দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

বিদেশিদের জন্য ফের খুলছে ভারত, তবে পর্যটকে এখনও না

বিদেশিদের জন্য ফের খুলছে ভারত, তবে পর্যটকে এখনও না
Representational Image

অতিমারী পরিস্থিতিতে প্রায় আট মাস বিদেশিদের যাতায়াতের উপরে বিধিনিষেধ থাকার পরে তা শিথিল করার সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।

  • Share this:

#কলকাতা: কোভিড পরিস্থিতির মধ্যেই ফের বিদেশিদের এ দেশে আনাগোনা করার অনুমতি দেওয়া হবে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে বিদেশিদের জন্য ভিসার নিয়ম শিথিল করলেও এখনও অনুমতি দেওয়া হবে না পর্যটকদের। তবে নিয়ম শুধুমাত্র বিদেশিদের জন্য শিথিল হয়নি, ওসিআই-দের জন্যও ভিসা নিয়ম একই ভাবে শিথিল করা হয়েছে।

অতিমারী পরিস্থিতিতে প্রায় আট মাস বিদেশিদের যাতায়াতের উপরে বিধিনিষেধ থাকার পরে তা শিথিল করার সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। কোভিড প্রকোপের কারণে গত ২৩ মার্চ সব রকম বিদেশি আনাগোনা বন্ধ করে দিয়েছিল ভারত সরকার। ২৫ মে থেকে বিশেষ বিশেষ ক্ষেত্রে তা ফের চালু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। শুধুমাত্র আকাশপথে নয়, নতুন নিয়মে স্থলপথে এবং জলপথেও আসতে পারবেন বিদেশি নাগরিকেরা।

কেন্দ্রীয় সরকারের এমন সিদ্ধান্তে বিভিন্ন শিল্প ক্ষেত্রে ফের লেনদেন বাড়বে বলেই মনে করা হচ্ছে। তবে এর ফলে সবচেয়ে বেশি লাভবান হতে পারে বিমান পরিবহণ এবং হাসপাতাল শিল্প। বিদেশ থেকে আসা রোগীদের সঙ্গীদেরও আসার ব্যাপারে প্রয়োজনীয় অনুমোদন দেওয়া হবে বলে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র দফতরের বিবৃতিতে জানানো হয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র দফতরের এক কর্তার কথায়, "এ দেশে বহু সংখ্যক বিদেশি আসেন এখানে চিকিৎসা করাতে। তাঁদের অনুমতি দেওয়ায় মেডিক্যাল শিল্পে ফের মন্দা কাটার আশা রয়েছে। তবে ভিসা নিয়ম শিথিল করায় বিমান পরিবহণ শিল্প বিপুল পরিমাণে লাভবান হবে।" নতুন নিয়মে পড়াশোনা, গবেষণা, কনফারেন্স, ব্যবসা, চাকরি এবং চিকিৎসা সংক্রান্ত বিষয়ে ভিসা পাবেন ভারতে আসতে চাওয়া বিদেশিরা।

তবে ভিসার নিয়ম শিথিল করা হয়েছে বলেই যে কেউ ভারতে ঢুকে পড়তে পারবেন, এমনটা নয়। বিদেশি যাঁরা এ দেশে ঢুকবেন, তাঁদের স্বাস্থ্য মন্ত্রকের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। প্রয়োজনে নির্দিষ্ট সময় কোয়ারান্টিনেও থাকতে হতে পারে। কোভিড পরীক্ষার রিপোর্ট সংক্রান্ত নির্দিষ্ট নির্দেশিকা মেনে চলতে হবে।

শালিনী দত্ত

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: October 22, 2020, 7:56 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर