Home /News /national /
রাজ্যের দুই স্কুল নিয়ে জট! মুখ্যমন্ত্রীকে কেন চিঠি দিলেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী ?

রাজ্যের দুই স্কুল নিয়ে জট! মুখ্যমন্ত্রীকে কেন চিঠি দিলেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী ?

Central Education minister Dharmendra Pradhan writes letter to Mamata Banerjee

Central Education minister Dharmendra Pradhan writes letter to Mamata Banerjee

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি লিখলেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান। যত দ্রুত সম্ভব দক্ষিণ ২৪ পরগনা ও মালদার জহর নবোদয় বিদ্যালয়ের জমি জট কাটাতে মুখ্যমন্ত্রীকে ব্যক্তিগতভাবে হস্তক্ষেপ করার আর্জি জানিয়েছেন তিনি। 

আরও পড়ুন...
  • Share this:

#নয়াদিল্লি : রাজ্যের দুই জেলায় জহর নবোদয় বিদ্যালয়ের জমি জট কাটাতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি লিখলেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান। যত দ্রুত সম্ভব দক্ষিণ ২৪ পরগনা ও মালদহের বিদ্যালয়ের জমি জট কাটাতে মুখ্যমন্ত্রীকে ব্যক্তিগতভাবে হস্তক্ষেপ করার আর্জি জানিয়েছেন তিনি। দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিদ্যালয়টি ২০০৭ সালে অনুমোদন পায়। তবে স্থায়ী ভবন না পাওয়ায় আপাতত একটি অস্থায়ী ভবনে পঠনপাঠন চলছে। মালদার বিদ্যালয়ের অনুমোদন হয় ২০১৬ সালে। তবে কোনও অস্থায়ী ভবন না মেলায় সেটি চালু করা যায়নি।

জহর নবোদয় বিদ্যালয় করার জন্য রাজ্য সরকারকে বিনামূল্যে জমি দিতে হয়। অন্তত তিন বছর অথবা স্থায়ী ভবন তৈরি না হওয়া পর্যন্ত অস্থায়ী ভবনের ব্যবস্থা করে দিতে হয়। এছাড়াও অন্তত ২৪০ জন পড়ুয়ার থাকার ব্যবস্থা করে দিতে হয়। বিনামূল্যে তাদের থাকার ব্যবস্থা করে দিতে হয়। দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিদ্যালয়টির জন্য অস্থায়ী ভবনের ব্যবস্থা করে দেয় জেলা প্রশাসন। তবে মালদহের ক্ষেত্রে জেলা প্রশাসনের তরফে কোনও জমি বা ভবন দেওয়া হয়নি। ফলে সেটি চালু করা যায়নি। মুখ্যমন্ত্রীকে ব্যক্তিগতভাবে হস্তক্ষেপ করে দ্রুত নিষ্পত্তির আবেদন জানিয়েছেন ধর্মেন্দ্র প্রধান।

আরও পড়ুন - Weather Update: বেলা বাড়লেই কলকাতায় বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি, একাধিক রাজ্যে অ্যালার্ট জারি আইএমডি-র

এর আগে জহর নবোদয় বিদ্যালয়ে রাগিংয়ের অভিযোগ উঠেছিল। র‍্যাগিং-এর জেরে দুই স্কুল ছাত্র কার্যত স্কুল থেকে চলে যেতে হয় মুর্শিদাবাদের বহরমপুরের জহর নবোদয় বিদ্যালয়ে। সপ্তম শ্রেণীর দুই ছাত্র তাদের জিনিসপত্র বের করে নিয়ে অভিভাবকদের সঙ্গে চলে যেতে বাধ্য হয়। অভিযোগ, গত মাসের ২৮ তারিখ একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্ররা ৫ ছাত্রকে মারধর করে। চিকিৎসা করানোর জন্য ৩ ছাত্রের অভিভাবকেরা বাড়িতে তাঁদের ছেলেদের নিয়ে যান। পরিবারের অভিযোগ, এরপর থেকে স্কুল কর্তৃপক্ষ তাদের সন্তানকে আর এই স্কুলে আসার অনুমতি দিচ্ছে না। স্কুলে এলেও কোনও গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে না, যার ফলে পড়াশোনার ক্ষতি হচ্ছে। যদিও স্কুল কর্তৃপক্ষের দাবি যে ছাত্ররা মারধর করেছিল তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। তিনমাসের জন্য সাসপেন্ড করা হয়েছে।

RAJIB CHAKRABORTY

Published by:Debalina Datta
First published:

Tags: Malda, Mamata Banerjee

পরবর্তী খবর