corona virus btn
corona virus btn
Loading

লাদাখে কমল উত্তেজনা, আগ্রাসী অবস্থান ছেড়ে পিছু হটল চিনা বাহিনী

লাদাখে কমল উত্তেজনা, আগ্রাসী অবস্থান ছেড়ে পিছু হটল চিনা বাহিনী
প্রতীকী ছবি৷

গত প্রায় এক মাস ধরে লাদাখে ভারত এবং চিনের সামরিক বাহিনীর মধ্যে প্রকৃত নিয়ন্ত্ররেখা বরাবর এলাকায় উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে পরিস্থিতি৷

  • Share this:

#লাদাখ: প্রায় একমাস ধরে লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর আগ্রাসী অবস্থান বজায় রাখার পর অবশেষে কিছুটা হলেও উত্তেজনা প্রশমনের ইঙ্গিত দিল চিনা সামরিক বাহিনী৷ সংবাদসংস্থার খবর অনুযায়ী, গত তিন চার দিন ধরে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর চিনা সেনাদের কোনও গতিবিধি লক্ষ্য করা যায়নি৷ এমন কী, একটি জায়গায় আগের অবস্থান থেকে চিনের সামরিক বাহিনী প্রায় ১০০ গজ পিছিয়ে গিয়েছে বলেও দাবি করেছে সংবাদসংস্থা৷

গত কয়েকদিন ধরে চিনা সেনাদের গতিবিধির মধ্যে কোনও আগ্রাসী মনোভাব দেখা যায়নি৷ ভারতীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে কোনও উগ্র আচরণও করেনি তারা৷ পূর্ব লাদাখের কাছে চিনের বায়ুসেনার বিমান ওড়া নিয়েও দুই দেশের মধ্যে আলোচনা শুরু হয়েছে৷ প্রসঙ্গত মঙ্গলবারই প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং জানিয়েছিলেন, আলোচনার মাধ্যমেই সমস্যার সমাধানে উদ্যোগী ভারত৷

সূত্রের খবর অনুযায়ী মে মাসের শুরু থেকে এখনও পর্যন্ত দু' দেশের সেনা কর্তাদের মধ্যে অন্তত ১২ বার কথা হয়েছে৷ আগামী ৬ জুন ফের একবার দুই দেশের সামরিক বাহিনীর লেফট্যানেন্ট জেনারেল স্তরের আধিকারিকদের মধ্যে বৈঠক হওয়ার কথা৷ ফলে কথা বলেই সমস্যার সমাধানেই দুই দেশ আগ্রহী বলে মনে করা হচ্ছে৷

প্রায় এক মাস ধরে লাদাখে ভারত এবং চিনের সামরিক বাহিনীর মধ্যে প্রকৃত নিয়ন্ত্ররেখা বরাবর এলাকায় উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে পরিস্থিতি৷ গত ৫ মে চিন এবং ভারতীয় বাহিনীর মধ্যে একপ্রস্ত হাতাহাতি এবং পাথর ছোড়াছুড়ির ঘটনাও ঘটেছিল৷ লাদাখের প্যাংগং সো লেক, গালওয়ান উপত্যকায় প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার ওপারে বিপুল সংখ্যক বাহিনী মোতায়েন করেছে চিন৷ মজুত করা হয়েছে প্রচুর পরিমাণ অস্ত্রশস্ত্র৷ চূড়ান্ত পরিস্থিতির জন্য তৈরি থাকতে ভারতীয় সেনাও একই পথে হেঁটেছিল৷ প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা সংলগ্ন এলাকায় ভারতের রাস্তা এবং পরিকাঠামো নির্মাণ নিয়েই আপত্তি চিনের৷ তা থেকেই সংঘাতের সূত্রপাত৷ আলোচনার মাধ্যমে সেই সমস্যার সমাধান হয় কি না, সেটাই এখন দেখার৷

 
Published by: Debamoy Ghosh
First published: June 4, 2020, 12:35 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर