'ক্যা ক্যা ছি ছি থেকে এখন কাছাকাছি,' মোদি-মমতা বৈঠককে কটাক্ষ সেলিমের

'ক্যা ক্যা ছি ছি থেকে এখন কাছাকাছি,' মোদি-মমতা বৈঠককে কটাক্ষ সেলিমের
সিপিআইএম নেতা মহম্মদ সেলিম

শুধু বামেরাই নয়, মমতা-মোদি বৈঠককে কটাক্ষ করেছেন কংগ্রেস সাংসদ অধীররঞ্জন চৌধুরীও৷

  • Share this:

#কলকাতা: সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসি-র প্রতিবাদে রাজ্যজুড়ে আন্দোলন করছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এ হেন পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে মমতার বৈঠককে একযোগে কটাক্ষ করলেন বিরোধীরা৷

সিপিআইএম নেতা মহম্মদ সেলিম এ দিন বলেন, 'প্রথমে বললেন, ক্যা ক্যা ছি ছি৷ এখন হয়ে গেল কাছাকাছি৷' মোদির সফর ঘিরে শনিবার দিনভর বিক্ষোভ দেখায় বাম ও কংগ্রেস৷ 'গো ব্যাক মোদি' স্লোগান দিতে দিতে মোদিকে কালো পতাকা দেখায় বামেরা৷ সন্ধ্যায় পড়ুয়ারা মিছিল করে জড়ো হন ধর্মতলা চত্বরে৷ পডু়য়াদের দাবি, এই পরিস্থিতিতে কেন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করলেন মুখ্যমন্ত্রী? ধর্মতলায় বিক্ষুব্ধ পড়ুয়াদের শান্ত করতে আসরে নামতে হয় খোদ মমতাকে৷ মমতা তাঁদের ব্যাখ্যা দেন, কেন তিনি মোদির সঙ্গে বৈঠক করেছেন৷

শুধু বামেরাই নয়, মমতা-মোদি বৈঠককে কটাক্ষ করেছেন কংগ্রেস সাংসদ অধীররঞ্জন চৌধুরীও৷ বলেন, 'মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আসল চেহারা উঠে আসুক৷ মোদির জন্য সময় বের করেন মমতা৷ সাম্প্রদায়িকতা বিরোধের সময় নেই৷ আসলে মোদিকে দরকার মমতার৷ সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী জোট চান না মমতা৷'

ধানমন্ত্রীর সফরের প্রতিবাদে শহরের বিভিন্ন প্রান্তে শনিবার দিনভর চলল দফায় দফায় বিক্ষোভ প্রদর্শন। একাধিক রাজনৈতিক, অরাজনৈতিক সংগঠন এক সুরে বলেন 'মোদি গো ব্যাক'। বছরের দ্বিতীয় শনিবার অনেকের ছুটির দিন তাই খুব গাড়ি চাপ নেই ধর্মতলায়। তবুও রোজের মত যাঁরা অফিস বা বিভিন্ন কাজে গেলেন তাদের ধর্মতলা আসতেই থমকে যেতে হল। শনিবার সকাল থেকে ধর্মতলা চত্বরে প্রস্তুত ছিলে কলকাতা পুলিশ। দুপুর ১২টা বাজতেই একটু একটু করে বন্ধ হতে শুরু করে ধর্মতলার রাস্তা। দুপুর ১টা নাগাদ ধর্মতলা থেকে লেলিন সরণি কার্যত দুই ভাগে ভাগ হয়ে যায়।

First published: 10:26:56 PM Jan 11, 2020
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर