• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • COW ELECTROCUTED TSNPDCL ASKED TO PAY 90 THOUSAND TO KHAMMAM FARMER WHOSE COW WAS ELECTROCUTED TC RC

Cow Electrocuted: অবহেলার দায়, বিদ্যুৎস্পৃষ্ট গাভীর জরিমানা হিসেবে কৃষককে এবার ৯০ হাজার দিতে বাধ্য বিদ্যুৎ নিগম!

প্রতীকী ছবি।

জানা গিয়েছে যে কিছু দিন আগে ভেঙ্কটেশ্বরলু তাঁর তিন গাভী এবং পাঁচ মহিষ চরাতে নিয়ে গিয়েছিলেন বাড়ি থেকে একটু দূরের মাঠে।

  • Share this:

#খামান: পোস্ট থেকে বিদ্যুতের ছেঁড়া তার পথের উপরে পড়ে থাকতে বা ঝুলে থাকতে দেখে আমরা অনেকেই অভ্যস্ত! বিদ্যুৎ নিগম এর দায় কখনই নেয় না! পরিণামে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যুর খবরও কখনও কখনও উঠে আসে সংবাদের শিরোনামে। অবহেলার এই মর্মন্তুদ চিত্র এখন যেন আমাদের গা-সওয়া হয়ে উঠেছে! কিন্তু হার স্বীকার করতে রাজি হননি তেলঙ্গানার খামান জেলার চিন্তাকনি মণ্ডলের রেপালি ওয়াদা গ্রামের বাসিন্দা মদিপলি পেডা ভেঙ্কটেশ্বরলু (Madipalli Pedda Venkateswarlu)। পেশায় কৃষক ভেঙ্কটেশ্বরলু তাঁর গাভী বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা গেলে মামলা দায়ের করেছিলেন কনজিউমার ডিসপিউট রিড্রেসাল কমিশনের (Consumer Dispute RedressalCommission) কাছে। সেই মামলায় জয়ী হয়েছেন তিনি, কমিশন সাফ জানিয়ে দিয়েছে যে তেলঙ্গানা স্টেট নর্দার্ন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড (Telangana State Northern Power Distribution Company Limited), সংক্ষেপে TSNPDCL-কে ৯০,০০০ টাকা তুলে দিতে হবে ভেঙ্কটেশ্বরলুর হাতে!

জানা গিয়েছে যে কিছু দিন আগে ভেঙ্কটেশ্বরলু তাঁর তিন গাভী এবং পাঁচ মহিষ চরাতে নিয়ে গিয়েছিলেন বাড়ি থেকে একটু দূরের মাঠে। সেখানেই পড়ে ছিল বিদ্যুতের তার, সেটার সংস্পর্শে এসেই বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে তাঁর একটি গাভীর মৃত্যু হয়। যদিও ঘটনায় প্রথমে তেলঙ্গানা স্টেট নর্দার্ন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের কাছে ক্ষতিপূরণ দাবি রেননি ভেঙ্কটেশ্বরলু। তিনি শুধু নিগমকে ওই মাঠের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিতে বলেছিলেন, ঘটনা জানিয়ে চিঠি দিয়েছিলেন যাতে আর কোনও গবাদি পশু বা মানুষের এই ভাবে মৃত্যু না হয়! যখন বিদ্যুৎ নিগম তাঁর আবেদনে কর্ণপাত করার প্রয়োজন বোধ করেনি, তখন আর থাকতে না পেরে তিনি মামলা দায়ের করেন কনজিউমার ডিসপিউট রিড্রেসাল কমিশনে।

ভেঙ্কটেশ্বরলু জানিয়েছেন যে তাঁর ওই মৃতা গাভীর মূল্য ছিল ৫০,০০০ টাকা। সে প্রতি দিন ৮ লিটার দুধ সরবরাহ করত, যা বিক্রয় করে দিন পিছু ৩২০ টাকা আয় হত তাঁর। এই হিসেব, গাভীর মূল্য এবং জরিমানা ধরে কনজিউমার ডিসপিউট রিড্রেসাল কমিশন জানিয়েছে যে তেলঙ্গানা স্টেট নর্দার্ন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডকে সত্বর ভেঙ্কটেশ্বরলুর হাতে ৯০,০০০ টাকা তুলে দিতে হবে। ঘটনায় অবশ্য প্রথমে নিজেদের দায় অস্বীকার করে বিদ্যুৎ নিগম। তারা জানায় যে গাভীর মৃত্যু মালিকের দায়িত্বজ্ঞানহীনতার কারণেই ঘটেছে, তিনি ওই সময়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন না! কিন্তু এই বিবৃতির স্বপক্ষে কোনও প্রমাণ দিতে না পারায় মামলা বিদ্যুৎ নিগমের প্রতিকূলে চলে যায়। কমিশন জানায় যে পথের উপরে বা মাঠে যদি বিদ্যুতের তার পড়ে থাকে, যদি ঝড়-জলে বিদ্যুতের খুঁটি আলগা হয়ে যায়, তাহলে নিগমকেই এর দায়িত্ব নিতে হবে, দুর্ঘটনা এটাই প্রমাণ করে যে নিগম তার দায়িত্ব যথাযথ ভাবে পালন করছে না!

Published by:Raima Chakraborty
First published: