corona virus btn
corona virus btn
Loading

স্কুল ছুটি, কিন্তু বাবা-মায়েরা তো নিয়মিত কাজে বেরচ্ছেন,কীভাবে রুখবে জীবাণু?

স্কুল ছুটি, কিন্তু বাবা-মায়েরা তো নিয়মিত কাজে বেরচ্ছেন,কীভাবে রুখবে জীবাণু?
সংক্রমণ ঠেকাতে, স্টেশনে ঢোকার পরেও সব ধরনের সুরাক্ষবিধি মেনে চলার উপর জোর দিচ্ছে রেল। ট্রেন ছাড়ার ৯০ মিনিট আগে স্টেশনে পৌঁছতে হবে ৷ ট্রেনে ওঠার আগে যাত্রীদের স্বাস্থ্যপরীক্ষা করা হবে ৷মাস্ক পরে ট্রেনে ওঠা বাধ্যতামূলক ৷ সামাজিক দূরত্ব মেনেই বসতে হবে ট্রেনে ৷

রেলযাত্রীরা জানাচ্ছেন বাধ্য হয়েই তাদের ভিড় ট্রেনে যাতায়াত করতে হচ্ছে। তার মধ্যেই তাদের বিনীত আবেদন, রেল দফতর যদি ট্রেনগুলি নিয়মিত শোধন করে, তাহলেও বেশ কিছুটা নিরাপদ বোধ করবেন তারা।

  • Share this:

#কলকাতা: করোনা ভাইরাস আতঙ্কের জেরে রাজ্যের স্কুল কলেজ ও অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আর সেই জায়গা থেকেই প্রশ্ন উঠছে, ছাত্রছাত্রীরা বাড়িতে থাকলেও তাদের অভিভাবকদের রুজি-রুটির টানে বাড়ির বাইরে কর্মস্থলের উদ্দেশ্যে যেতে হচ্ছে। কেউ যাচ্ছেন বাসে, অটোয়ে করে আর কেউ বা ট্রেনে চেপে।

শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার ট্রেনগুলি দেখলে মনে হবে না নোভেল করোনা ভাইরাস নিয়ে রেলযাত্রীরা আদৌ সতর্ক আছেন কিনা। যদিও হাতেগোনা কিছু রেলযাত্রি সতর্কতা অবলম্বন করছেন মুখে মাস্ক পরে। কিন্তু বেশিরভাগ রেলযাত্রি ট্রেনে বেশ কিছুটা আতঙ্কের মধ্যে জীবিকা নির্বাহের উদ্দেশ্যে যাতায়াত করছেন। যেখানে বলা হচ্ছে সংক্রমণ এড়াতে সামনের মানুষ থেকে ১ মিটার দূরত্ব বজায় রাখার কথা, মানে প্রায় ৩ ফুট। সেখানে ট্রেনের মধ্যে কোনও কোনও ক্ষেত্রে এক ইঞ্চি ও একটা মানুষের সাথে আর একটা মানুষের দূরত্ব রাখা সম্ভব হচ্ছে না। তাই কিছুটা হলেও আক্ষেপের সুর রেলযাত্রীদের গলায়।

রেলযাত্রীরা জানাচ্ছেন বাধ্য হয়েই তাদের ভিড় ট্রেনে যাতায়াত করতে হচ্ছে। তার মধ্যেই তাদের বিনীত আবেদন, রেল দফতর যদি ট্রেনগুলি নিয়মিত শোধন করে, তাহলেও বেশ কিছুটা নিরাপদ বোধ করবেন তারা।

Published by: Pooja Basu
First published: March 18, 2020, 4:33 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर