corona virus btn
corona virus btn
Loading

২৪ ঘণ্টায় ৫০০-র বেশি নতুন আক্রান্ত, লকডাউন বাড়ানোর পক্ষে বহু রাজ্য

২৪ ঘণ্টায় ৫০০-র বেশি নতুন আক্রান্ত, লকডাউন বাড়ানোর পক্ষে বহু রাজ্য
Lockdown

লকডাউন বাড়ার পক্ষে একাধিক রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সওয়াল

  • Share this:

#নয়াদিল্লিঃ ১৪ এপ্রিল কি লকডাউন শেষ হবে? নাকি লকডাউনের মেয়াদ বাড়বে? গোটা দেশের প্রশ্ন এখন একটাই। এখনও পর্যন্ত বিভিন্ন সূত্রে যা ইঙ্গিত, তাতে লকডাউন বাড়ার সম্ভাবনা প্রবল।

করোনা যুদ্ধে হাতিয়ার লকডাউনই। গোষ্ঠী সংক্রমণ রুখতে লকডাউনই একমাত্র পথ। করোনা রুখতে দেশে তাই ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন চলছে। এরমধ্যেই করোনায় সংক্রমণের সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে। ২৪ ঘণ্টায় ৫০০-র বেশি নতুন আক্রান্ত। তাই এখন একটাই প্রশ্ন, চোদ্দই এপ্রিলের পরও কি লকডাউন চলবে? কেন্দ্র সরকার স্পষ্ট করে কিছু বলেনি। তবে সোমবার দলীয় এক অনুষ্ঠানে মোদির কথায় লকডাউন বাড়ার ইঙ্গিত মিলেছে।

সোমবারই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকে লকডাউন নিয়ে আলোচনা হয়। সূত্রের খবর, মন্ত্রীরাও লম্বা লকডাউনের পক্ষেই সওয়াল করেন। লকডাউনের পক্ষেই সওয়াল করেছে উত্তরপ্রদেশ, তেলঙ্গানা, কর্নাটক, মহারাষ্ট্র, রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ, পঞ্জাব। সূত্রের খবর, এমনকী প্রধানমন্ত্রীও এখনই লকডাউন তুলতে চাইছেন না। মঙ্গলবার রাজনাথ সিংয়ের নেতৃত্বে মন্ত্রিগোষ্ঠীর বৈঠক হয়। লকডাউন বাড়লে পরিস্থিতি মোকাবিলা কীভাবে? বৈঠকে তা নিয়ে আলোচনা হয়। একাধিক রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীও লকডাউন বাড়ানোর সওয়াল করেছেন।

লকডাউন প্রত্যাহার নিয়ে তাড়াহুড়ো করতে চায় না কেন্দ্রও। করোনার সঙ্গে লড়াইয়ে ভারতের জনসংখ্যা ও দুর্বল স্বাস্থ্য পরিকাঠামোই চিন্তা বাড়িয়েছে বিশেষজ্ঞদের। তথ্য বলছে, ভারতে প্রতি বর্গ কিলোমিটারে জনঘনত্ব- ৫০৪, পশ্চিমবঙ্গে প্রতি বর্গ কিলোমিটারে জনঘনত্ব- ১০২৪ আর কলকাতায় প্রতি বর্গ কিলোমিটারে জনঘনত্ব- ২৪, ১০০। ভারতে হাসপাতালে প্রতি হাজারে বেড ০.৫০, প্রতি লক্ষে হাসপাতালে ক্রিটিকাল কেয়ার বেড ৫.২০ আর প্রতি লক্ষে হাসপাতালে ভেন্টিলেটর ৩.৬১।

অর্থাৎ করোনা মোকাবিলায় লকডাউন বাড়িয়ে সামাজিক সংক্রমণ রুখে দেওয়াই একমাত্র পথ। বিশেষজ্ঞরাও তাই লকডাউন বাড়ানোর পক্ষেই মত দিচ্ছেন।

First published: April 8, 2020, 9:27 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर