Home /News /national /
Minimum marriage age for women: ২১ নয়, ১৮-ই থাক! মেয়েদের বিয়ের বয়স বাড়ানোর বিপক্ষে ৯০ হাজার মেল পেল কেন্দ্র

Minimum marriage age for women: ২১ নয়, ১৮-ই থাক! মেয়েদের বিয়ের বয়স বাড়ানোর বিপক্ষে ৯০ হাজার মেল পেল কেন্দ্র

প্রতীকী ছবি। 

প্রতীকী ছবি। 

ই মেলের সারমর্ম, ৯৫ হাজার জনের মধ্যে ৯০ হাজার জন চান না মেয়েদের বিয়ের বয়স বাড়ানো হোক।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি : মেয়েদের বিয়ের বয়স বৃদ্ধি সংক্রান্ত খসড়া আইন বা বিলটি রয়েছে সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে। বুধবার সেই কমিটির রিপোর্টে উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য। সূত্রের খবর, মেয়েদের বয়স বৃদ্ধি সংক্রান্ত ৯৫ হাজার মেল এসেছে সংসদীয় স্থায়ী কমিটির কাছে। উল্লেখযোগ্য ভাবে, তার মধ্যে ৯০ হাজার ই মেল এসেছে বিলটির বিরোধিতা করে।

গত শীতকালীন অধিবেশনে বিলটি লোক সভায় পেশ করা হয়। যদিও পরে এই বিলটি নিয়ে আরও পর্যালোচনার জন্য সংসদীয় স্থায়ী কমিটির কাছে পাঠানো হয়। কমিটির নেতৃত্বে রয়েছেন বিজেপি সাংসদ বিনয় সহস্ত্রবুদ্ধে। মোট ৩১ জন সদস্য রয়েছেন এই সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে।

আরও পড়ুন: গ্রাম ভরে গেছে অবিবাহিত পুরুষে! যুবকদের বিয়ে দিতে অভিনব সিদ্ধান্ত নিল পঞ্চায়েত!

বিলটি নিয়ে যে মতামত এসেছে তাতে রীতিমতো উদ্বিগ্ন সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। ই মেলের সারমর্ম, ৯৫ হাজার জনের মধ্যে ৯০ হাজার জন চান না মেয়েদের বিয়ের বয়স বাড়ানো হোক। এই বিষয়টি ভাবাচ্ছে সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যদের। এই ই মেল গুলি নিয়ে আগামী দিনে আরও পর্যালোচনা করা হবে বলে সূত্রের খবর।

আরও পড়ুন: ভারতে দলিতদের উন্নয়নের বাস্তব রূপ কী? ভীমজয়ন্তীতে ফিরে দেখা আম্বেদকরের লড়াই

সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, বিলটি নিয়ে আরো এগিয়ে যাওয়ার আগে জয়া জেটলি কমিটির সুপারিশ পর্যালোচনা করা সহ বিভিন্ন এনজিও এবং মহিলা সমাজকর্মীদের সঙ্গে আলোচনা করতে চায় কমিটি। চলতি বছরের ২৪ জুন রিপোর্ট দেওয়ার কথা কমিটির।

বর্তমানে মেয়েদের বিয়ের বয়স নূন্যতম ১৮ বছর এবং ছেলেদের ক্ষেত্রে তা ২১ বছর। বিলের মাধ্যমে মেয়েদের বিয়ের বয়স ১৮ থেকে বাড়িয়ে ২১ বছর করতে চায় কেন্দ্রীয় সরকার। মূলত সন্তান জন্ম দিতে গিয়ে মৃত্যু, শিশুমৃত্যু, অপুষ্টি এবং নারী ও শিশুর অনুপাতের ভারসাম্য রাখতে মেয়েদের বিয়ের বয়স বাড়ানো প্রয়োজন বলে মনে করছে কেন্দ্রীয় সরকার।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য নাবালিকা বিয়ে বন্ধ করতে বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও প্রকল্পের সূচনা করেছে মোদি সরকার। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে বলা হয়েছে নারী এবং পুরুষ সমান অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে এই বিল আনা জরুরি। সেই কারণে মেয়েদের বিয়ের বয়স বাড়ানো হোক বিলটি নিয়ে তাড়াহুড়ো করতে চায় না কেন্দ্র। এই বিলটি নিয়ে আরো পর্যালোচনা এবং বিভিন্ন স্তরের মতামত চায় মোদি সরকার।

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

পরবর্তী খবর