Tripura Politics: ফের আগুন জ্বলল ত্রিপুরায়, পুড়ছে CPM পার্টি অফিস! বামেদের পাশে তৃণমূল

ত্রিপুরায় হামলার মুখে সিপিএম

Tripura Politics: ত্রিপুরার উদয়পুরে একাধিক বাড়ি-দোকানে হামলা চলেছে বলেও অভিযোগ। সিপিএমের (CPIM) দফতর থেকে বোমাবাজির অভিযোগ করেছে বিজেপিও (BJP)।

  • Share this:

    #আগরতলা: বাংলা জিতে এবার ত্রিপুরা দখলে মনোনিবেশ করেছে তৃণমূল। আর তারপর থেকেই ত্রিপুরায় তৃণমূলের উপর হামলা চলছে বলে অভিযোগ উঠছে। এমনকী তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কনভয়েও হামলার অভিযোগ উঠেছে। তবে শুধু তৃণমূল নয়, হামলার মুখে পড়তে হচ্ছে বামেদেরও। সম্প্রতি ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকারের কনভয়েও হামলা চলে। এবার ত্রিপুরার (Tripura) উদয়পুরে সিপিএম-বিজেপি সংঘর্ষের খবর মিলেছে। উদয়পুরে একাধিক বাড়ি-দোকানে হামলা চলেছে বলেও অভিযোগ। সিপিএমের (CPIM) দফতর থেকে বোমাবাজির অভিযোগ করেছে বিজেপিও (BJP)।

    পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাঁদানে গ্যাস ছুড়তে হয় পুলিশকে। অন্যদিকে ত্রিপুরার বিশালগড়ে সিপিএমের পার্টি অফিসে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। হামলা চালানো হয়েছে সিপিআইএমের সম্পাদক মন্ডলীর সদস্যের বাড়িতেও। ঘটনার খবর পেয়ে এসডিপিও-র নেতৃত্বে ঘটনাস্থলে আসে বিশাল পুলিশ বাহিনী। দমকল এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এক্ষেত্রে অজ্ঞাতপরিচয় দুষ্কৃতীদের দিকে অভিযোগের আঙুল উঠেছে।

    যদিও এই ঘটনার পর সিপিএমের পাশে দাঁড়িয়েছে তৃণমূল। বিরোধী দলনেতা মানিক সরকারের সঙ্গে দেখা করেন তৃণমূল নেতারা। দুই তৃণমূল নেত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ও সুস্মিতা দেব যান একটি সংবাদমাধ্যমের অফিসে। সেখানেও হামলা চলে বলে অভিযোগ। সিপিএম পার্টি অফিসে গিয়েই বামেদের পাশে দাঁড়ান জয়া দত্ত, আশিষ লাল সিংয়ের মতো তৃণমূল নেতারা। মুকুল রায়ের একাধিক তৃণমূল নেতা ট্যুইটারে গর্জে উঠেছেন। এমনকী এমন ঘটনার পরও জাতীয় নির্বাচন কমিশন কোথায়, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তৃণমূল নেতারা।

    আরও পড়ুন: 'বাঘের' বিরুদ্ধে লড়বেন আইনজীবী! ভবানীপুরে মমতার বিপক্ষে কাকে দাঁড় করাল CPIM?

    এর আগে ত্রিপুরায় তৃণমূলের উপর হামলার ঘটনার নিন্দা করেছিলেন ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্য়মন্ত্রী মানিক সরকারও। গত সোমবার তাঁরই কনভয়ের উপর হামলার অভিযোগ উঠেছিল বিজেপির বিরুদ্ধে। এই ঘটনার পরই এলাকায় দফায় দফায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছিল। শেষমেশ বিশাল পুলিশ বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছিল।

    নিজের কেন্দ্র ধনপুরে যাওয়ার পথেই মানিক সরকারের কনভয়ে হামলা চলেছিল। পাল্টা সেই সময় লাল ঝাণ্ডা নিয়ে রাস্তায় নামেন বাম কর্মীরা। দুনিয়ার মজদুর এক হও স্লোগান তুলে পালটা প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করেন সিপিএমের নেতা কর্মীরা। পুলিশের সঙ্গে তাঁদের রীতিমতো ধস্তাধস্তিও শুরু হয়ে যায়। পরিস্থিতি ক্রমেই হাতের বাইরে চলে যাওয়ার উপক্রম হওয়ায় ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বর্ষীয়ান সিপিএম নেতা মানিক সরকার কর্মীদের বুঝিয়ে উত্তেজনা প্রশমনের চেষ্টা করেন। এর দুদিন পরেই ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠল ত্রিপুরা।

    Published by:Suman Biswas
    First published: