Corona in Gujarat: 'মডেল' গুজরাতে ফেরাল হাসপাতাল, অক্সিজেন না পেয়ে শ্বাসকষ্টে মৃত বাঙালি অধ্যাপিকা

Corona in Gujarat: 'মডেল' গুজরাতে ফেরাল হাসপাতাল, অক্সিজেন না পেয়ে শ্বাসকষ্টে মৃত বাঙালি অধ্যাপিকা

ইন্দ্রাণী বন্দ্যোপাধ্যায়

অক্সিজেন লেভেল অনেকটা নেমে গেলে তাঁকে তড়িঘড়ি একটি গাড়িতে গান্ধিনগরের একটি কোভিড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু সেখানে কোনও বেড মেলেনি।

  • Share this:

    #গুজরাত: করোনায় (Coronavirus) বিপর্যস্ত গুজরাত। রাজ্য সরকারের শত প্রচেষ্টা সত্ত্বেও সত্য চেপে রাখা যাচ্ছে না মোদির নিজের রাজ্যে। গুজরাতে করোনা আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা যেভাবে বাড়ছে, তাতে শ্মশানগুলিতে আর জায়গা মিলছে না। এই পরিস্থিতিতে আরও মর্মান্তিক ঘটনা গুজরাতে (Gujarat)। পুরসভার নিয়ম অনুযায়ী, অ্যাম্বুল্যান্সে না আসার কারণে এক রোগীকে ফিরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে কোভিড হাসপাতালের বিরুদ্ধে। আর সেই কারণেই অক্সিজেনের অভাবে প্রবল শ্বাসকষ্টে মৃত্যু হয় তাঁর। ঘটনাচক্রে মৃতা একজন বাঙালি অধ্যাপিকা (Bengali Professor Died in Gujarat)। ইন্দ্রাণী বন্দ্যোপাধ্যায় নামে ওই অধ্যাপিকা গুজরাত সেন্ট্রাল ইউনিভার্সিটি-র স্নায়ুবিজ্ঞান বিভাগের ডিন ছিলেন। স্বাভাবিক কারণেই এ রাজ্যকে 'সোনার বাংলা' হিসেবে গড়ে তোলার দাবি করা নরেন্দ্র মোদি, অমিত শাহদের নিজেদের রাজ্যের এই পরিস্থিতি নানা প্রশ্ন তুলে দিল।

    জানা গিয়েছে, গত শুক্রবার থেকেই শ্বাসকষ্ট শুরু হয় ইন্দ্রাণী দেবীর। অক্সিজেন লেভেল অনেকটা নেমে গেলে তাঁকে তড়িঘড়ি একটি গাড়িতে গান্ধিনগরের একটি কোভিড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু সেখানে কোনও বেড মেলেনি। এরপর একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। কিন্তু সেখানেও ভেন্টিলেটরের সংখ্যা নামমাত্র থাকায় অন্য হাসপাতালের খোঁজ শুরু হয়।

    শুক্রবার দিনটা কোনওরকমে কাটানো গেলেও শনিবার ইন্দ্রাণীকে আমদাবাদ পুরসভার কোভিড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু আজব নিয়ম দেখিয়ে সেখান থেকেও তাঁকে ফিরিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। কী নিয়ম? অভিযোগ, পুরসভার নিয়ম অনুযায়ী, রোগীকে 'এমআরআই ১০৮' অ্যাম্বুল্যান্সে আনতে হয়। কিন্তু ইন্দ্রানী দেবীকে তাতে না আনায় ফিরিয়ে দেওয়া হয় শ্বাসকষ্টে ভুগতে থাকা ওই বাঙালি অধ্যাপিকাকে। এরপর নিরুপায় হয়ে গান্ধিনগরের হাসপাতালে যখন ইন্দ্রানী দেবীকে নিয়ে যাওয়া হয়, ততক্ষণে অক্সিজেনের মাত্রা নেমে গিয়েছে ৬০-এ। রাতে অক্সিজেন দেওয়ার চেষ্টা করা হলেও কোনও লাভ হয়নি। রবিবার রাতে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন ওই অধ্যাপিকা। স্বাভাবিক কারণেই এই মৃত্যু গুজরাতের ভয়াবহ করোনা পরিস্থিতি ও সরকারের ব্যর্থতার দিকটিই আরেকবার তুলে ধরল বলে মত ওয়াকিবহাল মহলের।

    পরিস্থিতি এমন দাঁড়িয়েছে, গুজরাতের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের করেছে সে রাজ্যের হাইকোর্ট। গুজরাত হাইকোর্টের পর্যবেক্ষণ, রাজ্যের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা জরুরি পরিস্থিতির দিকে এগোচ্ছে। মৌখিক নির্দেশে হাইকোর্টের মুখ্য বিচারপতি বিক্রম নাথ নির্দেশ দিয়েছেন, '‌রাজ্যে অনিয়ন্ত্রিত করোনা পরিস্থিতি এবং করোনা মোকাবিলায় গাফিলতি’‌ এই মর্মে নতুনভাবে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা দায়ের করতে হবে। এরপর ফের মামলা দায়ের হয়। করোনা পরিস্থিতি নিয়ে এ ধরনের জনস্বার্থ মামলা গুজরাতে দ্বিতীয়বার দায়ের করা হল।

    Published by:Suman Biswas
    First published:
    0