corona virus btn
corona virus btn
Loading

হাত-পা বেঁধে রাতভর পাশবিক অত্যাচার! কোয়ারেন্টাইনে থাকা মহিলাকে ধর্ষণ করল খোদ স্বাস্থ্যকর্মী

হাত-পা বেঁধে রাতভর পাশবিক অত্যাচার! কোয়ারেন্টাইনে থাকা মহিলাকে ধর্ষণ করল খোদ স্বাস্থ্যকর্মী
Representative Image

কোয়ারেন্টাইনে থাকা মহিলাকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠল খোদ স্বাস্থ্যকর্মীর বিরুদ্ধে

  • Share this:

#তিরুঅনন্তপুরম: কোয়ারেন্টাইনে থাকা মহিলাকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠল খোদ স্বাস্থ্যকর্মীর বিরুদ্ধে! অভিযুক্ত একটি প্রাইমারি হেলথ সেন্টারের জুনিয়র হেলথ ইনসপেক্টর। বছর ৪৪-এর ওই নির্জাতিতার অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার অভিযুক্ত স্বাস্থ্যকর্মীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ধৃতের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৬ (ধর্ষণ) ধারায় এফআইআর দায়ের হয়েছে।

এই পাশবিক ঘটনাটি সামনে আসার ঠিক আগের দিন, শনিবারও বিকৃতকাম মস্তিষ্কের যৌন লালসার শিকার হয় এক তরুণী! ঘটনাস্থল আবারও কেরল। কোভিড কেয়ার সেন্টারে নিয়ে যাওয়ার সময় শনিবার মধ্যরাতে বছর ১৯-এর এক যুবতীকে ধর্ষণ করার অভিযোগ ওঠে অ্যাম্বুল্যান্স চালকের বিরুদ্ধে। কেরালার পথনমথিট্টা জেলার পন্ডলমের এই ঘটনার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে সোমবার দ্বিতীয় ধর্ষণের অভিযোগটি দায়ের হয়েছে পানগোড থানায়।

পানগোড থানার অফিসার জানিয়েছেন, মালাপ্পুরামে একজনের বাড়িতে আয়ার কাজ করেন নিগৃহীতা। সম্প্রতি কুলাথুপুঝায় নিজের বাড়ি ফেরার পর কোভিড প্রোটোকল মেনে কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন। অ্যান্টিজেন পরীক্ষায় মহিলার রিপোর্ট কোভিড নেগেটিভ আসে। জানা যায়, অভিযুক্ত স্বাস্থ্যকর্মী মহিলাকে বলেন বারাথানুড়ে তার বাড়ি থেকে রিপোর্টটি সংগ্রহ করতে।

পুলিশের কাছে দায়ের করা অভিযোগে নির্জাতিতা জানান, ৩ সেপ্টেম্বর অভিযুক্তর বাড়িতে যান তিনি। ফাঁকা ফ্ল্যাটে আচমাকি তার উপর চড়াও হয় ওই স্বাস্থ্যকর্মী! হাত-পা বেঁধে রাতভর তাঁকে রেখে দেওয়া হয়, সেই অবস্থাতেই চলতে থাকে লাগাতার ধর্ষণ।

ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর, মহিলা কমিশনও পৃথক ভাবে ওই স্বাস্থ্য কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা নথিভুক্ত করেছে। অভিযুক্ত হেলথ ইনস্পেক্টরের বিরুদ্ধে কড়া শাস্তিমূলক পদক্ষেপ করারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কেরালার স্বাস্থ্য সচিবকে।

কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে দুটি ধর্ষণের ঘটনা সামনে আসায় কেরালা বিধানসভার বিরোধী দলনেতা রমেশ চেন্নিথালা বলেন, রাজ্যের জন্য এই দু'টি ঘটনা অত্যন্ত লজ্জার। তাঁর অভিযোগ, রাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগে যে ত্রুটি রয়েছে তা এই দুটি ঘটনাই প্রমাণ করে!

Published by: Rukmini Mazumder
First published: September 8, 2020, 12:13 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर