Home /News /national /
Coal crisis: আরও বাড়বে বিদ্যুৎ সঙ্কট, বাতিল হতে পারে আরও যাত্রীবাহী ট্রেন

Coal crisis: আরও বাড়বে বিদ্যুৎ সঙ্কট, বাতিল হতে পারে আরও যাত্রীবাহী ট্রেন

কয়লার জোগান বাড়ানোর চেষ্টা করছে রেল৷

কয়লার জোগান বাড়ানোর চেষ্টা করছে রেল৷

পূর্ব রেলের মাধ্যমে ১২টি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে কয়লা সরবরাহ করা হয়। এই ১২টি বিদ্যুৎ কেন্দ্র ১৩ হাজার ৩৯০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন।

  • Share this:

#কলকাতা: চলতি মাসে দেশজুড়ে আরও বাড়তে পারে বিদ্যুৎ সংকট। কয়লা পরিবহণের জন্য আরও বেশ কিছু যাত্রীবাহী ট্রেন বাতিল হতে চলেছে।পূর্ব রেলের আট জোড়া ট্রেন বাতিল হতে চলেছে।কলকাতা-বিকানের, শিয়ালদহ-আনন্দবিহার, শিয়ালদহ-অমৃতসর, কলকাতা-আগ্রা ক্যান্টনমেন্ট এই তালিকায় রয়েছে।দেশ জুড়ে ১০৮০ ট্রেনের ট্রিপ বাতিল ইতিমধ্যেই।

পূর্ব রেলের মাধ্যমে ১২টি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে কয়লা সরবরাহ করা হয়। এই ১২টি বিদ্যুৎ কেন্দ্র ১৩ হাজার ৩৯০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন। প্রতিদিন এই অংশে ৪০টি করে রেক চলাচল করে। এই ১২টি হল এনটিপিসি৷

আরও পড়ুন: এই প্রথম! যাত্রী পরিষেবার সব সুবিধে-সহ বাতাসের গতিতে ছুটবে বিলাসবহুল ট্রেন! দেশের কোথায়, জানুন

সিইএসসি,  ডব্লিউবিপিডিসিএল, ডিভিসি-কে প্রতি রেকে ৩৮৫০ মেট্রিক টন কয়লা সরবরাহ করা হয়।বর্তমানে চাহিদার জন্য দু'টি করে রেক বাড়ছে। চলতি মাসে দেশজুড়ে আরও বাড়তে পারে বিদ্যুৎ সঙ্কট। সূত্রের খবর, এর ফলে কয়লা পরিবহণের জন্য আরও বেশ কিছু যাত্রীবাহী ট্রেন বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ।

গত পরশু দিন উত্তর রেলওয়ের ৮টি যাত্রীবাহী ট্রেন বাতিল করা হয়েছে। রেল সূত্রে খবর, ওই জায়গায় মালগাড়ি চালানো হবে। এই নিয়ে উত্তর রেলওয়ের ৪০টি ট্রেন বাতিল হল।  কয়লা পরিবহণের  জন্য আরও বেশ কিছু যাত্রীবাহী ট্রেন বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন: আকাশে অশনি সঙ্কেত!‘অশনি’ শব্দের অর্থ কী? আগামী কিছু ঘূর্ণিঝড়ের নাম জানেন?

২৪ মে পর্যন্ত প্রায় ১১০০ ট্রেন যাত্রা বাতিল। মেল এক্সপ্রেসের  ৫০০টি সফর ও প্যাসেঞ্জার ট্রেনের  ৫৮০টি সফর বাতিল করা হয়েছে। অন্যদিকে ধর্মঘট-সহ বিভিন্ন কারণে বহু খনিতে খনন কাজ ব্যাহত হচ্ছে। তার ফলে দেশজুড়ে কয়লা সঙ্কট আরও বেড়েছে।উত্তর-পশ্চিম ও দক্ষিণ ভারতে কয়লার ঘাটতি এই মুহূর্তে এমন জায়গায় পৌঁছেছে যে একাধিক জায়গায় কার্যত বাধ্য হয়ে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে রাখতে হচ্ছে।

প্রাথমিকভাবে সেই ঘাটতি মেটানোর লক্ষ্য নিয়ে বেশ কিছু যাত্রীবাহি ট্রেন  বাতিল করা হয়। তার জায়গায় চালানো হয় কয়লাবাহী ট্রেন। বিদ্যুৎ ঘাটতি মেটানোর যে চেষ্টার পরও দেখা যাচ্ছে চলতি মে মাসে দেশজুড়ে বিদ্যুৎ সঙ্কট আরও বাড়তে পারে। সেটা সামাল দিতেই যেভাবেই হোক কয়লা পৌঁছতে বাতিল করা হচ্ছে যাত্রীবাহী ট্রেন৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

পরবর্তী খবর