INX Media Case: চিদম্বরমের জেরা শেষ, এ বার আদালতে তুলছে সিবিআই

INX Media Case: জেরার মাঝেই সময় করে ব্রেকফাস্ট সেরেছেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী৷ দিল্লিতে সিবিআই সদর দফতরে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে৷ সিবিআই-এর গেস্টহাউসের নীচের ঘরে জেরা চলছে৷ আজ দুপুরে চিদম্বরমকে আদালতে পেশ করবে সিবিআই৷

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 22, 2019 02:41 PM IST
INX Media Case: চিদম্বরমের জেরা শেষ, এ বার আদালতে তুলছে সিবিআই
সিবিআই হেফাজতে চিদম্বরম
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Aug 22, 2019 02:41 PM IST

#নয়াদিল্লি: প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীকে গ্রেফতারের পর বৃহস্পতিবার ভোররাত থেকেই কার্যত জেরা শুরু করে দেয় সিবিআই৷  জেরা শেষ করে সিবিআই তাঁকে তুলছে বিশেষ আদালতে৷ আজ টানা ৩ ঘণ্টা ধরে চিদম্বরমকে জেরা করে সিবিআই৷ চিদম্বরমের ১৪ দিনের হেফাজত চাইতে পারে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা৷

দ্বিতীয় দফার জেরায় চিদম্বরমের কাছে সিবিআই জানতে চায়, ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকের বিষয়ে৷ ইন্দ্রাণী ছিলেন INX মিডিয়া গ্রুপের অন্যতম কর্ণধার৷ এ দিকে দিল্লিতে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে সিবিআই-কে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ব্যবহারের অভিযোগে যন্তরমন্তরে ধর্নায় যোগ দিলেন পি চিদম্বরমের ছেলে কার্তি চিদম্বরম৷

Loading...

জেরার মাঝেই সময় করে ব্রেকফাস্ট সেরেছেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী৷ দিল্লিতে সিবিআই সদর দফতরে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে৷ সিবিআই-এর গেস্টহাউসের নীচের ঘরে জেরা চলছে৷ আজ দুপুরে চিদম্বরমকে আদালতে পেশ করবে সিবিআই৷

দিল্লিতে পৌঁছে কার্তি চিদম্বরম বললেন, 'বাবাকে গ্রেফতার সম্পূর্ণ ভাবে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে৷ আসলে কেন্দ্রীয় সরকারের তীব্র সমালোচক আমার বাবা৷ তাঁর মুখ বন্ধ করতেই বিজেপি সরকার সিবিআই-কে ব্যবহার করছে৷'

বুধবার রাতে বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে পি চিদম্বরমকে নিয়ে রাম মনোহর লোহিয়া হাসপাতালে যায় সিবিআই৷ সেখানে মেডিক্যাল পরীক্ষার পর তাঁকে সিবিআই সদর দফতরে নিয়ে যাওয়া হয়৷ ঘটনাচক্রে চিদম্বরম যখন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন, সিবিআই-এর নয়া সদর দফতর বিল্ডিংটি তিনিই উদ্বোধন করেছিলেন৷ সেখান থেকে তাঁকে সিবিআই-এর গেস্টহাউসে রাখা হয়৷ গেস্টহাউসের ৫ নম্বর সুইটে রয়েছেন চিদম্বরম৷ মঙ্গলবার থেকে চদিম্বরমকে খুঁজছিল সিবিআই ও ইডি৷

INX মিডিয়া মামলায় চিদম্বরমের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী থাকাকালীন, INX মিডিয়া কর্তৃপক্ষ বিদেশি বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৩০৫ কোটি টাকা পেয়েছিল। অনুমতি দিয়েছিল ফরেন ইনভেস্টমেন্ট প্রমোশন বোর্ড৷ ওই পরিমাণ অর্থ আইএনএক্স মিডিয়াকে পাইয়ে দিতে কী ভূমিকা ছিল পি চিদাম্বরমের পুত্র কার্তি চিদম্বরমের, তা-ও খতিয়ে দেখছে তদন্তকারীরা। ওই সময় পি চিদম্বরমের সঙ্গে বৈঠকও হয়েছিল ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায় ও পিটার মুখোপাধ্যায়ের।

এই মামলায় ২০১৭ সালের ১৫ মে এফআইআর করে সিবিআই৷ টাকা পাওয়ার ক্ষেত্রে ফরেন ইনভেস্টমেন্ট প্রমোশন বোর্ডের অনুমতি কী ভাবে মিলেছিল, তার তদন্ত করছে সিবিআই৷ আর্থিক তছরুপের তদন্ত করছে ইডি৷ ২০০৭ সালে INX মিডিয়া তৈরির সময় দুই অন্যতম কর্ণধার ছিলেন পিটার মুখোপাধ্যায় ও ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়৷ কার্তি চিদম্বরমের সঙ্গে মিলে অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের অভিযোগে তদন্ত চলছে দু জনের বিরুদ্ধেই৷ এছাড়া মেয়ে সিনা বোরাকে খুনেও মূল অপরাধী ইন্দ্রাণী৷

First published: 10:40:19 AM Aug 22, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर