রাষ্ট্রসংঘের সনদ অনুযায়ী কাশ্মীর সমস্যার সমাধান হওয়া উচিত, কাশ্মীর নিয়ে মত চিনের

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Oct 11, 2019 12:15 PM IST
রাষ্ট্রসংঘের সনদ অনুযায়ী কাশ্মীর সমস্যার সমাধান হওয়া উচিত, কাশ্মীর নিয়ে মত চিনের
Photo Collected
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Oct 11, 2019 12:15 PM IST

#নয়াদিল্লি: ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই ফের ভোলবদল। কমিউনিষ্ট চিনের বক্তব্য, রাষ্ট্রসংঘের সনদ অনুযায়ী কাশ্মীর সমস্যার সমাধান হওয়া উচিত। ৩৭০ ধারা ওঠার পর কাশ্মীরের পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছে জিনপিং প্রশাসন। এই অবস্থানে চিনের প্রেসিডেন্টের ভারত সফরের ঠিক আগে অস্বস্তিতে মোদি সরকার। শুক্রবার ভারত সফরে আসছেন চিনের প্রেসিডেন্ট। তার ঠিক আগে কাশ্মীর নিয়ে চাপ বাড়াল চিন। বেজিংয়ে ইমরান-জিনপিং বৈঠকের পর যৌথ ঘোষণাপত্রে বলা হয়,জম্মু ও কাশ্মীর ঐতিহাসিক সমস্যা। চিন কাশ্মীর পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছে৷

ঘোষণাপত্রে আরও বলা হয়,কাশ্মীর নিয়ে হঠকারি পদক্ষেপ কাম্য নয়। রাষ্ট্রসংঘের সনদ মেনে কাশ্মীর সমস্যার সমাধান হওয়া উচিত৷ উপত্যকায় ৩৭০ ধারা ওঠার পর চিনের উদ্যোগে কাশ্মীর নিয়ে বিশেষ বৈঠক ডাকে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ। পাকিস্তানের পাশে দাঁড়াতে যা মরিয়া চেষ্টা বলেই মনে করা হয়েছিল। জম্মু-কাশ্মীর যে দ্বিপাক্ষিক বিষয়, বুধবার তা মেনে নিয়ে বিবৃতি দেয় চিনের বিদেশমন্ত্রক । বরাবরের মতো এনিয়েও না অবস্থান বদল করল জিনপিং প্রশাসন। যা নিয়ে মোদি সরকারকে তুলোধোনা করেছে কংগ্রেস।

কংগ্রেস নেতা মণীশ তিওয়ারির টুইটে লেখেন, চিন কাশ্মীরে নজর রাখার কথা বলছে। কেন্দ্র কেন বলছে না যে আমরাও হংকং ও তিব্বতে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ওপর নজর রাখছি। দক্ষিণ চিন সাগরের ওপর নজর রাখছি। কেন তা বলছে না বিদেশমন্ত্রক? অস্বস্তির মুখে তাই পুরনো অবস্থানই তুলে ধরছে বিদেশমন্ত্রক। তাদের বিবৃতিতে জানানো হয় যে কাশ্মীর নিয়ে ভারতের অবস্থান গোটা বিশ্বে স্বীকৃত। ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে অন্য কোনও দেশের মন্তব্য করা উচিত নয়৷ শুক্রবার থেকে ৩৬ ঘণ্টা ভারত সফরে থাকবেন চিনের প্রেসিডেন্ট। মহাবলীপুরমে হবে মোদি - জিনপিং বৈঠক। ইনফর্মাল এই বৈঠকেও কূটনৈতিক সমাধানসূত্র বেরবো, তেমন আশা অন্তত দেখা যাচ্ছে না।

First published: 11:28:08 AM Oct 11, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर