণা করেছিলেন, তাঁর রাজ্যের কোনও হাসপাতালে অক্সিজেনের ঘাটতি নেই। তাঁর কথায়, 'সরকারি ও বেসরকারি, কোনও হাসপাতালেই আমাদের এখানে অক্সিজেনের ঘাটতি নেই। কালোবাজারি ও অক্সিজেন মজুত করে রাখার ফলে কিছু সমস্যা হয়েছিল। তবে তার মোকাবিলাও করা হচ্ছে। আইআইটি কানপুর, আইআইএম লখনউ ও আইআইটি বারাণসীর সঙ্গে মিলে আমরা একটা পরিকল্পনা তৈরি করছি। অক্সিজেনের চাহিদা, জোগান ও বণ্টনে নজর রাখতেই এই পরিকল্পনা করা হয়েছে।' একইসঙ্গে, আদিত্যনাথ জানিয়েছিলেন, 'সব রোগীর কিন্তু অক্সিজেনের প্রয়োজন পড়ছে না। শুধুমাত্র যাঁদের প্রয়োজন তাঁদেরই অক্সিজেন দেওয়া হবে।' কিন্তু সেখানেই অক্সিজেনের অভাবে আটজন রোগী মৃত্যুর কারণে প্রশ্নের মুখে মুখ্যমন্ত্রীর দাবি।

    এমনকী পরিস্থিতি এমন দাঁড়িয়েছে, উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন হাসপাতাল ইতিমধ্যেই নোটিশ লাগিয়ে জানিয়ে দিয়েছে, করোনা রোগী ভর্তি করতে হলে নিজেদেরই অক্সিজেন সিলিন্ডারের ব্যববস্থা করে নিতে হবে। এমনকী যোগী আদিত্যনাথের দাবিকে প্রশ্নের মুখে ফেলে অনেক হাসপাতালই রোগী ভর্তি বন্ধ করে দিয়েছে।

    প্রসঙ্গত, গোটা দেশের সঙ্গে তাল মিলিয়েই উত্তরপ্রদেশেও ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করছে। রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১২ লক্ষ, মৃত্যুও হয়েছে ১১,৪১৪ জনের।

    Published by:Suman Biswas
    First published:
    0

    লেটেস্ট খবর