• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • BJP USED PRATIMA BHOUMIKS CENTRAL MINISTERSHIP TO STOP TMC WAVE IN TRIPURA SB

Pratima Bhoumik: বাংলার দিদিকে রুখতে হাতিয়ার ত্রিপুরার দিদি, প্রতিমাকে ঘিরে নতুন ছক বিজেপির

দুই 'দিদি'

Pratima Bhoumik: তৃণমূলের পাল্টা ত্রিপুরায় পথে নামছে বিজেপিও। আর সেই কর্মসূচিতে কেন্দ্রস্থলে থাকছেন সদ্য কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হওয়া প্রতিমা ভৌমিক।

  • Share this:

    #আগরতলা: ত্রিপুরার মানুষের মুখে 'দিদি' নামে পরিচিত তিনি। বাংলার 'দিদি'র দলের বিরুদ্ধে এবার সেই ত্রিপুরার দিদিকেই কাজে লাগাতে শুরু করল বিজেপি। ইতিমধ্যেই ত্রিপুরার জন্য কোমর বেধে নেমেছে তৃণমূল। নেতা-মন্ত্রী-সাংসদদের প্রতিদিনই বিজেপি শাসিত রাজ্যে পাঠাচ্ছে এ রাজ্যের শাসক দল। আগামী ১৬ অগস্ট, ত্রিপুরার মাটিতে খেলা হবে দিবস পালন করবে তৃণমূল। সেই কারণেই ত্রিপুরায় থাকছেন ৯ জন তৃণমূল সাংসদ ও মন্ত্রী ব্রাত্য বসু। সেদিন আগরতলায় দশ হাজার মানুষ নিয়ে মিছিল করার দাবি করেছেন ব্রাত্য। আর তৃণমূলের সেই কর্মসূচিরই পাল্টা ওইদিন থেকেই পথে নামছে বিজেপিও। আর সেই কর্মসূচিতে কেন্দ্রস্থলে থাকছেন সদ্য কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হওয়া প্রতিমা ভৌমিক।

    ১৬ অগস্ট থেকে টানা চারদিন 'আশীর্বাদ যাত্রা' নামে কর্মসূচি নিয়েছে বিজেপি। সেই কর্মসূচিতে প্রতিমা ভৌমিককে বিমানবন্দর থেকে বিজেপি সদর দফতর অবধি বাইক মিছিল করে নিয়ে আসা হবে৷ এর নাম দেওয়া হয়েছে আশীর্বাদ যাত্রা৷ চার দিন ধরে এই যাত্রা চলবে। ত্রিপুরার আটটি জেলায় মোট ২০টি বড় অনুষ্ঠান হবে। সব মন্ত্রী, বিধায়ক, সাংগঠনিক নেতা ও বিশেষ ব্যক্তিদের নিয়ে হবে সৌজন্য অনুষ্ঠান। এমনকী জিমন্যাস্ট দীপা কর্মকারের বাড়িতেও যাবেন বিজেপির কর্মকর্তারা।

    ১৭ অগস্ট কল্যাণপুরে গ্রামীণ নাগরিক সংবর্ধনা দেওয়া হবে প্রতিমা ভৌমিককে। ১৮ অগস্ট ত্রিপুরেশ্বরী মন্দিরে যাবেন তিনি। ১৯ অগস্ট কমলাসাগরে যাবেন কালী মন্দিরে পুজো দিতে। অর্থাৎ, মোদ্দা কথা, যে মহিলা ভোটকে ত্রিপুরায় পাখির চোখ করেছে তৃণমূল, তা নিজেদের দখলে রাখতে রাজ্য থেকে হওয়া মহিলা কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকেই সামনে রাখতে চাইছে বিজেপি।

    প্রতিমার জন্ম পশ্চিম ত্রিপুরার অখ্যাত বড়নারায়ণপুরে। গত তিন দশক ধরে নিষ্ঠার সঙ্গে আরএসএসের নানা দায়িত্ব পালন করে এসেছেন কৃষক পরিবারের সন্তান প্রতিমা। তারই পুরস্কার হিসেবে এবার কেন্দ্রে মন্ত্রিত্ব পেয়েছেন তিনি। বিজেপি মন্ত্রিসভা রদবদলে এবার গুরুত্ব দিয়েছিল নিপীড়িত শোষিত আদিবাসী সমাজের প্রতিনিধি তুলে আনার দিকে। জোর দেওয়া হয়েছিল মহিলা প্রতিনিধি বাড়ানোর ক্ষেত্রেও। সেই কারণেই এবার ঠাঁই পেয়েছেন প্রতিমা। আর প্রতিমার সেই মন্ত্রী হওয়াকেই এবার অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করতে চাইছেব বিজেপি।

    Published by:Suman Biswas
    First published: