Coronavirus| ৫০০-র পথে করোনা-আক্রান্ত! সম্পূর্ণ লকডাউনের পথে গোটা দেশ

Coronavirus| ৫০০-র পথে করোনা-আক্রান্ত! সম্পূর্ণ লকডাউনের পথে গোটা দেশ
করোনা বাড়ছে দেশে

সোমবার পশ্চিমবঙ্গ ও হিমাচলপ্রদেশে একজন করে করোনায় মারা গিয়েছেন৷ গুজরাত, বিহার, মহারাষ্ট্র, কর্ণাটক, দিল্লি ও পঞ্জাবেও মৃত্যু হয়েছে করোনায়৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৯ জনের৷ সোমবার রাতেই ৪৯২ ছুঁয়ে ফেলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা৷ পরিস্থিতি যে দিকে এগোচ্ছে, আক্রান্ত ৫০০ ছোঁয়া সময়ের অপেক্ষা৷ যার নির্যাস, সম্পূর্ণ লকডাউনের পথে গোটা ভারত৷ ইতিমধ্যেই সব অন্তর্দেশীয় বিমান বাতিল করা হয়েছে৷ শুধু কার্গো বিমানে ছাড় দেওয়া হয়েছে৷

সোমবার পশ্চিমবঙ্গ ও হিমাচলপ্রদেশে একজন করে করোনায় মারা গিয়েছেন৷ গুজরাত, বিহার, মহারাষ্ট্র, কর্ণাটক, দিল্লি ও পঞ্জাবেও মৃত্যু হয়েছে করোনায়৷ সব মিলিয়ে ৯ জনের মৃত্যু৷ এ হেন পরিস্থিতিতে ১৩০ কোটির দেশে করোনাকে থামাতে কেন্দ্র ও রাজ্যগুলি একযোগে লড়াই করছে৷ দেশের ৫৪৮টি জেলা সম্পূর্ণ ভাবে লকডাউন৷ এর মধ্যে মহারাষ্ট্র ও পঞ্জাবে রাজ্যজুড়ে কারফিউ৷

সম্পূর্ণ লকডাউন হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ, দিল্লি, মহারাষ্ট্র, কর্নাটক, পঞ্জাব, অন্ধ্রপ্রদেশ, গুজরাত, অসম, ত্রিপুরা, গোয়া, নাগাল্যান্ড, মণিপুর, ঝাড়খণ্ড, অরুণাচলপ্রদেশ, মেঘালয়, বিহার, উত্তরাখণ্ড, জম্মু-কাশ্মীর, চণ্ডীগড়, লাদাখ, দমন-দিউ, দাদরা ও নগর হাভেলি, পুদুচেরি ও আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ৷

আংশিক ভাবে লকডাউন হয়েছে উত্তরপ্রদেশ (১৭টি জেলা), মধ্যপ্রদেশ (৩৭টি জেলা), ওডিশা (৫ জেলা) ও লাক্ষাদ্বীপ৷ একমাত্র সিকিম ও মিজোরাম এখনও কোনও কড়া সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেনি৷

পঞ্জাবই প্রথম রাজ্য, যারা কারফিউ ঘোষণা করেছে৷ জরুরি পরিষেবা ছাড়া সব বন্ধ৷ এরপর সোমবার মধ্যরাতে কারফিউ ঘোষণা করে মহারাষ্ট্র সরকার৷

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ইতিমধ্যেই ট্যুইটারে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, অনেকেই লকডাউন সিরিয়াসলি নিচ্ছেন না৷ রাজ্য সরকারগুলি এ বিষয়টি দেখতে হবে৷ দয়া করে নিজেকে বাঁচান, পরিবারকে বাঁচান৷ নির্দেশগুলি গুরুত্ব দিয়ে অনুসরণ করুন৷ আমি সব রাজ্য সরকারগুলির কাছে অনুরোধ করছি, আইন মেনে চলার বিষয়টি নিশ্চিত করুন৷

দ্য ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্স এখনও পর্যন্ত ২০ হাজার ৭০৭টি নমুনার মধ্যে ১৯ হাজার ৮১৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করেছে৷ করোনা আক্রান্তের বাড়াবাড়ি হলে আইসিএমআর হাইড্রক্সি ক্লোরোকুইন ব্যবহারের প্রস্তাব দিয়েছে৷ এই ওষুধটি ম্যালেরিয়ার৷

First published: March 24, 2020, 7:26 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर