Home /News /national /
করোনা কমলেই কার্যকর হবে CAA, নির্বাচনী হুঙ্কারের মাঝেই ঘোষণা নাড্ডার

করোনা কমলেই কার্যকর হবে CAA, নির্বাচনী হুঙ্কারের মাঝেই ঘোষণা নাড্ডার

গত সপ্তাহেই 'টেক স্যাভি' অমিতকে সংগঠনকে আরও শক্তিশালী করতে এরাজ্যে বিজেপির সহকারী কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষকের দায়িত্ব সঁপেন জেপি নাড্ডা ৷ দায়িত্ব পালনে সোমবারই প্রথম কলকাতায় এলেন অমিত মালব্য ৷

গত সপ্তাহেই 'টেক স্যাভি' অমিতকে সংগঠনকে আরও শক্তিশালী করতে এরাজ্যে বিজেপির সহকারী কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষকের দায়িত্ব সঁপেন জেপি নাড্ডা ৷ দায়িত্ব পালনে সোমবারই প্রথম কলকাতায় এলেন অমিত মালব্য ৷

স্পষ্ট ভাষায় বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জানিয়ে দিলেন মহামারী করোনায় CAA পিছিয়েছে বাতিল হয়নি ৷ করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হলেই কার্যকর হবে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ৷

  • Share this:

    #শিলিগুড়ি: পুজোর আগে ঝটিকা সফরে বাংলায় এসে ঝটকা বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার ৷ নির্বাচনী প্রচারে পরিবর্তনের প্রতিশ্রুতির মাঝেই নাড্ডা মনে করিয়ে দিলেন নাগরিকত্ব আইন ভোলেনি বিজেপি ৷ স্পষ্ট ভাষায় বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জানিয়ে দিলেন মহামারী করোনায় CAA পিছিয়েছে বাতিল হয়নি ৷ করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হলেই কার্যকর হবে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ৷

    উৎসবের বাংলায় ভোটের দামামা। উত্তরবঙ্গ সফরে এসে পরিবর্তনের প্রতিশ্রুতি জেপি নাড্ডার। মমতা-সরকারের বিরুদ্ধে ডিভাইড অ্যান্ড রুল পলিসিতে রাজ্য চালানোর অভিযোগ। কেন্দ্রীয় প্রকল্প থেকে রাজ্যবাসীকে বঞ্চিত করার অভিযোগ। পালটা কেন্দ্রীয় বঞ্চনার অভিযোগে সরব ফিরহাদ।

    বিজেপি সভাপতি এ দিন সচেতন ভাবেই সিএএ প্রসঙ্গও তুলেছেন৷ এ দিনও তিনি দাবি করেছেন, নাগরিকত্ব আইন চালু হবেই৷ ফলে এ রাজ্যে বাংলাদেশ থেকে আসা হিন্দু শরণার্থীরাও নাগরিকত্ব পাবেন বলে আশ্বস্ত করেছেন তিনি৷ তাঁর দাবি, করোনার কারণে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের নিয়মগুলি তৈরি করতে সময় লাগছে৷ ফের সেই কাজ দ্রুত গতিতে শুরু হয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি৷ তবে গোর্খাল্যান্ড নিয়ে বিস্তারিত কিছু না বললেও জে পি নাড্ডা দাবি করেছেন, গোর্খাদের সমস্যার রাজনৈতিক সমাধান করতে তাঁরা দায়বদ্ধ৷

    টার্গেট উত্তরবঙ্গ। টার্গেট বাংলা। রাজ্যের তৃণমূল সরকারকে একের পর এক আক্রমণে বিঁধলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। সোমবার একদিনের সফরে উত্তরবঙ্গে আসেন নাড্ডা। প্রথমে শিলিগুড়িতে উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলার প্রতিনিধিদের নিয়ে সাংগঠনিক বৈঠক। তারপর সভা। মঞ্চে যখন দলের সর্বভারতীয় সভাপতি, পাশে তখন রাজ্যে বিজেপির দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়, দুই কেন্দ্রীয়মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় ও দেবশ্রী চৌধুরী। সঙ্গে উত্তরবঙ্গের একাধিক জনপ্রতিনিধি। সেখান থেকেই মমতা-সরকারের বিরুদ্ধে ডিভাইড অ্যান্ড রুল পলিসিতে রাজ্য চালানোর অভিযোগ করেন নাড্ডা।

    বাংলায় কেন্দ্রীয় সরকারের সমস্ত সামাজিক প্রকল্পেই বাধা দিচ্ছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সবকিছুতেই বলছেন 'হবে না, হবে না'৷ কিন্তু এপ্রিল মাসে বর্তমান রাজ্য সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরালেই এ রাজ্যে কেন্দ্রের সব প্রকল্প কার্যকর হবে৷ এ ভাবেই উত্তরবঙ্গ সফরে এসে রাজ্যে পরিবর্তনের ডাক দিলেন বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডা৷ বিজেপির দীর্ঘদিনের অভিযোগ, কেন্দ্রীয় প্রকল্পগুলি রাজ্যে চালুই করছে না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। যার ফলে বঞ্চিত হচ্ছেন রাজ্যের কয়েক লক্ষ মানুষ। এদিনও নাড্ডার মুখে বঞ্চনার সুর।

    Published by:Elina Datta
    First published:

    Tags: CAA, JP Nadda

    পরবর্তী খবর