দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

নতুন সংসদ ভবন, ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের অনুমতি দিলেও এখনই নির্মাণ কাজ নয়, নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

নতুন সংসদ ভবন, ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের অনুমতি দিলেও এখনই নির্মাণ কাজ নয়, নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

আগামী ১০ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রীর হাতে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের কথা।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: "গণতন্ত্রের নতুন মন্দির" নামে ডাকা হচ্ছিল নতুন সংসদ ভবনকে। কেউ বলছিলেন আত্মনির্ভর ভারতের গৌরবগাথা হিসেবে সবচেয়ে বড় নিদর্শন। ২০২২ দেশের স্বাধীনতার প্ল্যাটিনাম জুবিলিতে নতুন সংসদ ভবনে লোকসভা এবং রাজ্যসভার অধিবেশন করে ইতিহাস রচনা করা হবে, এমনটাই ছিল ইচ্ছে।

আগামী ১০ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রীর হাতে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের কথা। লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা গিয়ে আমন্ত্রণ জানিয়ে এসেছিলেন নরেন্দ্র মোদিকে। কিন্তু আজ দেশের সর্বোচ্চ আদালত কেন্দ্রীয় সরকারকে জানিয়ে দিল কেন্দ্রের সেন্ট্রাল ভিস্টা প্রজেক্টের বিরুদ্ধে আগেই বেশ কিছু আবেদন দাখিল হয়েছিল। তাই নিয়ে চূড়ান্ত রায় এখনও আসেনি। সেগুলো খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সর্বোচ্চ আদালতের স্পষ্ট নির্দেশ রায় ঘোষণা করার আগে পর্যন্ত নতুন সংসদ ভবন নিয়ে কোনওরকম নির্মাণ কাজ যেন শুরু না হয়। জাস্টিস এ এম খানউইলকরের ডিভিশন বেঞ্চ ঘটনাটি পরিষ্কার করে দিয়েছে। কেন্দ্রের পক্ষ থেকে সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা জানিয়েছেন শীর্ষ আদালতের রায় তারা মেনে চলবেন। সবকিছু নিয়ম মেনেই হবে। নির্দিষ্ট দিনে ভূমি পুজো হবে, আইনি কাগজপত্র নিয়ে যেটুকু সমস্যা রয়েছে তা মিটিয়ে ফেলা হবে। কিন্তু কোনও ভাঙা-গড়া যেমন হবে না, তেমনই আদালতের রায় মেনে কোনও গাছ কাটাও যাবে না। টাটা প্রজেক্টস এবং কেন্দ্রীয় পূর্ত দফতর ইতিমধ্যেই কাজ শুরু করে দিয়েছে।

বর্তমান সংসদ ভবনের সামনের এলাকা ঢেকে ফেলা হয়েছে। মূলত শব্দ এবং বায়ু দূষণ নিয়ন্ত্রণে রাখতেই এই পদক্ষেপ। ৬৪,৫০০ বর্গমিটার জায়গার উপরে ত্রিভুজাকৃতি এই নতুন ভবন তৈরি করতে খরচ হবে ৯৭১ কোটি টাকা। নতুন ভবনে লোকসভায় ৮৮৮ জন এবং রাজ্যসভায় ৩৮৪ জন বসতে পারবেন, যা বর্তমান সংসদ ভবনের তুলনায় অনেকটাই বেশি। ভবিষ্যতে সাংসদ সংখ্যা বাড়ার ব্যাপারটা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আলাদা কনস্টিটিউশন হল থাকবে,নেতা,মন্ত্রীদের প্রবেশের জন্য একাধিক দরজা থাকবে। আপৎকালীন পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য সবরকম ব্যবস্থা মজুত থাকবে সেখানে। তবে কেন্দ্র মনে করছে সুপ্রিম কোর্টের রায় তাঁদের কাছে ধাক্কা নয়। বরং আরও সাবধানে এগোতে পারবে তাঁরা। সবকিছু ঠিকঠাক চললে নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই কাজ সম্পূর্ণ হয়ে যাওয়ার কথা।

Written By Rohan Roy Chowdhury

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: December 7, 2020, 1:47 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर