• হোম
  • »
  • খবর
  • »
  • দেশ
  • »
  • CENTRE IS NOW ALLOWING GLOBAL TENDERS INCLUDING CHINA FOR ALL COVID RELATED MEDICAL SUPPLIES AND VACCINE IN THE BACKDROP OF A NUMBER OF STATES PLANNING TO FLOAT GLOBAL TENDER FOR VACCINES SB

India China Relation: বিপদে দেশ, কোভিড-সরঞ্জাম আমদানিতে চিনের জন্যও দরজা খুলল মোদি সরকার!

বিপদে বন্ধুত্ব

করোনা মহামারীর কবলে পড়ে বিদেশি ত্রাণ নিতে বাধ্য হচ্ছে ভারত। আর সেই সূত্রেই ১৬ বছর আগের ‘ত্রাণ না নেওয়ার’ সিদ্ধান্ত বদলে দিয়েছে ভারত। এবার চিনের থেকে কোভিড-সরঞ্জাম আমদানি করার ক্ষেত্রে 'নিষেধ' তুলে নেওয়া হল।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে (Corona Second Wave) বিপর্যস্ত ভারত। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষের প্রাণহানিতে মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম জনসংখ্যার দেশ ভারত। আর করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে বিশ্বের বহু দেশ ভারতের সাহায্যে এগিয়ে আসছে। আমেরিকা, ব্রিটেন ও ফ্রান্সের মতো দেশ যেমন রয়েছে সেই তালিকায়, তেমনি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে ভারতের 'চিন্তা' চিনও। করোনা মহামারীর কবলে পড়ে বিদেশি ত্রাণ নিতে বাধ্য হচ্ছে ভারত। আর সেই সূত্রেই ১৬ বছর আগের ‘ত্রাণ না নেওয়ার’ সিদ্ধান্ত বদলে দিয়েছে ভারত। এবার চিনের থেকে কোভিড-সরঞ্জাম আমদানি করার ক্ষেত্রে 'নিষেধ' তুলে নেওয়া হল।

    প্রসঙ্গত, সীমান্ত সংঘাত ঘিরে ভারত-চিন দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক তলানিতে এসে দাঁড়িয়েছিল। গত বছর লাদাখে দুই দেশের সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনার পর থেকেই সংঘাত বাড়তে থাকে। চিনের সঙ্গে সমস্ত 'দেওয়া-নেওয়ার' সম্পর্ক চুকিয়ে দিয়েছিল ভারত। কিন্তু পরিস্থিতি এমন দাঁড়িয়েছে, চিনের কাছ থেকেও সাহায্য নেওয়ায় আর আপত্তি নেই বলে জানিয়েছে দিল্লি।

    আর এবার ভ্যাকসিন সহ করোনা মোকাবিলার সমস্ত সরঞ্জাম নানা দেশ এমনকী চিন থেকেও আমদানিতে অনুমতি দিল ভারত সরকার। ইতিমধ্যেই পশ্চিমবঙ্গ সহ নানা রাজ্যের তরফে কেন্দ্রের কাছে করোনা-সরঞ্জামের আমদানির জন্য গ্লোবাল টেন্ডারের জন্য তদ্বির করেছিল। গতকালই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি পাঠান। তাতে তিনি লেখেন, 'দেশের করোনার কঠিন পরিস্থিতিতে ভ্যাকসিনের আকাল চলছে। বাংলার ১০ কোটি ও দেশের ১৪০ কোটি মানুষের জন্য খুব তাড়াতাড়ি ভ্যাকসিন প্রয়োজন। কিন্তু সেই তুলনায় দেশে ভ্যাকসিন নেই বললেই চলে। বিদেশে অনেক সংস্থা ভ্যাকসিন উৎপন্ন করছে। যদি সম্ভব হয়, তাহলে বিদেশের প্রসিদ্ধ সংস্থাগুলির সঙ্গে যোগাযোগ করে ভ্যাকসিন আনার বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হোক। আমি অনুরোধ করছি, দেশের কথা ভেবে বিশ্বের যে কোন প্রান্ত থেকে ভ্যাকসিন আনা হোক।' একই দাবি উঠেছে বিভিন্ন রাজ্য থেকে। সেই সূত্রেই এবার কোভিড সরঞ্জাম আমদানিতে চিনের ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা তুলে নিল ভারত।

    ভারতের ভয়াবহ করোনা পরিস্থিতিতে ভারতের সাহায্যে যেসব দেশ এগিয়ে এসেছে, তার মধ্যে রয়েছে- আমেরিকা, ব্রিটেন, ফ্রান্স, জার্মানি, রাশিয়া, আয়ারল্যান্ড, বেলজিয়াম, রোমানিয়া, লাক্সেমবার্গ, পর্তুগাল, সুইডেন, অস্ট্রেলিয়া, ভুটান, সিঙ্গাপুর, সৌদি আরব, হংকং, তাইল্যান্ড, ফিনল্যান্ড, সুইৎজারল্যান্ড, নরওয়ে, ইতালি এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত। বিগত কয়েক বছরে চিনের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের অবনতি ঘটলেও, সেখান থেকেও ২৫ হাজার অক্সিজেন কনসেনট্রেটর এসে পৌঁছনোর কথা রয়েছে। এরই মধ্যে কোভিড সরঞ্জাম আমদানিতে চিনের উপর নিষেধাজ্ঞাও তুলে নেওয়া হল।

    Published by:Suman Biswas
    First published: