corona virus btn
corona virus btn
Loading

ঝাঁসিতে খোঁজ মিলল আগ্রায় হাইজ্যাক হওয়া বাসের, উদ্ধার যাত্রীরা! নেপথ্যে বকেয়া ঋণ

ঝাঁসিতে খোঁজ মিলল আগ্রায় হাইজ্যাক হওয়া বাসের, উদ্ধার যাত্রীরা! নেপথ্যে বকেয়া ঋণ
প্রতীকী ছবি৷ PHOTO- PTI

যাত্রীদের নিরাপদে উদ্ধার করার জন্য নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ৷

  • Share this:

#আগ্রা: ভোরবেলা আগ্রা থেকে যাত্রীভর্তি বাস নিয়ে উধাও হয়ে গিয়েছিল চার অভিযুক্ত৷ শেষ পর্যন্ত কয়েকঘণ্টা তল্লাশি চালানোর পর প্রায় ২৫০ কিলোমিটার দূরে ঝাঁসি থেকে উদ্ধার হল হাইজ্যাক হওয়া বাসটি৷ নিরাপদে আছেন বাসের ৩৪ জন যাত্রীই৷ পুলিশ অবশ্য জানিয়েছে, বাস মালিক ঋণের টাকা শোধ না করাতেই তাঁকে শিক্ষা দিতে যাত্রী সমেত বাস নিয়ে গা ঢাকা দিয়েছিল ফিনান্স সংস্থার এজেন্টরা!

বাস হাইজ্যাকের অভিযোগে এ দিন সাতসকালে রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়ায় আগ্রায়৷ অভিযোগ, গুরুগ্রাম থেকে মধ্যপ্রদেশগামী বাসটি মাঝপথে থামিয়ে প্রথমে দুই কন্ডাক্টর ও চালককে নামিয়ে দেয় চার অভিযুক্ত৷ এর পর তাদের মধ্যে একজন যাত্রী সমেত বাসটি নিয়ে চম্পট দেয়৷ এই ঘটনা ঘিরে রীতিমতো হইচই পড়ে যায় উত্তর প্রদেশ প্রশাসনে৷ প্রথম থেকেই সন্দেহের তির ছিল ঋণদাতা সংস্থার এজেন্টদের দিকেই৷ বাসটি খুঁজে বের করতে এবং যাত্রীদের নিরাপদে উদ্ধার করতে পাঁচজন সার্কেল ইন্সপেক্টর এবং একজন এসপি-কে নিয়ে বিশেষ একটি দল গঠিত হয়৷ লাগোয়া জেলাগুলির পুলিশকেও সতর্ক করা হয়৷ যাত্রীদের নিরাপদে উদ্ধার করার জন্য নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ৷

তার পরেও অবশ্য সহজে বাস এবং যাত্রীদের খোঁজ মেলেনি৷ বেশ কয়েক ঘণ্টা তল্লাশির পর আগ্রা থেকে ২৫০ কিলোমিটার দূরে ঝাঁসি থেকে বাসটি উদ্ধার হয়৷ যাত্রীরাও সবাই সুস্থই ছিলেন৷

আগ্রার এসপি জানিয়েছেন, এ দিন সকালেই বাসটির মধ্যপ্রদেশের পান্নায় পৌঁছনোর কথা ছিল৷ কিন্তু ভোর চারটে নাগাদ বাসটি আগ্রায় ঢোকার পরই হাইওয়ের উপরে একটি গাড়ি বাসটিকে ওভারটেক করে পথ আটকায়৷ ওই গাড়িতেই ফিনান্স সংস্থার এজেন্টরা ছিল৷ তারা জানায়, তাদের অফিস গ্বালিয়রে৷ বাসের চালক এবং কন্ডাক্টরদের থেকে পুলিশ জানতে পেরেছে, বাস মালিক ঋণের টাকা শোধ করেননি বলে অভিযোগ জানায় ওই এজেন্টরা৷ সম্প্রতি ওই বাস মালিক মারা যান৷ টাকা শোধ না হওয়াতেই বাসের দখল নেওয়া হচ্ছে বলে জানানো হয়৷ চালক এবং দুই কন্ডাক্টরকে গাড়িতে তুলে নেওয়া হয়৷ আর ফিনান্স সংস্থার এক কর্মী যাত্রী ভর্তি বাস নিয়ে চলে যায়৷ খাওয়া দাওয়ার জন্য চালক- কন্ডাক্টরদের ২০০ টাকাও দেয় ঋণদানকারী সংস্থার এজেন্টরা৷

এই ঘটনায় পুলিশ একটি অপহরণের অভিযোগ দায়ের করে তদন্ত শুরু করেছে৷ তবে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এখনও চারজন অভিযুক্তের কাউকেই গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: August 19, 2020, 6:12 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर