দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

১৫ বছরেই মেয়েদের প্রজনন ক্ষমতা আসে! বিয়ের বয়স নিয়ে মন্তব্য করে বিতর্কে কংগ্রেস নেতা

১৫ বছরেই মেয়েদের প্রজনন ক্ষমতা আসে! বিয়ের বয়স নিয়ে মন্তব্য করে বিতর্কে কংগ্রেস নেতা

কেন্দ্রীয় সরকার মেয়েদের বিয়ের বয়স ১৮ থেকে বাড়িয়ে ২১ বছর করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা ভাবছে। আর সেই প্রসঙ্গেই এই মন্তব্য করে বিপাকে পড়েছেন কংগ্রেস নেতা। জাতীয় শিশুরক্ষা কমিশন তাঁর বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে।

  • Share this:

#ভোপাল: "১৫ বছর বয়সেই মেয়েদের প্রজনন ক্ষমতা চলে এলে আর বিয়ের বয়স বাড়ানোর প্রয়োজন কী?" এমনই মন্তব্য করে বিতর্কে জড়িয়েছেন কংগ্রেস নেতা সজ্জন সিং ভার্মা। কেন্দ্রীয় সরকার মেয়েদের বিয়ের বয়স ১৮ থেকে বাড়িয়ে ২১ বছর করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা ভাবছে। আর সেই প্রসঙ্গেই এই মন্তব্য করে বিপাকে পড়েছেন কংগ্রেস নেতা। জাতীয় শিশুরক্ষা কমিশন তাঁর বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে।

সজ্জন সিং ভার্মা বিয়ের বয়স বৃদ্ধি নিয়ে কথা বলতে গিয়ে বলেন, "চিকিৎসকদের মতে ১৫ বছর বয়সেই মেয়েদের প্রজনন ক্ষমতা তৈরি হয়ে যায়। তা হলে বিয়ের বয়স বাড়ানোর দরকার কী?"

সম্প্রতি মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান জানান মেয়েদের বিয়ের বয়স ১৮ থেকে বাড়িয়ে ২১ করা উচিত। তিনি বলেন, "আমার মনে হয় মেয়েদের বিয়ের বয়স বাড়িয়ে ১৮ থেকে ২১ বছর করা উচিত।" গত বছর স্বাধীনতা দিবসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও ঘোষণা করেছিলেন মেয়েদের বিয়ের বয়সের বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করা হবে।

সজ্জন সিং ভার্মা তাই মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীকেও বিঁধে বলেছেন, "শিবরাজ সিং চৌহান কি একজন চিকিৎসক বা বিজ্ঞানী? তাই বিয়ের বয়স বাড়ানোর পিছনে কী যুক্তি রয়েছে? নাবালিকাদের ধর্ষণের দিক থেকে সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে মধ্যপ্রদেশ। সেই দিকে নজর না দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী রাজনীতি করছেন।"

তবে সজ্জনের এই মন্তব্যের জেরে শিশুরক্ষা কমিশন কংগ্রেস নেতার বিরুদ্ধে নোটিশ জারি করেছেন। দুদিনের মধ্যে এই বিতর্কিত মন্তব্য নিয়ে তাঁকে যথাযথ যুক্তি দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বিজেপির তরফ থেকেও সজ্জনকে ক্ষমা চাইতে বলা হয়েছে এই মন্তব্যের জন্য। বিজেপি মুখপাত্র রাহুল কোঠারি বলছেন এই মন্তব্য দেশের সমস্ত মেয়েদের জন্য অপমানজনক।

Published by: Swaralipi Dasgupta
First published: January 14, 2021, 5:08 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर