corona virus btn
corona virus btn
Loading

Lockdown| ভাড়া বাড়িয়েও বাস চালানো লাভজনক হবে? সংশয়ে বাস মালিকরা 

Lockdown| ভাড়া বাড়িয়েও বাস চালানো লাভজনক হবে? সংশয়ে বাস মালিকরা 
বেসরকারি বাস

বাস মালিক সংগঠনের প্রতিনিধিরা প্রাথমিক ভাবে যে ভাড়ার তালিকা দ্বিগুণ হারে বৃদ্ধি করে হিসাব কষেছেন তাতে দেখা যাচ্ছে। কলকাতায় প্রথম ৪ কিমি ভাড়া ৭ টাকা। ৪ থেকে ১২ কিমি ভাড়া ৮ টাকা৷ ১২ থেকে ১৬ কিমি ভাড়া ৯ টাকা৷ ১৬ থেকে ২০ কিমি ভাড়া ১০ টাকা ও ২০ থেকে ২২ কিমি ভাড়া ১১ টাকা।

  • Share this:

#কলকাতা: লকডাউনের আগে বাসের নূন্যতম ভাড়া ছিল ৭ টাকা। তারপর প্রতি স্টেজে ভাড়া বেড়েছে এক টাকা করে কলকাতা শহরের ক্ষেত্রে। জেলার ক্ষেত্রে বাসের ভাড়া নুন্যতম ৭ টাকাই আছে। তারপরে প্রতি কিলোমিটারে সাধারণ বাসের ক্ষেত্রে ভাড়া বাড়ে ৭০ পয়সা করে। এক্সপ্রেস বাসের ক্ষেত্রে ভাড়া বাড়ে ৭৫ পয়সা করে।

বাস মালিক সংগঠনের প্রতিনিধিরা প্রাথমিক ভাবে যে ভাড়ার তালিকা দ্বিগুণ হারে বৃদ্ধি করে হিসাব কষেছেন তাতে দেখা যাচ্ছে। কলকাতায় প্রথম ৪ কিমি ভাড়া ৭ টাকা। ৪ থেকে ১২ কিমি ভাড়া ৮ টাকা৷ ১২ থেকে ১৬ কিমি ভাড়া ৯ টাকা৷ ১৬ থেকে ২০ কিমি ভাড়া ১০ টাকা ও ২০ থেকে ২২ কিমি ভাড়া ১১ টাকা।কলকাতায় এই ভাড়া প্রাথমিকভাবে দ্বিগুণ করার পরিকল্পনা। ফলে প্রথম ৪ কিমি ভাড়া ১৪ টাকা হবে।৪ থেকে ১২ কিমি ভাড়া ১৬ টাকা১২ থেকে ১৬ কিমি ভাড়া ১৮ টাকা১৬ থেকে ২০ কিমি ভাড়া ২০ টাকা২০ থেকে ২২ কিমি ভাড়া ২২ টাকা হবে।

অন্যদিকে জেলার ক্ষেত্রে তা হবে,জেলায় বাস চলে দুই ধরনের। নূন্যতম ভাড়া ৭ টাকা। যা ৪ কিলোমিটার অবধি নেওয়া হয়। এরপর সাধারণ বাস প্রতি কিলোমিটারে ভাড়া বাড়ে ৭০ পয়সা করে এক্সপ্রেস ভাড়া বাড়ে ৭৫ পয়সা করে প্রতি কিলোমিটারে। এটা প্রাথমিকভাবে সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে। ০ থেকে ৪ কিলোমিটার ভাড়া হবে ১৪ টাকা। এরপর প্রতি কিলোমিটারে ভাড়া বাড়বে সাধারণ বাসে ১.৪০ পয়সা।এক্সপ্রেসে ভাড়া বাড়বে ১.৫০ পয়সা হারে।বাস মালিক সংগঠনের দাবি তাদের প্রতিদিন বাস চালাতে সাধারণত খরচ হয় ৬০০০ টাকা।

খরচের হিসেব তারা দিচ্ছেন, প্রতিদিন বাস চালানোর খরচ। চালক ৮০০ টাকা, কন্ডাক্টর ৪৫০-৫০০ টাকা, হেল্পার ৩০০-৩৫০ টাকা, ডিজেল ২০০০ টাকা, ব্যাঙ্কের কিস্তি ১৭০০ টাকা, অন্য খরচ ৫০০ টাকা৷ মোট খরচ ৬০০০ টাকা।এই হিসেব অনুযায়ী তাদের বক্তব্য ২০ জন যাত্রী নিয়ে সারাদিন লকডাউনে বাস চললেও তাদের ক্ষতি হবে প্রায় ৩০০০ টাকা।

বাস সংগঠনের নেতা রাহুল চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, "এই কারণেই আমরা মুখ্যমন্ত্রী ও পরিবহণ মন্ত্রীকে চিঠি দিয়ে আমাদের অসুবিধার কথা জানিয়েছি।" রাজ্য সরকারের ভাড়া বৃদ্ধির সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানালেও, বাস সংগঠন নেতা তপন বন্দোপাধ্যায়ের দাবি, "কেন্দ্র লকডাউন না তুললে, লোকাল ট্রেন না চালালে যাত্রী হবে না বাসের। তাই ভাড়া বৃদ্ধি করেও আদৌ কতটা লাভ হবে তা বুঝতে পারছি না।"

এরই মধ্যে সমস্যা তৈরি হয়েছে একই রুটে সরকারি ও বেসরকারি বাস চলবে আলাদা ভাড়ায়। বাস মালিক সংগঠনের দাবি, যাত্রীরা কম টাকায় সেই সরকারি বাসকে বেছে নেবেন। ফলে ভাড়া বাড়িয়েও বাস চালানো লাভজনক নয় বলে মনে করছে বাস মালিকরা।

ABIR GHOSHAL

Published by: Arindam Gupta
First published: May 13, 2020, 5:54 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर