Home /News /national /

বউ যখন ডাকাত! বিয়ের কয়েক ঘন্টার মধ্যেই নগদ টাকা, গয়না হাতিয়ে চম্পট কনে!

বউ যখন ডাকাত! বিয়ের কয়েক ঘন্টার মধ্যেই নগদ টাকা, গয়না হাতিয়ে চম্পট কনে!

তবে এরপর আর বেশি কথা বাড়াননি ওই তরুণী। সেখান থেকে চলে যান তিনি। কথা বাড়ায়নি গ্রামবাসীরাও। শেষমেষ বিয়ে হয় ওই যুবতী ও যুবকের। শেষ পর্যন্ত অবশ্য টস ছাড়াই নির্ধারিত হন বিয়ের কনে।  প্রতীকী ছবি  

তবে এরপর আর বেশি কথা বাড়াননি ওই তরুণী। সেখান থেকে চলে যান তিনি। কথা বাড়ায়নি গ্রামবাসীরাও। শেষমেষ বিয়ে হয় ওই যুবতী ও যুবকের। শেষ পর্যন্ত অবশ্য টস ছাড়াই নির্ধারিত হন বিয়ের কনে।  প্রতীকী ছবি  

'ডলি কি ডৌলি' সিনেমার মতো ঘটনাই ঘটে গেল উত্তরপ্রদেশের একটি বিয়ের মণ্ডপে। খোদ কনেই তার শ্বশুরবাড়ির যাবতীয় সোনা-দানা টাকা-পয়সা নিয়ে পালাল বিয়ের মাত্র ৫ ঘণ্টার মধ্যে।

  • Share this:

    #বরেলি: 'ডলি কি ডৌলি' সিনেমার মতো ঘটনাই এবার ঘটে গেল উত্তরপ্রদেশের একটি বিয়ের মণ্ডপে। UP -র শাহজাহানপুরে একটি বিয়েবাড়িতে খোদ কনেই তার শ্বশুরবাড়ির যাবতীয় সোনা-দানা টাকা-পয়সা নিয়ে পালাল বিয়ের মাত্র ৫ ঘণ্টার মধ্যে। এই কাজে অবশ্য এক ছিলেন না এই নববধূ। 'ডলি'র মতো তার ও কিছু সঙ্গী ছিল এই কাজে। জানা গিয়েছে বিয়ের আয়োজনে কাজ করেছিল এমনই দুজন পুরুষ সঙ্গীর সঙ্গে পালিয়েছে ওই মহিলা।

    বিয়ের জন্য কিছুতেই পছন্দসই মেয়ে খুঁজে পাচ্ছিলেন না পাত্র। সেসব শুনে শেষমেশ ফারুক্কাবাদের এক দরিদ্রের মেয়েকে বিয়ে করার পরামর্শ দিয়েছিলেন যুবকটির জামাইবাবু। প্রাথমিক কথাবার্তার পর ফারুক্কাবাদের মন্দিরে সম্পন্ন হয় বিয়ের অনুষ্ঠান। সেইসময় দুজন যুবক মেয়ের পরিচিত পরিচয়ে বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন বাবদ ৩০,০০০ টাকা চায়। তারপরেই মন্দিরে বিয়ে সেরে পোয়াইয়াতে বরের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয় কনেকে। কিন্তু সেখানে পৌঁছনোর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই নতুন কনে আর তার দুই সঙ্গীকে আর খুঁজে পাওয়া যায় না। খোঁজ নিয়ে দেখা যায় তাদের সঙ্গে গায়েব বাড়ির টাকা-পয়সা, গয়না-গাটি সব।

    নগদ ও গহনা নিয়ে তিনজন পালিয়েছে এই অভিযোগ নিয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হয় পরিবারটি। যদিও এই ঘটনায় পুলিশ এখনও এফআইআর রেজিস্ট্রেশন করতে পারেনি। তাদের বক্তব্য, অভিযোগের সত্যতা যাচাই করেই নেওয়া হবে এফ এই আর।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published:

    Tags: Robbery, UttarPradesh

    পরবর্তী খবর