Home /News /national /
স্কুল বাসের মেঝে ভেঙে রাস্তায় পড়ে মৃত ১৩ বছরের পড়ুয়া

স্কুল বাসের মেঝে ভেঙে রাস্তায় পড়ে মৃত ১৩ বছরের পড়ুয়া

আগামিকাল থেকে বন্ধ রাজ্যের সমস্ত সরকারি, সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত স্কুল ৷ আইসিএসই ও সিবিএসই স্কুলগুলিকেও ফণীর কারণে শুক্র ও শনিবার ছুটি ঘোষণার আবেদন জানিয়েছে স্কুল শিক্ষা দফতর ৷Representational Image

আগামিকাল থেকে বন্ধ রাজ্যের সমস্ত সরকারি, সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত স্কুল ৷ আইসিএসই ও সিবিএসই স্কুলগুলিকেও ফণীর কারণে শুক্র ও শনিবার ছুটি ঘোষণার আবেদন জানিয়েছে স্কুল শিক্ষা দফতর ৷Representational Image

স্কুল বাসের মেঝে ভেঙে রাস্তায় পড়ে পিষে মারা গেল ১৩ বছরের এক পড়ুয়া ৷ মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে আগ্রার খেরাগড় এলাকায় ৷

  • Share this:

    #আগ্রা: স্কুল বাসের মেঝে ভেঙে রাস্তায় পড়ে পিষে মারা গেল ১৩ বছরের এক পড়ুয়া ৷ মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে আগ্রার খেরাগড় এলাকায় ৷ ১৩ বছরের আদিত্য, পূর্ণচন্দর রামেশচন্দ্র সরস্বতী বিদ্যামন্দির স্কুলের ছাত্র ৷ ঘটনার পর থেকেই স্কুল গাড়িগুলির দিকে আরও নজর দেওয়ার দাবি উঠেছে ৷

    আরও পড়ুন: খুন না আত্মহত্যা ? কী দেখা গেল ভাটিয়াদের সিসিটিভি ফুটেজে ?

    স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে বাস থেকে নামার জন্য উঠেছিল আদিত্য ৷ সেই সময় আচমকা বাসের একটি অংশের মেঝে ভেঙে পড়ায়, আদিত্যও নীচে পড়ে যায় ৷ বাসের পিছনের চাকায় পিষ্ট হয়ে মৃত্যু হয় তার ৷ ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার ৷

    আরও পড়ুন: বীরভূমে পাইথন গলায় জড়িয়ে সেলফি হিড়িক, সময়ে চিকিৎসা না পেয়ে মৃত্যু সাপের

    আদিত্যের পরিবারের তরফে এখনও কোনও অভিযোগ দায়ের করা হয়নি ৷ অভিযোগ দায়ের করার পর মামলা রুজু করা হবে ৷ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে ৷ বাসের চালক ইসলামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ৷ বাসটিকে বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে ৷

    আদিত্যের সঙ্গে তার বড় দিদিও সেই সময় বাসে ছিল ৷ সে জানিয়েছে যে এর আগে বহুবার বাসের বেহাল দশা নিয়ে কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ জানানো হয়েছে ৷ কিন্তু তাদের তরফে কোনও পদক্ষেপেই নেওয়া হয়নি ৷

    আরও পড়ুন: প্রেমের প্রমাণ দিতে বান্ধবীর বাড়িতে নিজেকে গুলি বিজেপি নেতার

    ঘটনার পর ক্ষুব্ধ জনতা আদিত্যের দেহ আটকে রাস্তা অবরোধ করেন ৷ এরপর পুলিশে এসে দেহ উদ্ধার করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে ৷ পাশাপাশি দোষীদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপেরও আশ্বাস দিয়েছে ৷

    First published:

    Tags: Boy crushed to death, Damaged floor of a school bus

    পরবর্তী খবর