corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির হারে ফের রেকর্ড ! গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ৮,৩৯২, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫,৩৯৪

করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির হারে ফের রেকর্ড ! গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ৮,৩৯২, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫,৩৯৪

করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের মোট সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১ লক্ষ ৯০ হাজার ৫৩৫ জন

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। লকডাউনের দু মাস অতিক্রান্ত হওয়ার পরেও দেশজুড়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় লাগাম টানা যায়নি। পাশাপাশি বেড়েছে মৃত্যুর সংখ্যাও। আর সেই সঙ্গে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ভয় জাঁকিয়ে বসছে ভারতের বুকে। স্বাস্থ্যমন্ত্রকের হিসেবে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ৮,৩৯২ জন। এটি এখনও পর্যন্ত একদিনে রেকর্ড বৃদ্ধি। রোজই এই ভাইরাস নিজের রেকর্ড নিজে ভাঙছে। এই বৃদ্ধির জেরে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের মোট সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১ লক্ষ ৯০ হাজার ৫৩৫ জন। বিশ্ব সংক্রমণের নিরিখে ভারত রয়েছে সপ্তম স্থানে। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে আরও ২৩০ জনের। এর জেরে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৫,৩৯৪। এখনও পর্যন্ত করোনায় সুস্থ হয়েছেন ৯১ হাজার ৮১৮। ইতিমধ্যেই করোনায় মৃত্যুতে চিনকেও ছাপিয়ে গিয়েছে ভারত। সেই সঙ্গেই এশিয়ার মধ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যার নিরিখে শীর্ষস্থানে রয়েছে ভারত।

দেশের মধ্যে সব থেকে উদ্বেগজনক জায়গা হচ্ছে মহারাষ্ট্র, গুজরাত, তামিলনাডু ও দিল্লি ৷ সরকারি হিসেবে মহারাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা ৬৭ হাজার ৬৫৫ আর মৃত্যু হয়েছে ২,২৮৬ জনের৷ আক্রান্তের সংখায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে তামিলনাড়ু। সেখানে এখনও মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২২,৩৩৩ আর মৃত্যু হয়েছে ১৭৩ জনের। এর পরেই রয়েছে দিল্লি, এ রাজ্যে আক্রান্ত ১৯ হাজার ৮৪৪ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ৪৭৩ জনের। গুজরাতে আক্রান্তের সংখ্যা ১৬,৭৭৯ আর মৃত্যু হয়েছে ১,০৩৮ জনের।

রাজস্থানে সংক্রমিত হয়েছেন ৮,৮৩১ জন। মৃত্যু হয়েছে ১৯৪ জনের। মধ্যপ্রদেশে সংক্রমিত হয়েছেন ৮,০৮৯ জন। সেখানে মৃত্যু হয়েছে ৩৫০ জনের। উত্তরপ্রদেশে ৭,৮২৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ২১৩ জনের। পশ্চিমবঙ্গে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা পাঁচ হাজার ছাড়াল। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫ হাজার ৫০১ জন। এর মধ্যে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ৩হাজার ২৭জন। মৃত্যু হয়েছে ২৪৫ জনের। কো-মর্বিডিটির কারণে মৃত আরও ৭২ জন।

আজ থেকে আনলক ওয়ান। ধাপে ধাপে খুলছে তালা। কন্টেইনমেন্ট জোন বাদে সর্বত্রই প্রায় পরিষেবাতেই ছাড়। শুরু জনজীবন স্বাভাবিক করার প্রক্রিয়া। মানতে যাবতীয় সুরক্ষাবিধি।

Published by: Ananya Chakraborty
First published: June 1, 2020, 9:52 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर