• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • BJP MP SANGHMITRA MAURYA SEEKS ACTION AGAINST NUSRAT JAHAN AS SHE PLACES MISS INFORMATION ON MARITAL STATUS AKD

Nusrat Jahan Controversy: লোকসভায় শাখা সিঁদুর পরে এসেছিলেন নুসরত, তথ্য তুলে পদ খারিজের দাবি বিজেপি সাংসদের

নুসরতের সাংসদ পদ খারিজ হোক চান সংঘমিত্রা।

সংঘমিত্রার মতে, নুসরত যা করেছেন তা এক কথায় অনৈতিক ও বেআইনি। এই কারণে তাঁর সাংসদ পদ খারিজ হওয়া দরকার।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: বিতর্ক কিছুতেই পিছু ছাড়ছে না তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহানের। বিবাহ সম্পর্কে বিভ্রান্তিকর তথ্য দেওয়ার জন্য এবার তাঁর সাংসদ পদ খারিজের আবেদন জানালেন বিজেপি সাংসদ সংঘমিত্রা মৌর্য। লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লাকে চিঠি দিয়ে সংঘমিত্রা জানিয়েছেন, এই বিষয়ে এথিকস কমিটির সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত। সংঘমিত্রার মতে, নুসরত যা করেছেন তা এক কথায় অনৈতিক ও বেআইনি। এই কারণে তাঁর সাংসদ পদ খারিজ হওয়া দরকার।

    মৌর্য নুসরতের সাংসদ পদ নন-এস্ট বলে ব্যাখ্যা করছেন। নন এস্ট এই আইনি পরিভাষাটি বোঝায় চুক্তিলঙ্ঘনকারী কোনও পদক্ষেপ। গত ১৯ জুন স্পিকারকে চিঠি দেন সংঘমিত্রা মৌর্য।  চিঠির সঙ্গে তিনি জুড়ে দেন নুসরতের শপথের প্রতিলিপিও যেখানে স্পষ্টভাবেই বলা রয়েছে তাঁর স্বামীর নাম নিখিল জৈন।

    সংঘমিত্রা চিঠিতে লিখেছেন গণমাধ্যমে নুসরত নিজের বৈবাহিক সম্পর্ক বিষয়ে যা বলেছেন তা লোকসভায় শপথ নেওয়ার সময় তিনি যে তথ্য দিয়েছিলেন তার ঠিক উল্টো। এক্ষেত্রে তাঁর সদস্যপদটি আইনের চোখে খারিজযোগ্য।

    সংঘমিত্রা মনে করিয়েছেন ২০১৯ সালের ২৫ জুন নুসরত জাহান শপথ নেওয়ার সময়ে নিজের পরিচয় দিয়েছিলেন নুসরত জাহান রুহি জইন। নববধূর বেশেই তিনি হাজির হয়েছিলেন সংসদে। এমনকি সেই সময় সিঁদুর পরার কারণে তাঁকে একদল মৌলবাদী আক্রমণ করেছিল বলেও মনে করিয়েছেন সংঘমিত্রা। তাঁর কথায়, সে সময়ে সব দলের সাংসদরা  নুসরাতের পাশে ছিলষ

    এখানেই শেষ নয়, সংঘমিত্রা মনে করাচ্ছেন, নুসরতের বিয়ের অনুষ্ঠানে স্বয়ং  মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গিয়েছিলেন। পরে  এএনআই-কে তিনি আরও বলেন, কারও ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে  নাক গলানো উচিত নয়। কিন্তু তিনি সম্প্রতি মিডিয়ায় যা বলেছেন তার অর্থ এই যে সংসদে তিনি মিথ্যা কথা বলেছেন। এখন লোকসভায় বেআইনি এক্তিয়ার বা মিথ্যে কথা বললে আসলে সংসদ এবং তার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে মানুষের মনে ভুল ধারণা তৈরি করে। সেই কারণেই তাঁর এই পদক্ষেপ বলে জানাচ্ছেন সংঘমিত্রা।

    Published by:Arka Deb
    First published: