এক বাথরুমে সাত ঘণ্টা আটকে রইল চিতা আর কুকুর; তার পর...

এক বাথরুমে সাত ঘণ্টা আটকে রইল চিতা আর কুকুর; তার পর...

বাড়ির এক সদস্য ভোরে উঠে বাথরুমের দরজা খুলতেই দেখেন, একদিকে একটি কুকুর বসে। অন্য দিকে লেপার্ড!

বাড়ির এক সদস্য ভোরে উঠে বাথরুমের দরজা খুলতেই দেখেন, একদিকে একটি কুকুর বসে। অন্য দিকে লেপার্ড!

  • Share this:

#দক্ষিণ কন্নড়: ঘরে যদি পছন্দের সঙ্গী থাকে বা বন্ধু থাকে, তাহলে জমে যেতে পারে সময়! কিন্তু যদি একদম বিপরীত মেরুর কারও সঙ্গে ঘরে আটকে যান, তাহলে কেমন হয়? বা এমন কারও সঙ্গে ঘরবন্দী অবস্থায় থাকতে হল, যে যখন খুশি মেরে ফেলতে পারে? তাহলে পরিস্থিতি যেমন হতে পারে, তারই নিদর্শন মিলল কর্নাটকে। একই বাথরুমে সাত ঘণ্টা আটকে রইল লেপার্ড ও কুকুর। কিন্তু দু'জনকেই অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় বাথরুম থেকে। কারও গায়ে একটা আঁচড়েও দাগ ছিল না!

ঘটনাটি কর্নাটকের দক্ষিণ কন্নড় জেলার কাবাদার বিলিনেলে গ্রামের। The New Minute-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, লেপার্ড ও কুকুরটি একটি গৃহস্থের বাথরুম থেকে উদ্ধার করা হয়। বাড়ির এক সদস্য ভোরে উঠে বাথরুমের দরজা খুলতেই দেখেন, একদিকে একটি কুকুর বসে। অন্য দিকে লেপার্ড!

ঘটনাটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার হয় প্রজ্জ্বল নামের একটি অ্যাকাউন্ট থেকে। যাতে ছবিতে দেখা যায়, বাথরুমের এক কোণে বসে লেপার্ড ও অন্য কোণে কুকুর। তাদের মধ্যে যথেষ্ট দূরত্ব নজরে আসে। ছবিটি শেয়ারের সঙ্গে সঙ্গেই ভাইরাল হয়।

জানা যায়, লেপার্ডটি আগের দিন রাতে কুকুরটিকে ধাওয়া করতে শুরু করে। কুকুরটি নিজেকে বাঁচাতে কোনও মতে একটি বাথরুমে ঢুকে পড়ে। কিন্তু তাকে খুঁজতে খুঁজতে সেই বাথরুমের হদিশ পায় লেপার্ড ও সেও বাথরুমটিতে ঢোকে। আপাতদৃষ্টিতে দেখলে কুকুরটিকে খেতেই হয় তো বাথরুমে ঢুকেছিল লেপার্ডটি। কিন্তু কোনও কারণে ঘটনাটি অন্য মোড় নেয়। এবং লেপার্ডটি কোনও ভাবেই কুকুরটিকে মারেনি বা খেয়ে ফেলেনি।

যিনি প্রথম ঘটনাটি দেখতে পান, তিনি পুলিশে খবর দিলে, বনদফতরের কর্মীরা এসে লেপার্ডটিকে উদ্ধার করার চেষ্টা করে। কিন্তু সে নিজেই দুপুর ২টো নাগাদ সেখান থেকে পালিয়ে যায়।

বিষয়টি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন বন আধিকারিক পরভিন কাসওয়ানও। তিনি ক্যাপশনে লিখেছেন, প্রত্যেক জীবেরই একটা সৌভাগ্যের দিন থাকে। কুকুরেরও একটা দিন থাকে। আর এটাই ছিল সেই দিন। এটা শুধু ভারতেই হতে পারে।

ঘটনাটি শেয়ারের সঙ্গে সঙ্গেই কার্যত ভাইরাল হয়। বহু মানুষ পোস্টটিতে কমেন্ট করেন। শেয়ারও হয় প্রচুর।

গৃহস্থের ঘরে বাঘ বা চিতা বাঘ ঢুকে যাওয়ার ঘটনা কর্নাটকে মাঝেমধ্যেই ঘটে। বিশেষ করে গ্রাম্য এলাকায় মানুষকে বেশি সচেতন থাকতে হয়।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: