পুরুষ, মহিলার পাশাপাশি ব্রাহ্মণদের জন্য আলাদা শৌচালয়! বর্ণভেদ উস্কে দেওয়ার অভিযোগ কেরলে

পুরুষ, মহিলার পাশাপাশি ব্রাহ্মণদের জন্য আলাদা শৌচালয়! বর্ণভেদ উস্কে দেওয়ার অভিযোগ কেরলে
The image uploaded on social media showing three toilets, with signboards for 'Men', 'Women' and 'Brahmins'. (News18)

কোচির দেবাসম বোর্ডের পক্ষ থেকে অবশ্য ছবি ভাইরাল হওয়ার পরেই জানানো হয়েছে, ‘এই বোর্ড অভিযোগ ওঠার পরেই সরিয়ে নেওয়া হয়েছে৷

  • Share this:

#তিরুবনন্তপুরম: মহিলা ও পুরুষদের জন্য আলাদা করে শৌচালয় আছে৷ এর পাশাপাশি ব্রাহ্মণদের জন্য আলাদা শৌচালয়ের ব্যবস্থা রয়েছে থিসুরে অবস্থিত একটি মন্দিরে৷ কয়েকদিন আগে অরবিন্দ জি খ্রিস্টো নামে এক স্থানীয় বাসিন্দা এই শৌচালয়ের ছবি পোস্ট করার পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় ওঠে৷ বিতর্ক শুরু হওয়ায় নড়েচড়ে বসে মন্দির কর্তৃপক্ষও৷ কোচির দেবাসম বোর্ডের পক্ষ থেকে অবশ্য ছবি ভাইরাল হওয়ার পরেই জানানো হয়েছে, ‘এই বোর্ড অভিযোগ ওঠার পরেই সরিয়ে নেওয়া হয়েছে৷ কি কারণে, কোনও প্রেক্ষিতে এই বোর্ডটি লাগানো হয়েছে, সেটিও খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷ যতদূর সম্ভব ২০০৩ সালে এই বোর্ডটি টাঙানো হয়েছিল৷ তবে মন্দিরে আমরা এমন কার্যকলাপ সহ্য করা হবে না৷’ মন্দির কর্তৃপক্ষও জানিয়েছে, এই নোটিস বোর্ডটি যে ঝুলছে, তা এতদিন মন্দির কর্তৃপক্ষের চোখেই পড়েনি৷ কারণ, এই শৌচালয়গুলি মন্দির প্রধান এলাকা থেকে অনেকখানি দূরে৷ কিন্তু এটি মন্দিরের কর্মচারী থেকে ভক্তকুল, সকলেই এতদিন ব্যবহার করতেন৷

এই মন্দিরের নোটিস বোর্ডটি ২৫ বছর আগে এখানে টাঙানো হয়েছিল৷ কিন্তু নোটিস বোর্ডটি এতদিন লক্ষ্য করা হয়নি৷ তবে খবর পাওয়ার পরেই আমরা ওটি মুছে দিয়েছি৷ আমরা জানি, এভাবে কোনও বোর্ড লাগিয়ে রাখা মোটে উচিত না৷ কেরালের মতো সমাজে তো এই প্রথা আরও সহ্য করা যায় না৷ স্থানীয় সিপিএম কাউন্সিলরও জানিয়েছেন, আমরাও লক্ষ্য করিনি বোর্ডটি৷ দেখার সঙ্গে সঙ্গে আমরা বিষয়টি সরিয়ে ফেলেছি৷

First published: March 6, 2020, 8:02 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर