corona virus btn
corona virus btn
Loading

Citizenship Amendment Bill: রাজ্যসভাতেও পাস হয়ে গেল নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল

Citizenship Amendment Bill: রাজ্যসভাতেও পাস হয়ে গেল নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল
অমিত শাহ

বিলটি সিলেক্ট কমিটিতে পাঠানো হবে কি না, তা নিয়ে ভোটাভুটি হয়৷ রাজ্যসভার ভোটাভুটিতে বিলটি সিলেক্ট কমিটিতে না পাঠানোর পক্ষে ভোট পড়ে বেশি৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: দেশজুড়ে বিতর্কের আবহেই রাজ্যসভায় পাস হয়ে গেল নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল৷ সোমবার বিলটি লোকসভায় পাস হয়ে গিয়েছে৷ এ বার পরীক্ষা ছিল রাজ্যসভায়৷ সেখানেও শেষ হাসি হাসলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ৷ বুধবার দিনভর রাজ্যসভায় বিতর্ক-বিবাদের পরে শেষ পর্যন্ত নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস সংসদে৷ ভোটাভুটিতে অংশ নিল না শিবসেনা৷ বিলের পক্ষে ভোট পড়ল ১২৫, বিপক্ষে ১০৫টি ভোট৷ ৮ ঘণ্টার বেশি সময় ধরে বিতর্কের পর পাস হয়ে গেল বিলটি৷

রাজ্যসভায় মোট আসন ২৪৫। ফাঁকা ছিল পাঁচটি আসন। ফলে বিল পাস করাতে বিজেপির দরকার ছিল ১২১। এর মধ্যে রাজ্যসভায় বিজেপির সাংসদ ৮৩।

বিলটি সিলেক্ট কমিটিতে পাঠানো হবে কি না, তা নিয়ে ভোটাভুটি হয়৷ রাজ্যসভার ভোটাভুটিতে বিলটি সিলেক্ট কমিটিতে না পাঠানোর পক্ষে ভোট পড়ে বেশি৷ প্রস্তাবের পক্ষে ছিলেন ৯৯, বিপক্ষে ১ জন ও ১২৪ জন সিলেক্ট কমিটিতে না পাঠানোর পক্ষে ভোট দেন৷ খারিজ হয়ে যায় তৃণমূল কংগ্রেসের আনা সংশোধনীও৷

বিরোধীদের কটাক্ষ করে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন, 'বিলে ৬টি ধর্মের কথা বলা হয়েছে৷ কিন্তু বিরোধীরা একটি ধর্ম নিয়ে ভাবছেন৷ ভারত কোনও দিনই মুসলিম-মুক্ত দেশ হবে না৷ দেশভাগের সময় কেন চুপ ছিল কংগ্রেস? বাংলাদেশ, পাকিস্তানে আক্রান্ত সংখ্যালঘুরা৷' বিরোধীদের বক্তব্য, নাগরিকত্ব বিলের সাহায্যে ধর্মের ভিত্তিতে নাগরিকত্ব দেওয়ার ব্যবস্থা করছে সরকার৷ কংগ্রেস নেতা গুলাম নবি আজাদ বলেন, 'দেশে যখন অর্থনীতি বিপন্ন৷ কৃষকরা ফসলের দাম না পেয়ে আত্মহত্যা করছেন, তখন বিজেপি সবার নজর ঘোরাতে নাগরিকত্ব বিল, এনআরসি ইস্যুকে কাজে লাগাচ্ছে৷'  

অন্যদিকে নাগরিকত্ব বিলের বিরোধিতায় আগুন জ্বলছে উত্তর-পূর্ব ভারতে৷ জম্মু-কাশ্মীরের পরিস্থিতি সম্পূর্ণ স্বাভাবিক হয়েছে কি না স্পষ্ট নয়, যদিও সরকার দাবি করছে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক উপত্যকায়৷ এ হেন পরিস্থিতিতে কাশ্মীর থেকে সেনা তুলে কেন্দ্র পাঠাল উত্তর-পূর্ব ভারতে৷ নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের বিরোধিতায় জ্বলছে উত্তর-পূর্ব ভারত৷ পরিস্থিতি সামল দিতে ৫ হাজার আধাসামরিক বাহিনী উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলিতে মোতায়েন করল কেন্দ্র৷

৭ কোম্পানি সিআরপিএফ জওয়ান মণিপুর পাঠিয়েছে কেন্দ্র৷ অসমে ১২ থেকে ১৩ ডিসেম্বর রেল রোকো অভিযান৷ ১২টি ট্রেন বাতিলের সিদ্ধান্ত নিল রেল৷ ১০টি ট্রেনের যাত্রাপথ বদল করা হয়েছে৷ বাতিল কলকাতা-ডিব্রুগড় এক্সপ্রেস৷ ডিব্রুগড়-হাওড়া কামরূপ এক্সপ্রেস বাতিল, নাহারলাগুন-গুয়াহাটি শতাব্দি এক্সপ্রেসও বাতিল করা হয়েছে৷

First published: December 12, 2019, 7:59 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर